‘জঙ্গিদের থেকে আমরা এক ধাপ এগিয়ে’

‘জঙ্গিদের থেকে আমরা এক ধাপ এগিয়ে’

র‌্যাব সদর দপ্তরে মঙ্গলবার দুপুরে সাম্প্রতিক আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে বাহিনীর ডিজি চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন। ছবি: নিউজবাংলা

জঙ্গিদের কার্যক্রম এখন কীভাবে চলছে এমন এক প্রশ্নের জবাবে র‌্যাবের ডিজি বলেন, ‘জঙ্গিগোষ্ঠীর থেকে আমরা এক ধাপ এগিয়ে আছি। আমাদের সাইবার সক্ষমতা কাজে লাগিয়ে আমরা সাইবার জগতে জঙ্গি কার্যক্রমের মনিটরিং করছে। এই মনিটরিংয়ের মাধ্যমে যখনই আমরা তথ্য পাচ্ছি, তাদের গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনছি।’

দেশে জঙ্গি গোষ্ঠীগুলোর বড় ধরনের হামলার সামর্থ্য নেই মন্তব্য করে র‌্যাবের মহাপরিচালক (ডিজি) চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেছেন, তাদের চেয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীটি এক ধাপ এগিয়ে।

র‌্যাবের সদর দপ্তরে মঙ্গলবার দুপুরে সাম্প্রতিক আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

র‌্যাব ডিজি বলেন, ‘জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে আমরা যেভাবে কার্যক্রম চালাচ্ছি, এতে জঙ্গিবাদের স্থান বাংলাদেশে হবে না। তাদের থেকে আমরা এক ধাপ এগিয়ে আছি।

‘এই মুহূর্তে আমাদের গোয়েন্দা তথ্যে জানা যায়, জঙ্গিদের সামর্থ্য নেই আক্রমণাত্মক হওয়ার।’

চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, ‘র‌্যাব প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে এখন পর্যন্ত আড়াই হাজার এবং শুধু হলি আর্টিজান হামলার পরে দেড় হাজার জঙ্গি গ্রেপ্তার করেছে। র‌্যাবের জঙ্গিবিরোধী অভিযান চলমান রয়েছে এবং ভবিষ্যতেও থাকবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘র‌্যাবের কাছে ১৬ জন জঙ্গি আত্মসমর্পণ করেছে। তাদেরকে ডিরেডিক্যালাইজেশনের মাধ্যমে পুনর্বাসন করা হয়েছে। ভবিষ্যতেও জঙ্গিরা আত্মসমর্পণ করতে চাইলে তাদেরকেও পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করা হবে।’

জঙ্গিদের বড় কোনো হামলার সামর্থ্য আছে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে র‌্যাবের ডিজি বলেন, ‘আমাদের গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে আমরা মনে করি, জঙ্গিদের এই মুহূর্তে বড় কোনো আক্রমণাত্মক ঘটনা ঘটানোর সামর্থ্য নেই।’

জঙ্গিদের কার্যক্রম এখন কীভাবে চলছে এমন এক প্রশ্নের জবাবে র‌্যাবের ডিজি বলেন, ‘জঙ্গিগোষ্ঠীর থেকে আমরা এক ধাপ এগিয়ে আছি। আমাদের সাইবার সক্ষমতা কাজে লাগিয়ে আমরা সাইবার জগতে জঙ্গি কার্যক্রমের মনিটরিং করছে। এই মনিটরিংয়ের মাধ্যমে যখনই আমরা তথ্য পাচ্ছি, তাদের গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনছি।

‘আমরা তাদের থেকে এক ধাপ এগিয়ে আছি বলেই এখন কোনো জঙ্গি সহিংসতা ঘটছে না। বড় ধরনের কোনো ঘটনা ঘটার আগেই আমরা ব্যবস্থা নিচ্ছি। র‌্যাবের বিভিন্ন ব্যাটালিয়নে যেমন জঙ্গি নিয়ন্ত্রণ একটি ইতিবাচক প্রতিযোগিতা রয়েছে, ঠিক তেমনি অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর এই জঙ্গিবাদ দমনে একটা ইতিবাচক প্রতিযোগিতা রয়েছে। এর ফলে জঙ্গিবাদ নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।’

জঙ্গিদের মূল উদ্দেশ্যটা কী এমন প্রশ্নের জবাবে র‌্যাবের ডিজি বলেন, ‘জঙ্গিদের এখন মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে সংগঠিত হওয়া। তবে তারা সংগঠিত হতে পারছে না।

‘যখনই তারা অনলাইনে সংগঠিত হওয়ার চেষ্টা করছে, ঠিক তখনই আমরা তথ্য পাচ্ছি এবং তাদের গ্রেপ্তার করছি।’

বাংলাদেশে জঙ্গি সংগঠনের সঙ্গে বাইরের কোনো জঙ্গি সংগঠনের যোগাযোগ আছে কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আমাদের এখানে যে জঙ্গিরা আছে তারা হোম গ্রো (দেশে জঙ্গি কার্যক্রমে উদ্বুদ্ধ)। বিদেশি জঙ্গিদের সাথে যোগাযোগের এখনও কোনো তথ্য আমরা পাইনি।

‘আমাদের দেশের জঙ্গিরা অনলাইনের মাধ্যমে বিভিন্ন ভিডিও দেখে এবং দেশের জঙ্গিদের সঙ্গে যোগাযোগ করে সংগঠিত হওয়ার চেষ্টাকালে আমরা খবর পেয়ে যাচ্ছি। তখনই তাদের গ্রেপ্তার করছি। এর ফলে আর কোনো বড় ধরনের জঙ্গি হামলার ঘটনা দেশে ঘটছে না।’

আরও পড়ুন:
আনসার আল ইসলামের ৩ সদস্য রিমান্ডে
জঙ্গি সন্দেহে গ্রেপ্তার হেফাজত নেতা রিমান্ডে
জঙ্গি সন্দেহে কওমি মাদ্রাসার শিক্ষক আটক
সিরিয়াফেরত জঙ্গি ফের রিমান্ডে
শেরপুরে জঙ্গি সন্দেহে গ্রেপ্তার ১

শেয়ার করুন

মন্তব্য