অমির ২ সহযোগীর জামিন

অমির ২ সহযোগীর জামিন

১৫ জুন তুহিন সিদ্দিকী অমির দুটি রিক্রুটিং এজেন্সিতে অভিযান চালায় পুলিশ। সেখান থেকে ২ শতাধিক পাসপোর্ট জব্দ করা হয়। পাসপোর্ট জব্দের পর অমিসহ তিন জনের বিরুদ্ধে দক্ষিণখান থানায় পাসপোর্ট আইনে মামলা হয়।

চিত্রনায়িকা পরীমনিকে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টা মামলার আসামি তুহিন সিদ্দিকী অমির দুই সহযোগী বাছির মিয়া ও মশিউর রহমানকে জামিন দিয়েছে আদালত।

শনিবার ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট ধীমান চন্দ্র মন্ডলের আদালত শুনানি শেষে জামিনের আদেশ দেন।

এ দিন দুই দিনের রিমান্ড শেষে দুই আসামিকে আদালতে হাজির করা হয়। এ সময় দক্ষিণখান থানায় করা পাসপোর্ট আইনে মামলায় কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন তদন্ত কর্মকর্তা সংশ্লিষ্ট থানার পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) মোহাম্মদ আফতাব উদ্দিন।

আবেদনে বলা হয়, রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদে আসামিরা গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছে। যা তদন্তের স্বার্থে গোপন রেখে যাচাই করা হচ্ছে। তবে ভিসাবিহীন পাসপোর্টগুলোর উৎস বা সরবরাহকারী সম্পর্কে কোনো তথ্য পাওয়া যায় নাই। মামলার তদন্ত অব্যাহত রয়েছে। তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত তাদের কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন তদন্ত কর্মকর্তা।

আসামিদের পক্ষে ঢাকা বারের সভাপতি আবদুল বাতেন জামিন আবেদন করেন। রাষ্ট্রপক্ষ থেকে জামিনের বিরোধিতা করা হয়।

শুনানি শেষে আদালত ৫ হাজার টাকা মুচলেকায় তাদের জামিনের আদেশ দেন।

গত ১৬ জুন এ দুই আসামির দুই দিন করে রিমান্ড দেয় আদালত।

এর আগে গত ১৫ জুন তুহিন সিদ্দিকী অমির দুটি রিক্রুটিং এজেন্সিতে অভিযান চালায় পুলিশ। সেখান থেকে ২ শতাধিক পাসপোর্ট জব্দ করা হয়। পাসপোর্ট জব্দের পর অমিসহ তিন জনের বিরুদ্ধে দক্ষিণখান থানায় পাসপোর্ট আইনে মামলা করেন সাভার মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) কামাল হোসেন।

শেয়ার করুন

মন্তব্য