তানিয়া হত্যা: প্রেমিক ফয়সালের জামিন স্থগিত

তানিয়া হত্যা: প্রেমিক ফয়সালের জামিন স্থগিত

২০১৯ সালের ২৫ মে রাজধানীর ভাটারার ছোলমাইদ বসুমতি এলাকার একটি বাসা থেকে তানিয়া বেগমের লাশ উদ্ধার করা হয়। পরের দিন তানিয়ার ভাই মেহেদী হাসান ভাটারা থানায় অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিকে আসামি করে হত্যা মামলা করেন। তানিয়া বেগম হত্যায় জড়িত থাকার অভিযোগে ফয়সালকে গ্রেপ্তার করে তার সে বছর ২৭ মে আদালতে পাঠায় পুলিশ।

রাজধানীর ভাটারায় তানিয়া বেগম হত্যা মামলার আসামি ফয়সালকে হাইকোর্টের দেয়া জামিন স্থগিত করেছে আপিল বিভাগের চেম্বার আদালত।

রাষ্ট্রপক্ষের আবেদনের শুনানি নিয়ে সোমবার চেম্বার বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী এ আদেশ দেন।

আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিশ্বজিৎ দেবনাথ, তার সঙ্গে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বশির উল্লাহ।

মামলা থেকে জানা গেছে, ২০১৯ সালের ২৫ মে রাজধানীর ভাটারার ছোলমাইদ বসুমতি এলাকার একটি বাসা থেকে তানিয়া বেগমের লাশ উদ্ধার করা হয়। পরের দিন তানিয়ার ভাই মেহেদী হাসান ভাটারা থানায় অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিকে আসামি করে হত্যা মামলা করেন। তানিয়া বেগম হত্যায় জড়িত থাকার অভিযোগে ফয়সালকে গ্রেপ্তার করে তার সে বছর ২৭ মে আদালতে পাঠায় পুলিশ।

এজাহারে বলা হয়, ১০–১১ বছর আগে তানিয়ার সঙ্গে শাহ আলম নামের একজনের বিয়ে হয়। তাদের একটি আট বছরের মেয়ে আছে। বনিবনা না হওয়ায় শাহ আলমের সঙ্গে তানিয়ার বিচ্ছেদ হয় ২০১৭ সালে।

পুলিশ জানায়, নিহতের কয়েক মাস আগে তানিয়া তার ভাইকে ফোন করে জানান, একটি ছেলের সঙ্গে বিয়ের কথাবার্তা চলছে। ২৫ মে তানিয়ার মোবাইল বন্ধ পায় তার ভাই। সেদিনই পুলিশ ফোন করে জানায়, তানিয়ার লাশ পাওয়া গেছে।

পরে তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় ফয়সালকে গ্রেপ্তারের পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে হত্যার কথা স্বীকার করেন।

এজাহারে বলা হয়, ২০১৯ সালের মার্চে তানিয়ার সঙ্গে মেহেদির পরিচয় হয়, শুরু হয় ফোনে কথা বলা। বিভিন্ন অজুহাতে তানিয়ার কাছ থেকে টাকাও নিতেন মেহেদি। একপর্যায়ে তানিয়া তাকে ভালোবাসেন। পরে তারা স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে ভাটারার সেই বাসা ভাড়া নেন। কিন্তু মে মাসে তানিয়া জানান তিনি অন্তঃসত্ত্বা। এর পর তাদের মধ্যে সমস্যা বাড়ে।

ঘটনার দিন রাতে ফয়সাল ডান হাতে তানিয়ার গলা চেপে ধরে বাম হাতে বালিশচাপা দিয়ে তানিয়ার মৃত্যু নিশ্চিত করেন। পরে তানিয়ার লাশ বিছানার চাদর ও তোশক দিয়ে মুড়িয়ে ঘরে তালা মেরে বেরিয়ে যান মেহেদি। তানিয়ার মোবাইল ও বাসার চাবি ম্যানহোলের মধ্যে ফেলে দেয় বলে জানায় পুলিশ।

আরও পড়ুন:
ব্যবসায়ীকে শ্বাসরোধে হত্যা, স্ত্রীসহ আটক ৩
হত্যার পর ছয় টুকরা, স্ত্রী গ্রেপ্তার
ব্যবসায়ী নাছের হত্যা: যুবলীগ নেতা কারাগারে
বিদ্যুৎস্পৃষ্টে মৃত্যু নয়, পরকীয়ার জেরে ভাইকে হত্যা
ধীরাজ হত্যায় মামলা, বিচার দাবিতে অবরোধ

শেয়ার করুন

মন্তব্য