× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট বাংলা কনভার্টার নামাজের সময়সূচি আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

বাংলাদেশ
Ajmeri Osman as before?
google_news print-icon

সেই আগের রূপে আজমেরী ওসমান?

স্থানীয় দৈনিকে হামলা
ত্বকী হত্যা নিয়ে সংবাদ প্রকাশ করায় নারায়ণগঞ্জের একটি স্থানীয় দৈনিকে হামলার দৃশ্য। অভিযোগ আছে, এই তরুণরা আজমেরী ওসমানের অনুসারী। ছবি: সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ থেকে সংগৃহীত
৯ বছর আগে নারায়ণগঞ্জে কিশোর ত্বকীকে হত্যার পর আলোচিত আওয়ামী লীগ নেতা শামীম ওসমানের ভাতিজা আজমেরী ওসমান পর্দার আড়ালে চলে যান। তবে তিনি আবার নারায়ণগঞ্জে দাপট দেখাচ্ছেন। তার অনুসারীরা একটি পত্রিকা অফিসে হামলা চালিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। আজমেরী প্রকাশ্যে, তবু তাকে ধরছে না আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

নারায়ণগঞ্জে আলোচিত কিশোর তানভীর মোহাম্মদ ত্বকী হত্যার তদন্ত চলাকালেই এই হত্যায় আওয়ামী লীগ নেতা শামীম ওসমানের ভাতিজা আজমেরী ওসমানের সংশ্লিষ্টতার কথা জানায় র‌্যাব। তার কথিত টর্চার সেলে হানা দিয়ে রক্তমাখা শার্ট উদ্ধারের ঘটনাটি টেলিভিশনে লাইভ সম্প্রচারও হয়।

তখন আত্মগোপনে আজমেরী। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ঘোষণা দেয়, তাকে ধরে এনে বিচারের মুখোমুখি করা হবে।

সেই হত্যার পর প্রায় ৯ বছর ধরে প্রকাশ্যে নেই আজমেরী। কিন্তু দাপট কি কমেছে?

সম্প্রতি নারায়ণগঞ্জের একটি স্থানীয় দৈনিকে ত্বকী হত্যা মামলার অভিযোগপত্রে আজমেরীর সংশ্লিষ্টতা নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশের পর সেই পত্রিকা অফিসে একদল তরুণের হামলার পর শামীম ওসমানের ভাতিজার বিষয়টি আবার আলোচনায় এসেছে।

এই হামলা চালানোর পর নারায়ণগঞ্জজুড়ে আবার আলোচনা হচ্ছে, আজমেরী কি আবার তার ত্রাসের পুরোনো স্মৃতি ফিরিয়ে আনতে চাইছেন?

যদি তার বিরুদ্ধে তথ্য-প্রমাণ পাওয়াই যায়, তাহলে আজমেরীকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কেন গ্রেপ্তার করছে না- এমন প্রশ্ন আবার বড় হচ্ছে।

সেই আগের রূপে আজমেরী ওসমান?
ত্বকী হত্যার খসড়া চার্জশিট নিয়ে এই সংবাদ প্রকাশের জন্যই সময়ের নারায়ণগঞ্জ পত্রিকার অফিসে হামলা হয়

রাজধানী লাগোয়া বন্দরনগরে আজমেরীর পরিবারের প্রভাব কমলেও এখনও সেটি যথেষ্ট গুরুত্ব বহন করে। তবে সদ্যসমাপ্ত সিটি করপোরেশন নির্বাচনের আগে-পরে ক্ষমতাসীন দল ও তার সহযোগী সংগঠনগুলো থেকে শামীম ওসমান অনুসারী নেতাদের সরিয়ে দিয়ে আওয়ামী লীগ এই বার্তা দিয়েছে যে, ওসমান পরিবারের একাধিপত্য তারাও আর রাখতে চাইছে না। এর মধ্যে ‘সময়ের নারায়ণগঞ্জ পত্রিকা’য় এই হামলা হয়।

পত্রিকাটির সাংবাদিকরা অভিযোগ করছেন, হামলাকারীরা তাদের আজমেরীকে নিয়ে সংবাদ প্রকাশের জন্য শাসাচ্ছিলেন। এ কারণেই এই হামলায় শামীম ওসমানের ভাতিজার সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ জোরালো হয়েছে।

নাগরিক কমিটির সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য ধীমান সাহা জুয়েল নিউজবাংলাকে বলেন, ‘প্রশাসনের দুর্বলতার কারণে তাদের নাকের ডগায় বসে আজমেরী ওসমান বাহিনী গণমাধ্যমের ওপর হামলা করার সাহস পায়। এর বাইরেও তারা নানা অপরাধ সংঘটিত করছে। আমরা প্রশাসনকে বলতে চাই, আপনাদের মেরুদণ্ড সোজা রেখে এ শহরের সন্ত্রাসীদের ধরে বিচারের আওতায় আনুন।’

সম্পাদকমণ্ডলীর সভাপতি এ বি সিদ্দিক বলেন, ‘তারা এতটাই বেপরোয়া হয়ে উঠেছে পত্রিকা অফিসে হামলা করে সংবাদপত্রের মুখ বন্ধ করতে চায়। ঘটনার কয়েক দিন পার হয়ে গেল, কিন্তু হামলার নেতৃত্বকারীরা ধরাছোঁয়ার বাইরে। কারণ আজমেরী বাহিনীকে থামানো না গেলে সামনে আরও বড় ঘটনা ঘটতে পারে।’

