ইন্টারনেট ইক্যুইপমেন্টে ভ্যাট-শুল্ক প্রত্যাহার চাইলেন পলক

ইন্টারনেট ইক্যুইপমেন্ট আমদানিতে ভ্যাট-শুল্ক প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। ছবি: এএফপি

ইন্টারনেট ইক্যুইপমেন্টে ভ্যাট-শুল্ক প্রত্যাহার চাইলেন পলক

‘মেইড ইন বাংলাদেশ আইসিটি ইন্ডাস্ট্রি পলিসি’ নিয়ে ভার্চুয়াল গোলটেবিল সভায় সংযুক্ত হয়ে শুক্রবার জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিমের কাছে এমন দাবি জানান পলক।

ইন্টারনেটকে বিদ্যুৎ, জ্বালানির মতো গুরুত্বপূর্ণ মৌলিক সেবা বিবেচনায় এনে এর ইক্যুইপমেন্ট আমদানিতে আগামী অর্থবছর থেকে ভ্যাট-শুল্ক প্রত্যাহার চেয়েছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

‘মেইড ইন বাংলাদেশ আইসিটি ইন্ডাস্ট্রি পলিসি’ নিয়ে ভার্চুয়াল গোলটেবিল সভায় সংযুক্ত হয়ে শুক্রবার জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিমের কাছে এমন দাবি জানান তিনি।

প্রথমবারের মতো ভার্চুয়ালি ‘ডিজিটাল ডিভাইস অ্যান্ড ইনোভেশন এক্সপো ২০২১’ আয়োজনে ওই গোলটেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘সৃজনশীল অর্থনীতি ও জ্ঞানভিত্তিক সমাজ বিনির্মাণ এবং ডিজিটাল বিপ্লব আরও এগিয়ে নিতে ইন্টারনেটকে বিলাসী সেবা হিসেবে দেখা যাবে না। একে বিদ্যুৎ ও জ্বালানির মতো মৌলিক জরুরি সেবা হিসেবে গণ্য করে ইন্টারনেট ইক্যুইপমেন্টের ওপর ভ্যাট ও শুল্ক প্রত্যাহার করা প্রয়োজন।’

এ সময় তিনি ডিজিটাল পণ্যের গবেষণা ও উন্নয়নের ওপর ২০৩০ সাল পর্যন্ত শুল্কমুক্ত সুবিধা দাবি করেন এনবিআর চেয়ারম্যানের কাছে।

দেশে প্রথমবারের মতো রক্তের প্লাজমা বিশ্লেষণ করে জীবনরক্ষাকারী ওষুধ তৈরি করতে চলতি বছরের মার্চে প্ল্যান্ট স্থাপন করেছে অরিক্স বায়োটেক। গাজীপুরের কালিয়াকৈরে বঙ্গবন্ধু হাইটেক সিটির ওই প্ল্যান্টের জন্য এখন বিশেষায়িত প্রযুক্তির যন্ত্রাংশ ও গাড়ি আমদানি প্রয়োজন।

পলক সেই কোম্পানির জন্য যন্ত্রপাতি আমদানিতে শুল্কমুক্ত সুবিধা দেয়ার দাবি জানান।

গোলটেবিল বৈঠকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে বক্তব্য দেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। ছবি: সংগৃহীত

গোলটেবিলে অংশীজনদের পক্ষ থেকে প্রতিমন্ত্রীর প্রস্তাবটি বিস্তারিত উপস্থাপন করেন অনুষ্ঠানের সঞ্চালক লিভারেজিং ইন আইসিটির নীতি উপদেষ্টা সামি আহমেদ।

প্রস্তবে আইটি ও আইটিইএস খাতে আগাম কর প্রত্যাহার এবং ২০২৪ সালের করমুক্তি সনদ প্রাপ্তি সুবিধা বিষয়টিও তুলে ধরা হয়।

এ ছাড়া এই খাতে কর্পোরেট কর ৩৫ শতাংশ থেকে ১০ শতাংশে নামিয়ে আনার প্রস্তাব করা হয়েছে।

ভার্চুয়ালি সংযুক্ত হয়ে গোলটেবিল বৈঠকে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অফ কল সেন্টার অ্যান্ড আউটসোর্সিং (বাক্কো) সভাপতি ওয়াহিদ শরিফ, হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের পরিচালক এন এম শফিকুল ইসলাম, ওয়ালটনের নির্বাহী পরিচালক লিয়াকত আলী, প্রস্তাবিত ডিজিটাল ডিভাইস ম্যানুফ্যাকচারারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার অ্যাসোসিয়েশন (ডিডিএমইএ) সভাপতি মাহবুব জামান, চীনের অরিক্স বায়োটেক হোল্ডিংসের অঙ্গপ্রতিষ্ঠান অরিক্স বায়োটেক লিমিটেডের দেওয়ান শাহরিয়ার, ডিজিটাল সিকিউরিটি এজেন্সির মহাপরিচালক রেজাউল করিম, বেসিস সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবিরসহ অনেকে বক্তব্য রাখেন।

