লকডাউনের কেনাকাটা

লকডাউনের কেনাকাটা

মাছ, মাংস সংগ্রহ করুন। তবে খুব বেশি কিনে ফ্রিজে অনেকদিন সংরক্ষণ করবেন এমন ইচ্ছা থাকলে সেটা বাদ দিন। তারচেয়ে প্রতি সপ্তাহে তাজা মাছ-মাংস সংগ্রহ করুন এবং খান।

লকডাউনের কারনে আমরা সবাই ঘরবন্দি। নিরাপদে থাকার জন্য এর বিকল্প নেই। তবুও নানা প্রয়োজনে ঘরের বাইরে যেতে হয়। বাজার করা তার মধ্যে অন্যতম।

আগের মতো বাজার করলে এখন চলবে না। এখন বাজার করতে হবে এমনভাবে, যেন টুকিটাকি প্রয়োজনীয় জিনিস সবসময় ঘরেই থাকে।

বাজার করতে গিয়ে প্রথমে নজর দিন রান্নার সামগ্রির দিকে। চাল, ডাল, আটা, লবণ, শুকনা মরিচ, রসুন, হলুদ ইত্যাদির নিন। এক সপ্তাহে যতটুকু প্রয়োজন ততটুকু কিনুন।

সবজি কেনার সময় এমন সবজি কিনুন যা ফ্রিজে কয়েকদিন ভালো থাকবে। যেমন পটল, শসা, টমেটো, ঢেঁড়স, গাজর।

ডিম কিনুন। মাছ, মাংস সংগ্রহ করুন। তবে খুব বেশি কিনে ফ্রিজে অনেকদিন সংরক্ষণ করবেন এমন ইচ্ছা থাকলে সেটা বাদ দিন। তারচেয়ে প্রতি সপ্তাহে তাজা মাছ-মাংস সংগ্রহ করুন এবং খান।

এবার আসুন ঔষধে। অত্যাবশ্যক ওষুধপত্র ছাড়াও ন্যাপকিন, কনট্রাসেপটিক, অ্যান্টিসেপটিক ডিসইনফেকট্যান্ট, মাথাধরা, বমি, ডায়েরিয়ার ওষুধ সংগ্রহ করুন। তুলা, গজ, প্যারাসিটামল নিন। যাঁদের ইনহেলার ছাড়া চলে না এবং যারা নেবুলাইজার নেন তারা সেটিও রাখুন। প্রোটেকটিভ মাস্ক তো অবশ্যই সংগ্রহ করুন।

নিয়মিত হাত ধোয়ার জন্য সাবান চাই। তাই সাবান নিন। শ্যাম্পু, কাপড় কাচার ডিটারজেন্ট, রান্না ঘরের সাবান কিনুন। প্রয়োজনীয় টিস্যু পেপার অবশ্যই কিনুন।

আরও পড়ুন:
গলায় মাছের কাঁটা বিঁধলে কী করবেন
মধুর সুমধুর ব্যবহার
লকডাউনে প্রাথমিক চিকিৎসা
বর্ষায় বাইরে যাবার আগে জেনে নিন কিছু বিষয়
লকডাউনের বিকেলে নাশতা

শেয়ার করুন

মন্তব্য