ত্বকীর বাবা রফিউর রাব্বি নিউজবাংলাকে বলেন, ‘এ শহরে যারাই ত্বকী হত্যার বিচার চেয়েছে, তাদের ওপর হামলা করা হয়েছে। তারা এতটাই বেপরোয়া হয়ে উঠেছে, যাদের বিরুদ্ধে লিখেছে, তাদের ওপর হামলা করা হচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘ত্বকী হত্যার মামলার গ্রেপ্তার আসামি সুলতান শওকত ভ্রমরের আদালতে দেয়া ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে যেহেতু আজমেরী ওসমানের নাম এসেছে, সেহেতু তাকে ও সহযোগীদেরও আইনের আওতায় এনে বিচার শুরু করার দাবি জানাচ্ছি।’

পত্রিকা অফিসে হামলার ঘটনায় যাদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে, তারা সবাই আজমেরীর অনুসারী। তবে মামলায় আজমেরীকে আসামি করা হয়নি।

সদর মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক আজিজুল হক জানান, পত্রিকা অফিসে হামলা, ভাংচুর, সংবাদকর্মীদের প্রাণনাশের হুমকি ও দেড় লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতির অভিযোগে করা মামলাটি গত সোমবার ডিবিতে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ কারণে মামলার তদন্ত ও গ্রেপ্তারের বিষয়টি দেখবে জেলা গোয়েদা (ডিবি) পুলিশ।

নারায়ণগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিবি শাখা) জাহিদ পারভেজ নিউজবাংলাকে জানান, ‘হামলার ঘটনায় এ পর্যন্ত ১১ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। যারা পলাতক রয়েছে তাদের ধরতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।’

ত্বকী হত্যার ঘটনায় র‌্যাবের খসড়া অভিযোগপত্র নিয়ে সংবাদ প্রকাশ করায় গত ১২ ফেব্রুয়ারি দুপুরে চাষাঢ়ায় প্রেসিডেন্ট রোডে সিরাজ ম্যানশনের চারতলায় নারায়ণগঞ্জে স্থানীয় দৈনিক সময়ের নারায়ণগঞ্জ পত্রিকা অফিসে হামলা চালায় একদল যুবক।

অর্ধশতাধিক মোটরসাইকেলে পত্রিকা অফিসে গিয়ে সাংবাদিকদের হত্যার হুমকি দিয়ে সিসি ক্যামেরা ভাংচুর করে ডিভাইস নিয়ে যায় তারা। এ ঘটনায় ওই পত্রিকার সম্পাদক জাবেদ হোসেন জুয়েল সদর থানায় ১৯ জনের নাম উল্লেখ করে মামলা করেছেন।

সময়ের নারায়ণগঞ্জের প্রকাশক ও সম্পাদক জাবেদ আহমেদ জুয়েল বলেন, ‘সম্প্রতি ত্বকী হত্যা নিয়ে সর্বত্র আলোচনা হচ্ছে। ১১ ফেব্রুয়ারি র‌্যাবের সেই প্রকাশিত খসড়া চার্জশিট নিয়ে একটি সংবাদ প্রকাশ হয়। কপিটি গণমাধ্যম কর্মীদের সরবরাহ করেন ত্বকীর বাবা রফিউর রাব্বি। সময় নারায়ণগঞ্জ পত্রিকায় সেটি হুবহু তুলে ধরা হয়। এ কারণে পত্রিকা অফিসে হামলা চালিয়েছে আজমেরী ওসমানের অনুসারী।

আজমেরী প্রকাশ্যেই

ত্বকী হত্যায় আজমেরীর সম্পৃক্ততার কথা র‌্যাব জানিয়েছিল প্রকাশ্যেই। সে সময় তিনি কয়েক বছর আত্মগোপনে থাকলেও সম্প্রতি আবার প্রকাশ্যে এসেছেন।

সেই আগের রূপে আজমেরী ওসমান?
আলোচিত আওয়ামী লীগ নেতা শামীম ওসমানের ভাতিজা আজমেরী ওসমান

২০১৮ সালের ২ ডিসেম্বর হারুন অর রশীদ নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপার হিসেবে যোগ দেয়ার পর আজমেরী আবার এক বছরের জন্য উধাও হয়ে যান। ২০১৯ সালের ৩ নভেম্বর হারুন বদলি হওয়ার পর তিনি আবার ফিরে আসেন।

২০১৯ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর শহরের আমলাপাড়া এলাকার বাচ্চু নামে এক ব্যক্তিকে মারধর ও চাঁদাবাজির অভিযোগে আজমেরীর বিরুদ্ধে সদর মডেল থানায় মামলা হয়।

তখন পুলিশ আজমেরীর বাসায় অভিযান চালিয়ে তার দুই সহযোগীকে গ্রেপ্তার করে। কিন্তু তাকে না পাওয়ার কথা জানায়।

আজমেরী তার বাড়ি আল্লামা ইকবাল রোড (কলেজ রোড) থেকে নিজে গাড়ি চালিয়ে বের হয়ে নগরীর বিভিন্ন সড়কে ঘোরেন। সঙ্গে থাকে বেশ কিছু মোটরসাইকেল। গাড়িটি সড়কে চলার সময় বিকট শব্দে গান বাজানো হয়। তখন দূর থেকেই স্থানীয়রা বুঝতে পারে, আজমেরীর বহর যাচ্ছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আজমেরী কোনো পাড়া-মহল্লায় গেলে আগেই সেখানে অবস্থান করেন তার সহযোগীরা। তিনি গাড়ি থেকে নামার পর অন্যরা মাথা নিচু রাখেন। এটা অনেকটা সামন্ততান্ত্রিক ব্যবস্থার মতো।

ব্যবসায়ীদের তথ্য বলছে, নগরীর গার্মেন্টসের ঝুট সেক্টরে আজমেরী ঘনিষ্ঠদের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

আজমেরীর ঘনিষ্ঠদের মধ্যে বর্তমানে নাছির শহরে বেশ পরিচিত। তিনিই পত্রিকা অফিসে হামলা মামলার প্রধান আসামি।