আরও পড়ুন:
মুজিব ১০০ অ্যাপ উদ্বোধন 
বায়োটেক প্লাজমা প্রযুক্তির যুগে বাংলাদেশ: পলক
রোবটকে বাংলায় বোঝানোর প্রযুক্তি তৈরি হচ্ছে: পলক
স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী: ওয়েবসাইট ও লোগো তৈরির প্রস্তুতি
ঢাকঢোলের প্রতিফলন নেই তদন্তে: হাইকোর্ট

শেয়ার করুন

মন্তব্য

দেশে তৈরি নতুন ফোনের প্রি-বুকিং নিচ্ছে ওয়ালটন

দেশে তৈরি নতুন ফোনের প্রি-বুকিং নিচ্ছে ওয়ালটন

ওয়ালটন সেলুলার ফোন বিক্রয় বিভাগের প্রধান আসিফুর রহমান খান বলেন, ‘প্রিমো এইচএমসিক্স’ মডেলের ওই ফোনটির দাম ৮ হাজার ৮৯৯ টাকা। তবে ই-প্লাজায় প্রি-বুক দেয়া ক্রেতারা এটি পাবেন ৭ হাজার ৮৯৯ টাকায়। ই-প্লাজা থেকে কেনা সব মডেলের ওয়ালটন স্মার্টফোনে রয়েছে হোম ডেলিভারির ব্যবস্থা।

নতুন মডেলের আরও একটি ফোন বাজারে ছাড়ার ঘোষণা দিয়েছে ওয়ালটন, যাতে ব্যবহার করা হয়েছে বিশাল ডিসপ্লে, শক্তিশালী ব্যাটারিসহ আকর্ষণীয় ফিচার।

করোনাভাইরাস মহামারির মধ্যে ঘরে বসেই ওয়ালটনের নিজস্ব অনলাইন শপ ই-প্লাজা থেকে বিনা মূল্যে ফোনটির প্রি-বুক দেয়া যাবে। প্রি-বুকে থাকছে এক হাজার টাকার মূল্যছাড়।

ওয়ালটন সেলুলার ফোন বিক্রয় বিভাগের প্রধান আসিফুর রহমান খান বলেন, ‘প্রিমো এইচএমসিক্স’ মডেলের ওই ফোনটির দাম ৮ হাজার ৮৯৯ টাকা। তবে ই-প্লাজায় প্রি-বুক দেয়া ক্রেতারা এটি পাবেন ৭ হাজার ৮৯৯ টাকায়। ই-প্লাজা থেকে কেনা সব মডেলের ওয়ালটন স্মার্টফোনে রয়েছে হোম ডেলিভারির ব্যবস্থা।

ওয়ালটনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ৬০০০ মিলি-অ্যাম্পিয়ারের লিথিয়াম পলিমার ব্যাটারির ‘প্রিমো এইচএমসিক্স’ মডেলের ফোনটি একবার চার্জে ৫০ দিন পর্যন্ত স্ট্যান্ডবাই মোডে সচল থাকবে। এই ফোনে ৪৬ ঘণ্টা ভয়েস কলিং, ৩০ ঘণ্টা মিউজিক প্লেব্যাক, ১৮ ঘণ্টা ওয়েব ব্রাউজিং, ১৪ ঘণ্টা ভিডিও প্লেব্যাক ও ৯ ঘণ্টা ভিডিও রেকর্ডিংয়ের ব্যাটারি ব্যাকআপ পাবেন গ্রাহক।

ফোনটি অ্যান্ড্রয়েড ১০ গো অপারেটিং সিস্টেমে পরিচালিত। এতে ব্যবহৃত হয়েছে ১.৬ গিগাহার্টজ গতির এআরএম কোর্টেক্স-এ৫৫ অক্টাকোর প্রসেসর। সঙ্গে রয়েছে ২ জিবি র‌্যাম ও পাওয়ার ভিআর জিই৮৩২২ গ্রাফিক্স। ফলে বিভিন্ন অ্যাপ ব্যবহার, ইন্টারনেট ব্রাউজিং, থ্রিডি গেমিং ও দ্রুত ভিডিও লোড ও ল্যাগ-ফ্রি ভিডিও স্ট্রিমিং সুবিধা পাওয়া যাবে।

