কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে দিনভর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে দিনভর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

বেলা ১১টা থেকে কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে পর্যায়ক্রমে শিশু-কিশোর, যুব, ছাত্র-শিক্ষক ও সংস্কৃতি কর্মীদের অংশগ্রহণে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান, পুষ্পস্তবক অর্পণ এবং বিকেল তিনটা থেকে শিশু-কিশোর, প্রতিশ্রুতিশীল ও বরেণ্য শিল্পীদের অংশগ্রহণে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়।

‘স্মৃতির মিনার মোর পবিত্র ভাষার মান সমুন্নত’ শিরোনামে জাতীয় ও অন্তর্জাতিকভাবে বাংলা ভাষার মান সমুন্নত রাখার লক্ষ্যে শহিদ মিনার পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা ও নানা সাংস্কৃতিক কর্মসূচি পালন করছে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি ও পিপলস্ থিয়েটার অ্যাসোসিয়েশন।

বুধবার দেশব্যাপী শহিদ মিনার পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার কর্মসূচির অংশ হিসেবে কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে এই আয়োজন করা হয়।

বেলা ১১টা থেকে কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে পর্যায়ক্রমে শিশু-কিশোর, যুব, ছাত্র-শিক্ষক ও সংস্কৃতি কর্মীদের অংশগ্রহণে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান, পুষ্পস্তবক অর্পণ এবং বিকেল তিনটা থেকে শিশু-কিশোর, প্রতিশ্রুতিশীল ও বরেণ্য শিল্পীদের অংশগ্রহণে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়।

এ সময়ে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী, সচিব নওসাদ হোসেন, একাডেমির চারুকলা বিভাগের পরিচালক সৈয়দা মাহবুবা করিম, চিত্রশিল্পী বীরেন সোম ও জামাল আহমেদ।

Shilpakalaprogram

লিয়াকত আলী লাকী বলেন, ‘আমরা বাঙালি, বাংলা আমাদের মায়ের ভাষা, প্রাণের ভাষা, যা আমরা রক্ত দিয়ে, জীবন দিয়ে অর্জন করেছি। এ ভাষার মান সমুন্নত রাখার দায়িত্ব আমাদের সবার। তাই শিশু-কিশোর, যুব, ছাত্র-শিক্ষক ও সংস্কৃতি কর্মীদের আমি আহ্বান জানাই আপনারা সব ভাষা শহিদের প্রতি সম্মান জানিয়ে দেশের সব শহিদ মিনার পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখবেন।’

অনুষ্ঠানে লিয়াকত আলী লাকীর গ্রন্থনা ও নির্দেশনায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির শিশু সংগীত ও নৃত্য দলের শিল্পীরা পরিবেশন করে ‘জন্মশতবর্ষে জাতির পিতা’, ভাষা সংগ্রাম ও শহিদ দিবস নিয়ে কবিতা আবৃত্তি করেন কাজী মাহতাব সুমন, ভাষার কবিতা পাঠ করেন শামীমা চৌধুরী এলিস, একাডেমির অ্যাক্রোবেটিক দল শিশু ও বড়দের পরিবেশনায় অ্যাক্রোবেটিক প্রদর্শনী এবং বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির বাউল দল পরিবেশন করে বাউল সংগীত।

এ ছাড়া বেলা ১১টা থেকে আয়োজন করা হয় দেশের প্রতিশ্রুতিশীল ও বরেণ্য ১৫ জন চারুশিল্পীর অংশগ্রহণে দিনব্যাপী আর্টিস্ট ক্যাম্প।

আর্টিস্টক্যাম্পে অংশ নেন শিল্পী বীরেন সোম, জামাল আহমেদ, ফজলুর রহমান ভুটান, সৈয়দা মাহবুবা করিম, শাহজাহান আহমেদ বিকাশ, কীরিটি রঞ্জন বিশ্বাস, কারু তিতাস, ফারজানা ইসলাম মিল্কি, ফারহানা আফরোজ বাপ্পি, কবির আহমেদ মাছুম চিশতি, ফারজানা আহমেদ ঊর্মি, রাসেদ সুখন, ফারজানা আহমেদ শান্তা, সুজন মাহাবুব ও নূর মুনজেরিন রিঝিম।

শেয়ার করুন

মন্তব্য