আগে নাছিরের অবস্থানে ছিলেন তরিকুল ইসলাম লিমন নামে একজন। গত বছর একটি মামলায় গ্রেপ্তারের পর জামিনে বের হয়, তবে তাকে আগের মতো দেখা যায় না।

ত্বকী হত্যায় সম্পৃক্ততার তথ্য

২০১৩ সালের ৬ মার্চ বিকেলে তানভীর মুহাম্মদ ত্বকী শহরের শায়েস্তাখান সড়কের বাসা থেকে বের হয়ে নিখোঁজ হয়। দুদিন পর শহরের চারারগোপ এলাকায় শীতলক্ষ্যা নদীর তীরে তার ক্ষতবিক্ষত লাশ উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় মামলার পর গত আট বছরে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করে। তারা হলেন রিফাত বিন ওসমান, সুলতান শওকত ভ্রমর, ইউসুফ হোসেন লিটন, সালেহ রহমান সীমান্ত ও তায়েবউদ্দিন আহমেদ জ্যাকি। এরা সবাই আজমেরী ওসমানের ঘনিষ্ঠজন ও অনুসারী ছিলেন।

সেই আগের রূপে আজমেরী ওসমান?
ত্বকী হত্যার পর থেকে প্রায় ৯ বছর ধরে নারায়ণগঞ্জে বিচারের দাবিতে ধারাবাহিকভাবে কর্মসূচি পালিত হয়ে আসছে

ওই বছরের ১২ নভেম্বর আজমেরী ওসমানের সহযোগী সুলতান শওকত ভ্রমর আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে বলেন, আজমেরী ওসমানের নেতৃত্বে ত্বকীকে অপহরণের পর হত্যা করা হয়।

হত্যার এক বছরের মাথায় ২০১৪ সালের ৫ মার্চ সংবাদ সম্মেলন করে মামলার তদন্ত সংস্থা র‌্যাবের তৎকালীন অতিরিক্ত মহাপরিচালক জিয়াউল আহসান জানান, আজমেরী ওসমানসহ ১১ জন ত্বকী হত্যায় অংশ নেন।

একটি খসড়া অভিযোগপত্র তৈরি করার কথাও জানান সেই র‌্যাব কর্মকর্তা। তবে গত আট বছরে আদালতে প্রতিবেদন জমা দিতে পারেনি। গ্রেপ্তারও হয়নি আজমেরী।

যদি আজমেরীর সম্পৃক্ততা থাকবে, তাহলে কেন তাকে গ্রেপ্তার হয়নি এমন প্রশ্নে র‌্যাব-১১-এর অধিনায়ক তানভীর মোহাম্মদ পাশার কাছ থেকে জবাব পাওয়া যায়নি।

তিনি বলেন, ‘চার্জশিট দেয়ার জন্য তদন্ত কর্মকর্তা কাজ করছেন। মামলাটি চাঞ্চল্যকর হওয়ায় আমরা বিভিন্ন বিষয় খতিয়ে তদন্ত করছি, যাতে ঘটনার আগের ও পরের কারণগুলো প্রতিবেদনে উল্লেখ করা যায়। ঘটনার সঙ্গে যার যার সম্পৃক্ততা পাওয়া যাবে, তাদের সবাইকে আইনের আওতায় আনা হবে।

কবে অভিযোগপত্র চূড়ান্ত করা হবে- এ বিষয়ে তদন্ত কর্মকর্তা মশিউর রহমানের কাছে প্রশ্ন রাখলে তিনি কোনো প্রশ্নের উত্তর দিতে রাজি হননি।

আজমেরীকে আইনের আওতায় না আনায় তিনি ও তার সহযোগীরা এখন আবার পেশিশক্তি দেখাচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন নারায়ণগঞ্জ মানবাধিকার কমিশনের সভাপতি মাহাবুবুর রহমান মাসুম। তিনি বলেন, ‘নগরীর পাড়া-মহল্লার রংবাজ, মাদক ও চাঁদাবাজি মামলার আসামিসহ যাদের নিজের রাজনৈতিক পরিচয় নেই, তারা আজমেরীর সঙ্গে যোগ দেয়। তারা নানাভাবে ভয় দেখায় স্থানীয়দের। ব্যবসায়ীদের হুমকি দেয়া হয়।’

আরও পড়ুন:
ত্বকী হত্যা নিয়ে সংবাদ, পত্রিকা অফিসে হামলা
ত্বকী হত্যা: আজমেরীর ঘনিষ্ঠ ভ্রমরের জামিন নাকচ
ত্বকী হত্যা: কারাগারে আজমেরীর ঘনিষ্ঠ ভ্রমর
ত্বকীর খুনিদের ধরছে না প্রশাসন: রফিউর রাব্বি

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বাংলাদেশ
Two people including a child died after taking a bath in Mahananda

মহানন্দায় গোসলে নেমে শিশুসহ দু’জনের মৃত্যু

মহানন্দায় গোসলে নেমে শিশুসহ দু’জনের মৃত্যু প্রতীকী ছবি।
চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর ও ভোলাহাট উপজেলায় মহানন্দা নদীতে গোসল করতে নেমে ডুবে যান কলেজছাত্র রায়হান আলী শুভ ও ১২ বছরের সোনিয়া। তাদেরকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর ও ভোলাহাট উপজেলায় মহানন্দা নদীতে গোসল করতে নেমে শিশুসহ দু’জনের মৃত্যু হয়েছে। তারা হলেন- সদর উপজেলার স্বরূপনগরের মো. জিকেনের ছেলে ও শাহ নেয়ামতুল্লাহ কলেজের ডিগ্রি দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র রায়হান আলী শুভ ও ভোলাহাট উপজেলার দলদলী ইউনিয়নের পীরগাছি গ্রামের জহর আলীর মেয়ে সোনিয়া। দুজনের মরদেহ আইনগত প্রক্রিয়া শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেছে পুলিশ।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর থানার ওসি মিন্টু রহমান জানান, ‘মহানন্দা সেতুর রাবার ড্যাম এলাকায় তিন-চার বন্ধু মিলে নদীতে গোসল করতে নেমে ডুবে যায় শুভ। পরে অন্যরা তাকে উদ্ধার করে দ্রুত সদর হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