ফোনটির অভ্যন্তরীণ মেমোরি ৩২ গিগাবাইটের, যা মাইক্রো এসডি কার্ডের মাধ্যমে ১২৮ গিগাবাইট পর্যন্ত বাড়ানো যাবে।
ফোনটির পেছনে রয়েছে এলইডি ফ্ল্যাশযুক্ত এফ ২.০ অ্যাপারচারসমৃদ্ধ পিডিএএফ প্রযুক্তির এআই ডুয়াল ক্যামেরা। এর ১৩ মেগাপিক্সেলের প্রধান ক্যামেরা দেবে উজ্জ্বল, ঝকঝকে রঙিন ছবি। আর ডেপথ সেন্সর পোরট্রেইট ফটোগ্রাফি করবে আরও উন্নত।

বাংলাদেশে তৈরি এই স্মার্টফোনে ৩০ দিনের রিপ্লেসমেন্ট সুবিধাসহ এক বছরের বিক্রয়োত্তর সেবা দেবে ওয়ালটন।

আরও পড়ুন:
মুজিব ১০০ অ্যাপ উদ্বোধন 
বায়োটেক প্লাজমা প্রযুক্তির যুগে বাংলাদেশ: পলক
রোবটকে বাংলায় বোঝানোর প্রযুক্তি তৈরি হচ্ছে: পলক
স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী: ওয়েবসাইট ও লোগো তৈরির প্রস্তুতি
ঢাকঢোলের প্রতিফলন নেই তদন্তে: হাইকোর্ট

শেয়ার করুন

আইফোনে স্টোরেজ ১ টেরাবাইট!

আইফোনে স্টোরেজ ১ টেরাবাইট!

আইফোন ১৩ মডেলের স্টোরেজ ১ টেরাবাইট রাখা হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। ছবি: সংগৃহীত

গত কয়েক বছরে দেখা যায়, আইফোনের ১২৮ জিবি স্টোরেজ সংস্করণের চাহিদা ছিল বেশি। ক্রমেই চাহিদা কমে গেছে ৬৪ জিবি সংস্করণ ফোনের। আইফোন ১২ প্রো মডেলটি ৫১২ জিবি স্টোরেজের হওয়ায় চাহিদা ছিল সবচেয়ে বেশি।

দিন দিন ব্যবহারকারীদের কাছে স্মার্টফোনের স্টোরেজ চাহিদা বাড়ছে। গ্রাহকের চাহিদাকে মূল্যায়ন করায় নামডাক কিছুটা বেশিই রয়েছে আইফোন প্রস্তুতকারক অ্যাপলের।

চলতি বছর আইফোন ১৩ সিরিজ বাজারে ছাড়বে অ্যাপল। এই সিরিজের ফোনগুলোর স্টোরেজ এক টেরাবাইট হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারীদের তুলনায় আইফোন ব্যবহারকারীদের স্টোরেজের চাহিদা বেশি বলে বিভিন্ন সময় প্রকাশ হওয়া প্রতিবেদনে তুলে ধরা হয়েছে।

ইন্ডিয়া টুডের প্রতিবেদনে বলা হয়, বাজার গবেষণা প্রতিষ্ঠান কাউন্টারপয়েন্ট রিসার্চের হিসাব অনুযায়ী, অ্যান্ড্রয়েডে হুয়াওয়ের স্টোরেজের চাহিদা সবচেয়ে বেশি। এর পরই রয়েছে আইফোনের স্টোরেজ চাহিদা।

প্রতিষ্ঠানটি বলছে, স্মার্টফোনে স্টোরেজের পরিমাণ এখন গড়ে ১০০ জিবি ছাড়িয়ে গেছে।

কাউন্টারপয়েন্টের মতে, দামের দিক থেকে যেমন আইফোন উচ্চমূল্যের, তেমনি আবার এর গড় এনএএনডি ফ্ল্যাশের ঘনত্বও অ্যান্ড্রয়েডের তুলনায় বেশি। এই গ্যাপটা খুব দ্রুতই আইফোন পূরণ করেছে তাদের আইফোন ১২ সিরিজ দিয়ে। এ সিরিজের সেটে তারা ৫১২ জিবি পর্যন্ত স্টোরেজ দিয়েছে।

গত কয়েক বছরে দেখা যায়, আইফোনের ১২৮ জিবি স্টোরেজ সংস্করণের চাহিদা ছিল বেশি। ক্রমেই চাহিদা কমে গেছে ৬৪ জিবি সংস্করণ ফোনের।

আইফোন ১২ প্রো মডেলটি ৫১২ জিবি স্টোরেজের হওয়ায় চাহিদা ছিল সবচেয়ে বেশি।

অ্যাপলের খবর নিয়মিত প্রকাশ করা সাইট নাইটটুফাইভ ম্যাকের এক প্রতিবেদন বলছে, চলতি বছর আইফোন ১৩ সিরিজটিতে থাকতে পারে এক টেরাবাইট স্টোরেজ।

