হাজার কোটি টাকা পাচার মামলার আসামি গ্রেপ্তার

হাজার কোটি টাকা পাচার মামলার আসামি গ্রেপ্তার

কাস্টমস গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের মহাপরিচালক জানান, তিনি হেনান আনহুই এগ্রো এলসি এবং এগ্রো বিডি অ্যান্ড জেপি নামে দুটি প্রতিষ্ঠানের মালিক। এই দুই প্রতিষ্ঠান ছাড়াও অস্তিত্ববিহীন নানা প্রতিষ্ঠানের নাম ব্যবহার করে মেশিনারিজের ঘোষণায় মদ, সিগারেট ও টেলিভিশন আমদানি করে আসছিলেন তিনি।

পোল্ট্রি ফিডের ক্যাপিটাল মেশিনারিজের পরিবর্তে মিথ্যা ঘোষণায় মদ, সিগারেট ও টেলিভিশন আমদানির মাধ্যমে হাজার কোটি টাকা পাচারের মামলায় আব্দুল মোতালেব নামে একজনকে গ্রেপ্তার করেছে কাস্টমস গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর।

রোববার তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন কাস্টমস গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. মো: আব্দুর রউফ।

এদিন বিকেলে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি জানান, আব্দুল মোতালেবের বিরুদ্ধে ১৬টি মামলা রয়েছে। তার মাধ্যমে পাচার হওয়া অর্থের পরিমাণ ১০১৩ কোটি টাকা। তিনি হেনান আনহুই এগ্রো এলসি এবং এগ্রো বিডি অ্যান্ড জেপি নামে দুটি প্রতিষ্ঠানের মালিক।

কাস্টমস গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের মহাপরিচালক জানান, এই দুই প্রতিষ্ঠান ছাড়াও অস্তিত্ববিহীন নানা প্রতিষ্ঠানের নাম ব্যবহার করে মেশিনারিজের ঘোষণায় মদ, সিগারেট ও টেলিভিশন আমদানি করে আসছিলেন তিনি।

শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, চট্টগ্রাম বন্দর দিয়ে ১২টি কন্টেইনারে পোল্ট্রি ফিডের ক্যাপিটাল মেশিনারিজের পরিবর্তে মিথ্যা ঘোষণায় পণ্য খালাসের চেষ্টা হচ্ছে- এমন তথ্যে ২০১৭ সালের ৫ ও ৬ মার্চ একটি বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানে কন্টেইনারগুলো আটক করে বিভিন্ন সংস্থার উপস্থিতিতে খোলা হয়।

কন্টেইনারগুলোতে মেশিনারিজের পরিবর্তে বিপুল পরিমাণ সিগারেট, এলইডি টেলিভিশন, ফটোকপি মেশিন ও মদ পাওয়া যায়। এ ঘটনায় হেনান আনহুই এগ্রো এলসি এবং এগ্রো বিডি অ্যান্ড জেপি নামের প্রতিষ্ঠান দুটির বিরুদ্ধে ১৪০ কোটি টাকা পাচার হওয়ার তথ্য পাওয়া যায়। জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের অনুমোদন নিয়ে মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইন, ২০১২ (সংশোধনী ২০১৫) অনুসারে পল্টন থানায় একটি মামলা হয়।

পরবর্তীতে আরও অনুসন্ধানে জানা যায়, আমদানিকারকদ্বয় (হেনান আনহুই এগ্রো এলসি এবং এগ্রো বিডি অ্যান্ড জেপি) এর আগে ৭৮টি কন্টেইনারের মাধ্যমে মেশিনারিজ ঘোষণায় বিপুল পরিমাণ সিগারেট, এলইডি টেলিভিশন, ফটোকপি মেশিন ও মদ খালাস নিয়েছে। এ ঘটনায় ৮৭৩ কোটি টাকার সমপরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রা বিদেশে পাচারের তথ্য থাকায় মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইন, ২০১২ (সংশোধনী ২০১৫) অনুসারে পল্টন থানায় আরও ১৫টি মামলা হয়।

হেনান আনহুই এগ্রো এলসি এবং এগ্রো বিডি এন্ড জেপি উভয় প্রতিষ্ঠানের মালিক আব্দুল মোতালেব। তিনি দীর্ঘদিন পলাতক ছিলেন। রোববার তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

আরও পড়ুন:
পায়ে পেরেক ঢুকিয়ে নির্যাতনে গ্রেপ্তার
স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা হত্যার আসামি নুরুন্নবী গ্রেপ্তার
চট্টগ্রাম কলেজ ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ: গ্রেপ্তার ২
ছাত্রদলকর্মী সোহেল হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার ২
নওগাঁয় আনসার আল ইসলাম সদস্য গ্রেপ্তার

শেয়ার করুন

মন্তব্য