অন্যদিকে ভোলাহাট থানার ওসি সুমন কুমার জানান, উপজেলার বজরাটেক এলাকায় নানা জমরুদ্দিনের বাড়িতে বেড়াতে এসে দুপুরে মহানন্দা নদীতে গোসল করতে নেমেছিল সোনিয়া। এরপর তাকে খুঁজে না পাওয়ায় ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেয়া হয়। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা নদী থেকে সোনিয়াকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠালে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

আরও পড়ুন:
চাঁপাইনবাবগঞ্জে পুকুরে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু
কুড়িগ্রামে পুকুরের পানিতে খেলতে গিয়ে প্রাণ গেল দুই শিশুর

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Naib of Awami League who won unopposed in Jhenaidah 1 by election

ঝিনাইদহ-১ উপনির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী আওয়ামী লীগের নায়েব

ঝিনাইদহ-১ উপনির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী আওয়ামী লীগের নায়েব ঝিনাইদহ-১ আসনের উপনির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিজয়ী মো. নায়েব আলী জোয়ার্দ্দার। ছবি: সংগৃহীত
শনিবার প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষদিনে স্বতন্ত্র প্রার্থী ঝিনাইদহ জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি নজরুল ইসলাম দুলাল ও খেলাফত আন্দোলনের আব্দুল আলিম নিজামী মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেন। এরপর নৌকার প্রার্থীকে বেসরকারিভাবে জয়ী ঘোষণা করা হয় বলে জানান ঝিনাইদহ জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. মখলেসুর রহমান।

ঝিনাইদহ-১ আসনের উপনির্বাচনে দুই প্রার্থী মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেয়ায় আওয়ামী লীগের মো. নায়েব আলী জোয়ার্দ্দার বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী হয়েছেন।

শনিবার প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষদিনে স্বতন্ত্র প্রার্থী ঝিনাইদহ জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি নজরুল ইসলাম দুলাল ও খেলাফত আন্দোলনের আব্দুল আলিম নিজামী মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেন। এরপর নৌকার প্রার্থীকে বেসরকারিভাবে জয়ী ঘোষণা করা হয় বলে জানান ঝিনাইদহ জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. মখলেসুর রহমান।

উল্লেখ্য, এ বছরের ১৬ মার্চ ঝিনাইদহ-১ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হাই থাইল্যান্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। তিনি জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ছিলেন। তার মৃত্যুতে আসনটি শূন্য ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

এরপর উপনির্বাচনের চন্য ওই আসনের তফসিল ঘোষণা করে ইসি। গত ১০ এপ্রিল ছিল মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ দিন। আওয়ামী লীগের নায়েব আলি জোয়ার্দ্দার, বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের মো. আব্দুল আলিম নিজামী এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. নজরুল ইসলাম ও মুনিয়া আরেফিন মনোনয়নপত্র জমা দেন। যাচাই-বাছাইয়ে মুনিয়া আরফিনের মনোনয়ন বাতিল হলে ভোটের মাঠে ছিলেন তিনজন প্রার্থী। আগামী ৫ জুন ভোট গ্রহণের দিন ধার্য ছিল।

তবে প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন অপর দুই প্রার্থী মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নিলে আওয়ামী লীগের নায়েব আলী জোয়ার্দ্দারকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী ঘোষণা করা হয় বলে জানান জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মখলেসুর রহমান।

তিনি বলেন, ‘রিটার্নিং কর্মকর্তার দপ্তর থেকে গেজেট প্রকাশের জন্য কাগজপত্র নির্বাচন কমিশনে পাঠানো হবে।’

এর আগে, সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত জেলার দলীয় কার্যালয়ে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বি এম মোজাম্মেল হকের নেতৃত্বে জেলা আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিত সভা হয়।

সভায় ঝিনাইদহের তিন আসনের সংসদ সদস্য, সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্যসহ ঝিনাইদহ-১ আসনের উপনির্বাচনের দুই প্রার্থী ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ অন্যান্য নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

সভায় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বি এম মোজাম্মেল হক বলেন, ‘যেহেতু নৌকা প্রতীকে একজনকে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে এবং দলেরই অপর এক নেতা স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন, সেজন্য স্বতন্ত্র প্রার্থী নজরুল ইসলাম দুলালকে প্রার্থিতা প্রত্যাহারের অনুরোধ করেছিলাম। তিনি সাড়া দিয়ে তা গ্রহণ করেছেন।’

মনোনয়ন প্রত্যাহার করা স্বতন্ত্র প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি নজরুল ইসলাম দুলাল বলেন, ‘কোনো চাপের কারণে মনোনয়ন প্রত্যাহার করিনি। দল নায়েব আলী জোয়ার্দ্দারকে মনোনয়ন দিয়েছে। দলের সিদ্ধান্তের প্রতি সম্মান দেখিয়ে নির্বাচন থেকে সরে এসেছি।’

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী আব্দুল হাইয়ের সঙ্গে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে পরাজিত হন নজরুল ইসলাম দুলাল।

আরও পড়ুন:
ঝিনাইদহ-১ উপনির্বাচনে নৌকা পেলেন নায়েব আলী
ঝিনাইদহ-১ উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চান ১৭ জন
ঝিনাইদহ-১ আসনে উপনির্বাচন ৫ জুন