একটি ছোট জরিপ চালায় নাইটটুফাইভ ম্যাক। সেখানে ৭০ শতাংশ বলেছেন, এক টেরাবাইটের আইফোন ১৩ হতে পারে বাড়তি স্টোরেজসম্পন্ন। ১২ শতাংশ বলেছে, তারা অবশ্যই একটি করে ফোন কিনবেন। অন্য ১১ শতাংশ অবশ্য ফোন কেনার আগে এই স্টোরেজের সুবিধা-অসুবিধাগুলো দেখে নেয়ার কথা জানিয়েছেন।

একই প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে, আইফোন ১৩ সিরিজে থাকছে সামনে ছোট আকারের নচ, বড় আকারের ডিসপ্লে।

সম্প্রতি অ্যাপলকে আইফোনের ডিসপ্লে ক্রমাগত বাড়াতে দেখা গেছে। সেই থেকে ধারণা করা হচ্ছে, আইফোন ১৩ প্রো ম্যাক্স আসতে পারে ৬.৭ ইঞ্চি ডিসপ্লেতে। সবকিছু ঠিক থাকলে সেপ্টেম্বরেই দেখা যাবে আইফোন ১৩।

আরও পড়ুন:
মুজিব ১০০ অ্যাপ উদ্বোধন 
বায়োটেক প্লাজমা প্রযুক্তির যুগে বাংলাদেশ: পলক
রোবটকে বাংলায় বোঝানোর প্রযুক্তি তৈরি হচ্ছে: পলক
স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী: ওয়েবসাইট ও লোগো তৈরির প্রস্তুতি
ঢাকঢোলের প্রতিফলন নেই তদন্তে: হাইকোর্ট

শেয়ার করুন

স্যামসাংয়ের স্মার্টফোন বদলে নেয়ার সুযোগ ১০০ দিন

স্যামসাংয়ের স্মার্টফোন বদলে নেয়ার সুযোগ ১০০ দিন

গ্যালাক্সি এম০২ ফোনে ১০০ দিনের মধ্যে বদলের সুবিধা দিচ্ছে স্যামসাং। ছবি: সংগৃহীত

সুবিধাটি দিতে এরই মধ্যে ক্রেতাদের জন্য রিপ্লেসমেন্ট ওয়ারেন্টি সুবিধা চালু করেছে স্যামসাং। প্রতিষ্ঠানটি সার্টিফায়েড ত্রুটিযুক্ত ডিভাইসগুলো বদলে দেবে। সে জন্য ওয়ারেন্টি কার্ডে উল্লেখ করা শর্তগুলো অনুসরণ করা হবে।

গ্যালাক্সি এম০২ হ্যান্ডসেট কেনার পর ত্রুটি দেখা দিলে ১০০ দিনের মধ্যে তা বদলে নিতে পারবেন স্যামসাংয়ের ক্রেতারা।

সুবিধাটি দিতে এরই মধ্যে ক্রেতাদের জন্য রিপ্লেসমেন্ট ওয়ারেন্টি সুবিধা চালু করেছে স্যামসাং। প্রতিষ্ঠানটি সার্টিফায়েড ত্রুটিযুক্ত ডিভাইসগুলো বদলে দেবে। সে জন্য ওয়ারেন্টি কার্ডে উল্লেখ করা শর্তগুলো অনুসরণ করা হবে।

স্যামসাং সম্প্রতি বাজারে ছেড়েছে তাদের গ্যালাক্সি এম০২ মডেলের ফোন। ডিভাইসটিতে রয়েছে ২ মেগাপিক্সেল ম্যাক্রো সেন্সরের সঙ্গে ১৩ মেগাপিক্সেলের প্রাইমারি ক্যামেরা। আছে ৫ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা। গ্যালাক্সি এম০২-তে ৬.৫ ইঞ্চি এইচডি+ইনফিনিটি-ভি ডিসপ্লে রয়েছে। স্মার্টফোনটি ডলবি অ্যাটমস সমর্থন করে।

৫০০০ এমএএইচ ব্যাটারির ফোনটিতে ১.৫ গিগাহার্টজ কোয়াড-কোর প্রসেসর দেয়া হয়েছে।

অফারে গ্যালাক্সি এম০২ মডেলের ২+৩২ জিবি সংস্করণের দাম ৮ হাজার ৯৯৯ টাকা। ৩+৩২ জিবি সংস্করণটি ১০ হাজার ৪৯৯ টাকায় কিনতে পারবেন গ্রাহকরা। অফারটি আগামী ৩১ মে পর্যন্ত প্রযোজ্য থাকবে।

