20201002104319.jpg
ভারতের কিংবদন্তি শিল্পী বালাসুব্রামানিয়ামের মৃত্যু

ভারতের কিংবদন্তি শিল্পী বালাসুব্রামানিয়ামের মৃত্যু

ভারতের কিংবদন্তি সংগীতশিল্পী এসপি বালাসুব্রামানিয়াম মারা গেছেন। তার বয়স হয়েছিল ৭৪ বছর। 

চেন্নাইয়ের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার দুপুরে তার মৃত্যু হয়।

ইন্ডিয়া টুডের প্রতিবেদনে বলা হয়, এসপিবি হিসেবে পরিচিত এ শিল্পীর শরীরে করোনা ধরা পড়ে আগস্টের প্রথম সপ্তাহে। করোনার লক্ষণ বিপজ্জনক না হওয়ায় চিকিৎসকরা তাকে বাসায় কোয়ারেন্টাইনে থাকার পরামর্শ দেন। 

তবে পরিবারের সদস্যদের উদ্বেগের পরিপ্রেক্ষিতে তিনি হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার সিদ্ধান্ত নেন।

গত বুধবার শারীরিক অবস্থার চরম অবনতি হয় পদ্মশ্রী ও পদ্মভূষণ পুরস্কার পাওয়া এ শিল্পীর। শুক্রবার তার মৃত্যুর খবর জানাতে হলো স্বজন ও ভক্তদের। 

বালাসুব্রামানিয়ামের ছেলে এসপি চরন সাংবাদিকদের বলেন, '১টা ৪ মিনিটে আমার বাবার মৃত্যু হয়। প্রার্থনার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ। বাবা তার ভক্তদের মধ্যে দীর্ঘদিন বেঁচে থাকবেন।'

এসপি চরন ও তার পরিবারের ঘনিষ্ঠ, নির্মাতা ভেঙ্কট প্রভু সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে বিশ্ববাসীকে এসপিবির মৃত্যুর সংবাদটি জানান। 

স্থানীয় সময় বিকেল চারটার দিকে হাসপাতাল থেকে বাড়িতে নেওয়ার কথা ছিল এসপিবির মরদেহ। চেন্নাইয়ের বাসভবনে লোকজনের উপস্থিতিতে তার শেষকৃত্য চাইছে পরিবার।

চেন্নাইয়ের উপকণ্ঠ তামারায়পক্ষমের খামারবাড়িতে চিরনিদ্রায় শায়িত করা হবে তাকে। তার শেষকৃত্যে অংশ নেবেন ছেলে চরন।

করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর ১৩ আগস্ট সন্ধ্যা পর্যন্ত শারীরিক অবস্থা ভালো ছিল এসপিবির। ওই রাতে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে ভেন্টিলেটর দেওয়া হয়। এক মাসের বেশি সময় তাকে ভেন্টিলেটর সাপোর্ট দেওয়া হয়। 

গত ১৩ সেপ্টেম্বর করোনা নেগেটিভ আসে এ শিল্পীর।

বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী ছিলেন এসপিবি। তিনি একই সঙ্গে সংগীতশিল্পী, অভিনেতা, সংগীত পরিচালক, ডাবিং শিল্পী ও কয়েকটি ভাষার চলচ্চিত্রে প্রযোজক হিসেবে কাজ করেছেন। 

পাঁচ দশকের ক্যারিয়ারে কয়েকটি ভাষায় ৪০ হাজারের বেশি গান রেকর্ড করেন এ শিল্পী।

শেয়ার করুন