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Lu expressed intention to return GSP benefits Foreign Minister

জিএসপি সুবিধা ফিরিয়ে দেয়ার অভিপ্রায় ব্যক্ত করেছেন লু: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

জিএসপি সুবিধা ফিরিয়ে দেয়ার অভিপ্রায় ব্যক্ত করেছেন লু: পররাষ্ট্রমন্ত্রী শনিবার দুপুরে চট্টগ্রাম নগরীর কাজীর দেউড়িস্থ ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন হলে শেখ হাসিনার ৪৪তম স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। ছবি: নিউজবাংলা
পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘বিশ্ব অর্থনৈতিক মন্দা থেকে কাটিয়ে ওঠার লক্ষ্যে তাদের (যুক্তরাষ্ট্রের) একটি বিশেষ তহবিল আছে। সেখান থেকে তারা সাহায্য করার কথাও বলেছেন। সুতরাং যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক অত্যন্ত চমৎকার। আমরা এই সম্পর্ককে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার লক্ষ্যেই কাজ করছি। এজন্যই বিএনপির মাথাটা বেশি খারাপ।’

বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ককে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্যই যুক্তরাষ্ট্রের সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডোনাল্ড লু এসেছিলেন বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন, ‘কীভাবে এই সম্পর্ককে এগিয়ে নিয়ে যাব, দ্বি-পাক্ষিক বৈঠকে আমার সঙ্গে সেটি নিয়ে তিনি কথা বলেছেন। এমনকি আমরা যদি কোনো কোনো ক্ষেত্রে কিছু রিফর্ম করি, তাহলে আমাদেরকে জিএসপি সুবিধাও ফিরিয়ে দেয়ার অভিপ্রায়ও তারা ব্যক্ত করেছেন।’

শনিবার দুপুরে চট্টগ্রাম নগরীর কাজীর দেউড়িস্থ ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন হলে শেখ হাসিনার ৪৪তম স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এসব কথা বলেন। চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগ এই আলোচনা সভার আয়োজন করে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘বিশ্ব অর্থনৈতিক মন্দা থেকে কাটিয়ে ওঠার লক্ষ্যে তাদের (যুক্তরাষ্ট্রের) একটি বিশেষ তহবিল আছে। সেখান থেকে তারা সাহায্য করার কথাও বলেছেন। সুতরাং যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক অত্যন্ত চমৎকার। আমরা এই সম্পর্ককে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার লক্ষ্যেই কাজ করছি। এজন্যই বিএনপির মাথাটা বেশি খারাপ।’

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘বিএনপি একটা জালিয়াত রাজনৈতিক দল। আপনাদের মনে আছে, গত বছর ২৮ অক্টোবর জো বাইডেনের ভুয়া উপদেষ্টাকে বিএনপি হাজির করেছিল? ভুয়া উপদেষ্টা যখন বিএনপি কার্যালয়ে তখন দেখি শুধু ইংরেজি বলে। পুলিশ যখন ধরে নিয়ে গেল তখন দেখি গড়গড়াইয়া বাংলা বলে।

‘তার আগে বিএনপি কংগ্রেসম্যানদের সই জাল করেছিল। সেই সময়ে বলেছিল- ভারতের অমিত শাহ ফোন করেছিল। অমিত শাহর অফিস থেকে বলা হলো- তিনি কাউকে ফোন করেননি। যে আওয়াজ ছাড়া হয়েছিল সেটা অমিত শাহর নয়।

‘দেশের উন্নয়ন অগ্রগতি দেখে বিএনপি ও তাদের দোসরদের মাথা খারাপ হয়ে গেছে। মাঝেমধ্যে দেখি জিএম কাদেরেরও মাথা খারাপ হয়ে যায়।’

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘নির্বাচনের আগে আমরা দেখেছি, বিএনপি প্রতিদিন বিভিন্ন এম্বাসিতে ঘুরে বেড়াত আর দেন-দরবার করত- নির্বাচনটা যাতে বন্ধ করা যায়; কোনো লাভ হয় নাই। নির্বাচন হয়েছে, ৪২ শতাংশ মানুষ ভোট দিয়েছে। যদি নির্বাচনের দিন কুয়াশা ও প্রচণ্ড ঠান্ডা না থাকত তাহলে আরও বেশি মানুষ ভোট দিত। আর বিএনপি যদি নির্বাচন প্রতিহতের ঘোষণা, মানুষের ওপর হামলা, ট্রেনের মধ্যে শিশুসন্তানসহ পুরো পরিবারকে জ্বালিয়ে হত্যা না করত তাহলে ভোটের হার ৬০ শতাংশের বেশি হতো।

‘গত দু-তিন বছরে ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত অনেক দেশে নির্বাচন হয়েছে। সেখানে অনেক দেশে ৪০ শতাংশের কম ভোট পড়েছে। যদিওবা সেখানে নির্বাচনে বর্জন ও প্রতিহতের কোনো হুমকি ছিল না।’

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশে অত্যন্ত চমৎকার নির্বাচন হয়েছে। নির্বাচন তা না হতো তাহলে পৃথিবীর ৮০টি দেশের সরকার কিংবা রাষ্ট্রপ্রধান আমাদের প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানাতেন না। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট চিঠি লিখে অভিনন্দন জানিয়ে বলেছেন- আমরা বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ককে নতুন উচ্চতায় নিয়ে যেতে চাই। সর্বশেষ দুদিন আগে অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রীও আমাদের প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। এজন্য বিএনপির মাথা খারাপ। সম্ভবত সেজন্য বিএনপি নেতা ড. মঈন খান ইদানিং জ্যোতিষীর মতো কথা বলছেন।’