স্যামসাং বাংলাদেশের হেড অব মোবাইল মূয়ীদুর রহমান বলেন, ‘স্যামসাং ক্রেতাদের মানসম্পন্ন গ্রাহকসেবা দিতে চায়। আমরা আমাদের ক্রেতাদের জন্য ১০০ দিনের রিপ্লেসমেন্ট ওয়ারেন্টি অফার আনতে পেরে অত্যন্ত আনন্দিত।

‘করোনাভাইরাস মহামারির কারণে ডিজিটাল প্রযুক্তির ব্যবহার বৃদ্ধি পেয়েছে। আমাদের সাশ্রয়ী ডিভাইসগুলো দেশের মানুষদের সহজেই নতুন এই পরিস্থিতির সাথে খাপ খাইয়ে নিতে সহায়তা করবে বলে আশা করি।’

আরও পড়ুন:
মুজিব ১০০ অ্যাপ উদ্বোধন 
বায়োটেক প্লাজমা প্রযুক্তির যুগে বাংলাদেশ: পলক
রোবটকে বাংলায় বোঝানোর প্রযুক্তি তৈরি হচ্ছে: পলক
স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী: ওয়েবসাইট ও লোগো তৈরির প্রস্তুতি
ঢাকঢোলের প্রতিফলন নেই তদন্তে: হাইকোর্ট

শেয়ার করুন

দেশে নতুন ই-কমার্স প্ল‍্যাটফর্ম দ্রব‍্য ডটকম

দেশে নতুন ই-কমার্স প্ল‍্যাটফর্ম দ্রব‍্য ডটকম

দেশে নতুন ই-কমার্স সাইট দ্রব্য ডটকম

বাংলা নববর্ষ উপলক্ষে ১৪ টাকায় আইফোন ১২, বাইক, স্মার্টটিভি ও টি-শার্ট জিতে নেয়ার সুযোগ দিয়েছে দ্রব্য ডটকম।

দেশে নতুন একটি ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের যাত্রা হয়েছে। ‘খুশিতে বাংলাদেশ’ শ্লোগানে দ্রব‍্য ডটকম নামের ই-কমার্সটি চালু হয়েছে। দ্রুত ডেলিভারি, মানসম্মত পণ্য, মূল্যছাড়সহ নানা সুবিধা দিয়ে প্লাটফর্মটি পণ্য বিক্রি করবে বলে জানিয়েছে।

এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, যাত্রা শুরু উপলক্ষ‍্যে বেশ কিছু অফার ও ডিসকাউন্ট পাওয়া যাবে দ্রব‍্য ডটকমে। সর্বোচ্চ ৫০ শতাংশ ছাড়ে কেনা যাবে অনেক পণ‍্যে।

এ ছাড়া বাংলা নববর্ষ উপলক্ষে ১৪ টাকায় আইফোন ১২, বাইক, স্মার্টটিভি ও টি-শার্ট জিতে নেয়ার সুযোগ দিয়েছে দ্রব্য ডটকম।

দ্রব‍্য ডটকমের ম‍্যানেজিং ডিরেক্টর বাতিয়া আহসান বলেন, ‘দেশের অনেক ই-কমার্সের ভিড়ে মানসম্মত সার্ভিস নিয়ে ঝামেলা পোহাতে হয় গ্রাহকদের। তাই উন্নত সেবার লক্ষ‍্য নিয়ে সঠিক দামে, অরজিনাল সব পণ‍্য সঠিক সময়ের গ্রাহকের কাছে পৌঁছে দিতেই চালু হয়েছে দ্রব‍্য ডটকমের।’

বাইক, স্মার্টফোন, ট‍্যাব, এসি, গ‍্যাজেট, হোম অ্যাপ্লায়েন্স, ফ‍্যাশন ও গ্রোসারিসহ অনেক ক‍্যাটাগরির পণ‍্য মিলবে দ্রব‍্য ডটকমে।

মূল্য পরিশোধের জন্য রয়েছে সব পেমেন্ট অপশন। আছে বিকাশ, ভিসা, মাস্টার কিংবা অ্যামেক্স কার্ড, নেক্সাস পে, ব্যাংক ডিপোজিটসহ নগদে মূল্য পরিশোধের সুবিধা।

এ ছাড়া গ্রাহকরা চাইলে পণ্য হাতে পেয়ে মূল্য পরিশোধ করতে পারবেন।

দ্রব‍্য ডটকম আহসান গ্রুপ লিমিটেড এর অঙ্গপ্রতিষ্ঠান।

আরও পড়ুন:
মুজিব ১০০ অ্যাপ উদ্বোধন 
বায়োটেক প্লাজমা প্রযুক্তির যুগে বাংলাদেশ: পলক
রোবটকে বাংলায় বোঝানোর প্রযুক্তি তৈরি হচ্ছে: পলক
স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী: ওয়েবসাইট ও লোগো তৈরির প্রস্তুতি
ঢাকঢোলের প্রতিফলন নেই তদন্তে: হাইকোর্ট

শেয়ার করুন

ধামাকা রকেট সার্ভিসে ৩২ ঘণ্টায় সারা দেশে ডেলিভারি

ধামাকা রকেট সার্ভিসে ৩২ ঘণ্টায় সারা দেশে ডেলিভারি

দ্রুত নিত্যপণ্য পৌঁছে দিতে নতুন সার্ভিস এনেছে ধামাকাশপিং ডটকম

এই সার্ভিসে অর্ডার করার পর দেশব্যাপী ৩২ ঘণ্টার মধ্যে পৌঁছে যাবে ক্রেতাদের হাতে।

ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ধামাকাশপিং ডটকম চলমান সরকারি কঠোর বিধিনিষেধের মধ্যে ৩২ ঘণ্টার মধ্যে সারা দেশে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য ডেলিভারি দিতে নতুন সেবা ধামাকা রকেট সার্ভিস এনেছে।

গ্রোসারি, ওষুধ, মাছ-মাংস, ফ্রোজেন ফুড ও সবজির মতো নানান নিত্যপণ্য মিলছে ধামাকা রকেট সার্ভিসে।

প্রতিষ্ঠানটি এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, লকডাউনে এক এলাকার মানুষ অন্য এলাকায় যেতে পারছেন না। নিরাপত্তার জন্য কিছু এলাকায় বাইরে থেকে ডেলিভারি ম্যানকেও ঢুকতে দেয়া হচ্ছে না। এসব এলাকার মানুষের জন্যই ধামাকা রকেট সার্ভিস চালু করা হয়েছে।

এ ক্ষেত্রে তিন কিলোমিটারের মধ্যে গ্রোসারি, ওষুধ, মাছ-মাংস, ফ্রোজেন ফুড ও সবজির মতো নিত্যপণ্য ডেলিভারি দিচ্ছে ধামাকা রকেট সার্ভিসের শপগুলো।

ধামাকাশপিং ডটকমের প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা (সিওও) সিরাজুল ইসলাম রানা বলেন, ‘করোনা মহামারিতে আমাদের জনজীবনের প্রায় প্রতিটি কাজই এখন অনলাইননির্ভর। এই সময়ে বেড়েছে কেনাকাটাও।

তিনি আরও বলেন, দেশে করোনার প্রকোপ বেড়ে যাওয়ায় আবারও শুরু হয়েছে কঠোর লকডাউন। করোনার কারণে ক্রেতাদের বড় অংশ ঘরে বসেই নিত্যপণ্য কিনতে আগ্রহী। চাল, ডাল ও ওষুধের মতো পণ্যের চাহিদাই এখন বেশি। আর একারণেই লকডাউনের সময়ে প্রয়োজনীয় পণ্য পৌঁছে দিতে আমরা চালু করেছি ধামাকা রকেট সার্ভিস।

এই সার্ভিসে অর্ডার করার পর দেশব্যাপী ৩২ ঘণ্টার মধ্যে পৌঁছে যাবে ক্রেতাদের হাতে। বর্তমানে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে সেলাররা সংযুক্ত হচ্ছেন ধামাকা রকেট সার্ভিসে।

আরও পড়ুন:
মুজিব ১০০ অ্যাপ উদ্বোধন 
বায়োটেক প্লাজমা প্রযুক্তির যুগে বাংলাদেশ: পলক
রোবটকে বাংলায় বোঝানোর প্রযুক্তি তৈরি হচ্ছে: পলক
স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী: ওয়েবসাইট ও লোগো তৈরির প্রস্তুতি
ঢাকঢোলের প্রতিফলন নেই তদন্তে: হাইকোর্ট

শেয়ার করুন

ডুডলে বাংলা নববর্ষ

ডুডলে বাংলা নববর্ষ

বাংলা নববর্ষ উপলক্ষে ডুডল সেজেছে নতুন সাজে

ব্রাউজারে সার্চ করতে গেলে ডুডলটি দেখা যাচ্ছে। ডুডলে ক্লিক করলে উইকিপিডিয়াসহ নববর্ষ নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশ করা খবরের লিংক দেখাচ্ছে গুগল।

বাঙালির ঐতিহ্যবাহী উৎসবের দিন পহেলা বৈশাখ আজ। বাঙালির প্রাণের এ উৎসবে ডুডলে শুভেচ্ছা জানিয়েছে গুগল।