বয়সে বড় বিএনপি নেতা ড. মঈন খানের প্রতি সম্মান রেখে ড. হাছান বলেন, ‘তিনি রাজনীতির বাইরে এখন জ্যোতিষীর দায়িত্বও পালন করা শুরু করেছেন। বঙ্গবন্ধু যখন দেশ পরিচালনা করছিলেন তখন মঈন খানের বাবা আবদুল মোমেন খান খাদ্য সচিব ছিলেন। খাদ্যবাহী জাহাজ ভারত মহাসাগর থেকে ফেরত যাওয়ার পেছনে তার বাবার কারসাজি ছিল, যাতে দেশে খাদ্য সংকট তৈরি হয়। খাদ্য সংকট তৈরি করে বঙ্গবন্ধুকে অজনপ্রিয় করার ক্ষেত্রে আবদুল মোমেন খানের ভুমিকা ছিল। সেটির পুরস্কারস্বরূপ জিয়াউর রহমান ক্ষমতা দখল করার পর আবদুল মোমেন খানকে মন্ত্রীর মর্যাদায় খাদ্য উপদেষ্টা বানিয়েছিলেন। ’৭৯ সালের নির্বাচনের পর আবদুল মোমেন খান সংসদে খাদ্যমন্ত্রীর বক্তব্যে বলেছিলেন, খাদ্যের জন্য দরকার হলে দেশ বিক্রি করে দেব। ওনারই সন্তান জনাব মঈন খান।’

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘আজকে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হলে, বাংলাদেশের মানুষের স্বপ্নের বাস্তবায়ন ঘটাতে হলে জননেত্রী শেখ হাসিনার বিকল্প একমাত্র শেখ হাসিনা; এইদেশে আর কোনো বিকল্প নাই। তিনি জাতিকে স্বপ্ন দেখিয়েছিলেন ডিজিটাল বাংলাদেশের এবং সেই স্বপ্নের বাস্তবায়ন ঘটেছে। ২০১৮ সালে আমাদের স্লোগান ছিল- আমার গ্রাম আমার শহর। আজকে গ্রামগুলো শহরের মতো হয়ে গেছে; গ্রাম আর শহরের মধ্যে কোনো পার্থক্য নাই।’

তিনি বলেন, ‘এবার আমরা স্লোগান দিয়েছি- স্মার্ট বাংলাদেশ। স্মার্ট বাংলাদেশ বলতে স্মার্ট সোসাইটি, স্মার্ট ইকোনমি, স্মার্ট গভরন্যান্স ও স্মার্ট পিপলস- এই চারটি অনুসঙ্গকে আমরা সঙ্গে নিয়ে স্মার্ট বাংলাদেশ রচনা করতে চাই। ইনশাল্লাহ জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা এই অভিযাত্রায়ও বিজয়ী হব, কিন্তু আমাদের অভিযাত্রাকে আটকে দিতে চান বিএনপি ও তাদের দোসররা। সেই কারণেই নানা ষড়যন্ত্র।’

মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাহাতাব উদ্দিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাবেক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন।

এতে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট ইব্রাহীম হোসেন চৌধুরী বাবুল, আলহাজ খোরশেদ আলম সুজন, আলতাফ হোসেন চৌধুরী বাচ্চু, সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য শফিক আদনান, শফিকুল ইসলাম ফারুক, অ্যাডভোকেট শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী, চন্দন ধর, মশিউর রহমান প্রমুখ।

এরপর পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে চট্টগ্রাম নগরীর কদম মোবারক এতিমখানায় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ উপ-কমিটির উদ্যোগে শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে সুবিধাবঞ্চিতদের মাঝে সুষম খাবার বিতরণ করেন।

আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিনের সভাপতিত্বে এতে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাবেক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি শাহজাদা মহিউদ্দিন প্রমুখ।

আরও পড়ুন:
প্রশ্নের সময় ডোনাল্ড লুকে মিথ্যা তথ্য দিয়েছেন সাংবাদিকরা: বিএনপি
র‌্যাবের ওপর নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার প্রশ্নে কী বলল যুক্তরাষ্ট্র
দেশকে এগিয়ে নিতে শেখ হাসিনার বিকল্প নেই: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Seasonal journalists are not allowed to enter polling stations
ঝালকাঠিতে ইসি আহসান হাবিব

মৌসুমী সাংবাদিকদের ভোট কেন্দ্রে প্রবেশের পাস নয়

মৌসুমী সাংবাদিকদের ভোট কেন্দ্রে প্রবেশের পাস নয় শনিবার ঝালকাঠিতে তিন জেলার প্রার্থীদের সঙ্গে মতবিনিময় সভা শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফিং করেন ইসি আহসান হাবিব খান। ছবি: নিউজবাংলা
ইসি আহসান হাবিব খান বলেন, ‘কোনো ভোট কেন্দ্রে অসংগতির ছবি ও ভিডিও করে প্রমাণ দেখাতে পারলে দ্রুত সময়ে ব্যবস্থা নেয়া হবে। প্রয়োজনে কেন্দ্রে ভোট বন্ধ করে দেয়া হবে। অবাধ নিরপেক্ষ ও শান্তিময় নির্বাচন করার জন্য প্রশাসন সর্বদা প্রস্তুত।’

নির্বাচন কমিশনার (ইসি) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) মো. আহসান হাবিব খান বলেছেন, উপজেলা নির্বাচনে ভুঁইফোড় মিডিয়া এবং মৌসুমী সাংবাদিকদের ভোট কেন্দ্রে প্রবেশের জন্য পাস দেয়া হবে না। সংশ্লিষ্ট কমিটি আবেদন যাচাই-বাছাই করে পাস ইস্যু করবে।

ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষে শনিবার ঝালকাঠি শিল্পকলা একাডেমী মিলনায়তনে তিন জেলার প্রার্থীদের সঙ্গে মতবিনিময় সভা শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে তিনি এ কথা বলেন।

আহসান হাবিব খান বলেন, ‘কোনো ভোট কেন্দ্রে অসংগতির ছবি ও ভিডিও করে প্রমাণ দেখাতে পারলে দ্রুত সময়ে ব্যবস্থা নেয়া হবে। প্রয়োজনে কেন্দ্রে ভোট বন্ধ করে দেয়া হবে। অবাধ নিরপেক্ষ ও শান্তিময় নির্বাচন করার জন্য প্রশাসন সর্বদা প্রস্তুত।’

তিনি আরও বলেন, ‘নির্বাচন কমিশনার একটি সাংবিধানিক পদ। সংবিধান সুরক্ষা করা আমাদের দায়িত্ব। ভোটার উপস্থিত করানো প্রার্থীর দায়িত্ব। তবে ভোটারদের কেন্দ্রে আসতে যদি কেউ বাধা দেয় তার জন্য দুই থেকে সাত বছর কারাদণ্ডের আইন করা হয়েছে। সেভাবেই আমরা আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে নির্দেশ দিয়েছি। নির্বাচনকালীন ডিসি-এসপিরা স্বাধীনভাবে কাজ করবেন।

আরও পড়ুন:
মৃত বাবাকে দেখতে এক ঘণ্টা সময় পেলেন মেয়ে
সামনের নির্বাচনগুলো আরও স্বচ্ছ হবে: ইসি
প্রকাশ্যে ভোট: ক্ষমা চাওয়ায় এমপি হাফিজকে দায়মুক্তি ইসির
প্রবাসীদের এনআইডি কার্যক্রম দেখতে যুক্তরাজ্য যাচ্ছেন ইসি আলমগীর
প্রকাশ্যে ভোট, বরিশালের এমপি হাফিজ মল্লিককে ইসিতে তলব

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Three people including mother and son were killed by lightning in Narsingdi

নরসিংদীতে বজ্রপাতে মা-ছেলেসহ তিনজন নিহত

নরসিংদীতে বজ্রপাতে মা-ছেলেসহ তিনজন নিহত ফাইল ছবি
নিহতদের একজন কাইয়ুম তার নানার বাড়ি বেড়াতে এসে মামার সঙ্গে ধান কাটতে গিয়ে বজ্রপাতে নিহত হয়েছেন।

নরসিংদীর সদর উপজেলার দুর্গম চলাঞ্চল আলোকবালীর মাঠে ধান কাটতে গিয়ে বজ্রাঘাতে মা-ছেলেসহ তিনজন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন আরও দুইজন।

শনিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে। খবর বাসস

নিহতরা হলেন- আলোকবালী ইউনিয়নের মধ্যপাড়া গ্রামের কামাল মিয়ার স্ত্রী ৪৮ বছর বয়সী শরিফা বেগম ও তার ১২ বছরের ছেলে ইমন এবং রায়পুরা উপজেলার বাঘাইকান্দি গ্রামের হাতেম মিয়ার ছেলে ২৫ বছর বয়সী কাইয়ুম মিয়া।

কাইয়ুম তার নানার বাড়ি বেড়াতে এসে মামার সঙ্গে ধান কাটতে গিয়ে বজ্রপাতে নিহত হয়েছেন।

নিহতদের স্বজনদের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, সকালে কামাল মিয়া, তার স্ত্রী শরিফা ও ছেলে ইমনসহ বেশ কয়েকজন জমিতে ধান কাটছিলেন। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বৃষ্টি শুরু হলে বিদ্যুৎ চমকানো শুরু হয়। ওই সময় হঠাৎ বজ্রপাতে শরিফা, তার ছেলে ইমন ও কামালসহ ৫ জন আহত হন। তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়ার পথে ইমন, শরিফা ও কাইয়ুম মারা যান।

কামাল মিয়া ও রহমত আলী নামে আহত দুই ব্যক্তিকে সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে বলে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়।

নরসিংদী সদর মডেল থানার ওসি তানভীর আহমেদ বজ্রপাতে তিনজনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘আহতদের সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।’

আরও পড়ুন:
টাঙ্গাইলে বজ্রপাতে দুই কৃষকের মৃত্যু
বজ্রপাত নিরোধ যন্ত্র স্থাপনে সহায়তা করতে চায় ফ্রান্স

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Accused of killing niece by slitting her throat in dispute over land

জমি নিয়ে বিরোধে ভাতিজিকে গলা কেটে হত্যার অভিযোগ

জমি নিয়ে বিরোধে ভাতিজিকে গলা কেটে হত্যার অভিযোগ গাইবান্ধার পলাশবাড়িতে ভাতিজিকে ছুরিকাঘাতে হত্যার অভিযোগ উঠেছে চাচার বিরুদ্ধে। ছবি: নিউজবাংলা
স্থানীয়দের বরাত দিয়ে ওসি বলেন, ‘বাড়ির পাশের একটি জমি নিয়ে তাদের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। আজ শনিবার সকালে ওই বিরোধপূর্ণ জমিতে গাছ রোপণ করতে যান চাচা দুলা মিয়া। এতে বাধা দেন পাপিয়াসহ তার পরিবারের লোকজন। এ সময় উভয়ের মধ্যে প্রথমে কথা কাটাকাটি শুরু হয়।’

গাইবান্ধার পলাশবাড়িতে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে ভাতিজিকে ছুরিকাঘাতে হত্যার অভিযোগ উঠেছে চাচার বিরুদ্ধে।