বাংলা নববর্ষ উপলক্ষে বুধবার গুগল তাদের বিশেষ ডুডল তৈরি করেছে। ব্রাউজারে কিছু সার্চ করতে গেলে দেখা যাচ্ছে ডুডলটি। সেখানে দেখা যাচ্ছে, রং-তুলিতে পহেলা বৈশাখের আলপনা বা বিশেষ মুখোশ আঁকা হচ্ছে।

ডুডলে ক্লিক করলে উইকিপিডিয়াসহ নববর্ষ নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশ করা খবরের লিংক দেখাচ্ছে গুগল।

সাধারণত বিশেষ দিবস, বিখ্যাত ব্যক্তির জন্ম-মৃত্যু, দেশের স্বাধীনতাসহ বিশেষ দিনগুলোতে নতুন করে সাজে ডুডল।

নববর্ষের প্রথম প্রহরে সার্চ ইঞ্জিন গুগল বাংলা ডুডলটি প্রকাশ করে।

করোনাভাইরাস মহামারিতে গত বছর নববর্ষের মঙ্গল শোভাযাত্রা বাতিল করে দেয় সরকার। চলতি বছরেও দেশের কোথাও হচ্ছে না মঙ্গল শোভাযাত্রা। এমনকি করোনা সংক্রমণ মোকাবিলায় সরকারের কঠোর বিধিনিষেধের কারণে ঘর থেকে বের হওয়াও মানা এবার।

এই অবস্থায় পহেলা বৈশাখ বা নববর্ষ বরণে বাঙালিকে ঘরেই থাকতে হচ্ছে।

বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাস সংক্রমণের মধ্যে পয়লা বৈশাখে কোনোভাবে জনসমাগম করা যাবে না বলে জানিয়ে দিয়েছে সরকার।

৭ এপ্রিল সরকার জানিয়েছে, ১৪ এপ্রিল বাংলা বর্ষবরণের আয়োজন অনলাইন বা ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্মে করা যাবে।

রমনা বটমূলে ছায়ানটের আয়োজন দিয়ে শুরু হয় বাঙালির বর্ষবরণ। করোনা মহামারির কারণে গতবারের মতো এবারও থাকছে না ছায়ানটের শিল্পীদের সমবেত কণ্ঠের মূর্চ্ছনা।

এবার তাই অনলাইনকেন্দ্রিক আয়োজনে জোর দিচ্ছেন বাঙালিরা।

আরও পড়ুন:
মুজিব ১০০ অ্যাপ উদ্বোধন 
বায়োটেক প্লাজমা প্রযুক্তির যুগে বাংলাদেশ: পলক
রোবটকে বাংলায় বোঝানোর প্রযুক্তি তৈরি হচ্ছে: পলক
স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী: ওয়েবসাইট ও লোগো তৈরির প্রস্তুতি
ঢাকঢোলের প্রতিফলন নেই তদন্তে: হাইকোর্ট

শেয়ার করুন

আলিবাবার জ্যাক মাকে ২৪ হাজার কোটি টাকা জরিমানা

আলিবাবার জ্যাক মাকে ২৪ হাজার কোটি টাকা জরিমানা

চীনের প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান আলিবাবার প্রতিষ্ঠাতা জ্যাক মা। ছবি: এএফপি

‘বিশেষ চুক্তি’র (দুটি প্রতিষ্ঠান থেকে যে কোনো একটিকে বেছে নেয়া) আওতায় ব্যবসায়ীদের প্রতিদ্বন্দ্বী ই-কমার্স প্ল্যাটফর্মে পণ্য বিক্রি করা থেকে বিরত রাখত আলিবাবা। তদন্তে বাজার নিয়ন্ত্রকরা অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় এ জরিমানা করা হয়।

ব্যবসায় একচেটিয়া আচরণের অভিযোগে অনলাইন শপিং জায়ান্ট আলিবাবাকে রেকর্ড ২.৮ বিলিয়ন ডলার জরিমানা করেছে চীন। ধনকুবের ব্যবসায়ী এই সিদ্ধান্ত মেনে নিয়ে উন্মুক্ত চিঠিও প্রকাশ করেছে।

দেশটির বাজার নিয়ন্ত্রকদের তদন্তের ভিত্তিতে অনলাইনে পণ্য কেনাবেচার জনপ্রিয় প্লাটফর্মটিকে এ জরিমানা করা হয়।

জ্যাক মা কে যে পরিমাণ অর্থ পরিশোধ করতে হবে, যা বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ২৩ হাজার ৮০০ কোটি টাকা (প্রতি ডলার ৮৫ টাকা হিসাবে)।

চীনে এর আগে কখনও কাউকে এত বেশি অর্থ জরিমানা করা হয়নি।

শনিবার চীনের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম সিনহুয়ার বরাত দিয়ে সিএনএনের প্রতিবেদনে বলা হয়, ‘বিশেষ চুক্তি’র (দুটি প্রতিষ্ঠান থেকে যে কোনো একটিকে বেছে নেয়া) আওতায় ব্যবসায়ীদের প্রতিদ্বন্দ্বী ই-কমার্স প্ল্যাটফর্মে পণ্য বিক্রি করা থেকে বিরত রাখত আলিবাবা। তদন্তে বাজার নিয়ন্ত্রকরা অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় এ জরিমানা করা হয়।

এ জরিমানা মেনেও নিয়েছেন আলিবাবা। শনিবার একটি উন্মুক্ত চিঠিতে প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, তারা তদন্তে সহযোগিতা করেছে এবং এই দণ্ডকে ‘আন্তরিকতা’র সঙ্গে গ্রহণ করেছে।

ওই চিঠিতে আরও বলা হয়, ‘সুষ্ঠু সরকারি ব্যবস্থাপনা ও সহযোগিতা ছাড়া আলিবাবা আজকের অবস্থান অর্জন করতে পারত না। সমালোচনামূলক তদারকি, সহনশীলতা এবং সমর্থন আমাদের উন্নয়নের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ছিল। এ জন্য আমরা কৃতজ্ঞ।’

দেশের অর্থনৈতিক ও সামাজিক উন্নয়নের অংশ হিসাবে আলিবাবা আরও বেশি দায়িত্ববান হবে বলেও চিঠিতে বলা হয়।

রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা সিনহুয়া জানিয়েছে, জরিমানাটি ২০১৯ সালে চীনে আলিবাবার মোট পণ্য বিক্রির অর্থের চার শতাংশের সমান। এর আগে সর্বোচ্চ জরিমানার রেকর্ড ছিল ২০১৫ সালে যুক্তরাষ্ট্রের চিপমেকার কোয়ালকমকে করা ৯৭৫ মিলিয়ন ডলার।

বিশেষ নিয়ন্ত্রণ অভিযানের অংশ হিসেবে বেইজিং সাম্প্রতিক মাসগুলোতে প্রযুক্তিখাতের জায়ান্টদের ওপর চাপ বাড়িয়েছে। দেশটির প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং এ অভিযানকে ২০২১ সালে দেশটির অন্যতম অগ্রাধিকার হিসেবে উল্লেখ করেছেন।

সামাজিক স্থিতিশীলতা বজায় রাখতে অনলাইন কোম্পানিগুলোকে নিয়ন্ত্রণে চেষ্টা ত্বরান্বিত করতে গত মাসে কর্মকর্তাদের প্রতি আহ্বানও জানান শি।

চীনের শীর্ষস্থানীয় এবং অন্যতম সফল বেসরকারি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান আলিবাবার সহপ্রতিষ্ঠাতা কিংবদন্তি উদ্যোক্তা জ্যাক মা। এমন একটি প্রতিষ্ঠানকে রেকর্ড জরিমানার মাধ্যমে চীনা নিয়ন্ত্রকরা দেশের বৃহত্তম কোম্পানিগুলোকে তাদের রাশ টানার স্পষ্ট বার্তা পাঠাল।

বেইজিং দীর্ঘদিন ধরেই টেক প্রতিষ্ঠানগুলোর আর্থিক খাতে একচেটিয়া প্রভাব নিয়ে উদ্বিগ্ন ছিল। শিল্পকে দুর্বল করে দেয়া প্রভাব থেকে মুক্তির জন্য অনেকদিন ধরেই চেষ্টা করছেন দেশটির কর্মকর্তারা।

আলিবাবার পর এখন অন্য টেক প্রতিষ্ঠানগুলোর বিষয়েও পদক্ষেপ নেয়া হতে পারে।

এরইমধ্যে দেশটির টেনসেন্ট হোল্ডিংস লিমিটেড এবং কৃষিভিত্তিক প্রযুক্তি প্ল্যাটফর্ম পিন্ডুডুর কর্মকর্তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। এ ছাড়া টিকিটকের মালিক এবং সার্চ ইঞ্জিন বাইডুকে একচেটিয়া আচরণের জন্য জরিমানা করা হয়েছে।

আরও পড়ুন:
মুজিব ১০০ অ্যাপ উদ্বোধন 
বায়োটেক প্লাজমা প্রযুক্তির যুগে বাংলাদেশ: পলক
রোবটকে বাংলায় বোঝানোর প্রযুক্তি তৈরি হচ্ছে: পলক
স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী: ওয়েবসাইট ও লোগো তৈরির প্রস্তুতি
ঢাকঢোলের প্রতিফলন নেই তদন্তে: হাইকোর্ট

শেয়ার করুন