উপজেলার মনোহরপুর ইউনিয়নের বিরামেরভিটা গ্রামে শনিবার সকালে এ ঘটনা ঘটে।

প্রাণ হারানো পাপিয়া আক্তার (৪৫) ওই এলাকার প্রয়াত নুরুল ইসলাম মাস্টারের মেয়ে এবং শরিফুল ইসলামের স্ত্রী। বিয়ের পর থেকে স্বামীসহ পাপিয়া বাবার বাড়িতেই থাকতেন।

অভিযুক্ত দুলা মিয়া একই গ্রামের বাসিন্দা।

পলাশবাড়ি থানার ওসি কেএম আজমিরুজ্জামান এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে ওসি বলেন, ‘বাড়ির পাশের একটি জমি নিয়ে তাদের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। আজ শনিবার সকালে ওই বিরোধপূর্ণ জমিতে গাছ রোপণ করতে যান চাচা দুলা মিয়া। এতে বাধা দেন পাপিয়াসহ তার পরিবারের লোকজন। এ সময় উভয়ের মধ্যে প্রথমে কথা কাটাকাটি শুরু হয়। পরে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে চাচা দুলা মিয়া তার হাতে থাকা ধারালো ছুরি দিয়ে ভাতিজি পাপিয়ার গলায় আঘাত করে।’

তিনি জানান, এ ঘটনায় পাপিয়া রক্তাক্ত হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। পরে স্বজনরা গুরুতর আহত পাপিয়াকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নেয়ার পথেই তার মৃত্য হয়।

ওসি আরও জানান, মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য গাইবান্ধা জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে পারভিন নামে এক নারীকে আটক করা হয়েছে।

নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে এজাহার দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। এজাহার পেলে মামলা করা হবে।

আরও পড়ুন:
লংগদুতে সন্ত্রাসীদের গুলিতে দুই কর্মী নিহত: ইউপিডিএফ
জমি নিয়ে বিরোধের জেরে শিক্ষককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ
মাদ্রাসাছাত্র হত্যা: ১১ মাস পর প্রধান আসামি গ্রেপ্তার
যাত্রীবেশে চালকের গলা কেটে অটোরিকশা ছিনতাই, গ্রেপ্তার ৩
ফেরিওয়ালাকে হত্যায় নারীর মৃত্যুদণ্ড, স্বামীর জেল

মন্তব্য

বাংলাদেশ
A college student was killed by a truck on his way home

বাড়ি ফেরার পথে ট্রাকের ধাক্কায় কলেজছাত্র নিহত

বাড়ি ফেরার পথে ট্রাকের ধাক্কায় কলেজছাত্র নিহত প্রাণ হারানো মেহেদী হাসান মিশু। ছবি: সংগৃহীত
ইউপি সদস্য রুবেল সরকার বলেন, ‘গত শুক্রবার রাতে দুর্ঘটনার শিকার হয়ে আজ শনিবার ভোরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করে মেহেদী। বাদ আসর নামাজের পর জানাজা শেষে দাফন সম্পন্ন করা হবে।’

টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে বাইকে করে বাড়ি ফেরার পথে ট্রাকের ধাক্কায় এক কলেজছাত্র নিহত হয়েছেন।

ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে শনিবার ভোরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। এর আগে উপজেলার গোবিন্দাসী ইউনিয়নের কষ্টাপাড়া এলাকায় শুক্রবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে দুর্ঘটনার শিকার হন মিশু।

প্রাণ হারানো মেহেদী হাসান মিশু (১৮) উপজেলার গোবিন্দাসী ইউনিয়নের কয়েড়া গ্রামের স্কুলশিক্ষক রফিকুল ইসলাম মোল্লার ছেলে। তিনি ঘাটাইল ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজের একাদশ শ্রেণির মানবিক বিভাগের ছাত্র ছিলেন।

গোবিন্দাসী ইউনিয়নের কয়েড়া ৯ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মো. রুবেল সরকার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

পরিবারের বরাত দিয়ে তিনি জানান, মেহেদী শুক্রবার রাতে বাইক নিয়ে গোবিন্দাসী এলাকা থেকে বাড়ি ফিরছিলেন। পথিমধ্যে কষ্টাপাড়া এলাকায় পৌঁছালে পেছন থেকে একটি ট্রাক তার বাইককে ধাক্কা দেয়। এতে রাস্তার পাশে ছিটকে পড়ে যান তিনি।

এরপর আহত অবস্থায় স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে প্রথমে ভূঞাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে অবস্থা গুরুতর হওয়ায় চিকিৎসক তাকে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে স্থানান্তর করেন। পরে তার অবস্থার আরও অবনতি হলে ঢামেক হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান মেহেদী।

ইউপি সদস্য রুবেল সরকার বলেন, ‘গত শুক্রবার রাতে দুর্ঘটনার শিকার হয়ে আজ শনিবার ভোরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করে মেহেদী। বাদ আসর নামাজের পর জানাজা শেষে দাফন সম্পন্ন করা হবে।’

এ ঘটনায় ভূঞাপুর থানা ওসি মো. আহসান উল্লাহ্ বলেন, ‘কেউ কোনো অভিযোগ করেনি, তাই মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় কোনো ব্যক্তির মৃত্যুর খবর জানা নেই।’

আরও পড়ুন:
চাঁপাইনবাবগঞ্জে ট্রাকচাপায় রাখালসহ ৬ গরুর মৃত্যু
মুম্বাইয়ে বিলবোর্ড পড়ে নিহত ১৪, আহত অন্তত ৭০
টেকনাফে পিটুনিতে একজন নিহত
রেললাইন ও সেতুর সংস্কার নেই, প্রতিনিয়ত ঘটছে দুর্ঘটনা
গরুবাহী ট্রাকের ধাক্কায় পুলিশ কনস্টেবল নিহত

মন্তব্য

p
উপরে