20201002104319.jpg
নীলা হত্যা: ৭ দিনের রিমান্ডে মিজান

নীলা হত্যা: ৭ দিনের রিমান্ডে মিজান

সাভারের স্কুলছাত্রী নীলা রায় হত্যা মামলার প্রধান আসামি মিজানুর রহমানকে ৭ দিন হেফাজতে রেখে জিজ্ঞাসাবাদ করবে পুলিশ। তদন্ত কর্মকর্তা এসআই নির্মল কুমার দাস তাকে ১০ দিন রিমান্ডে নেয়ার আবেদন করেন। 

গ্রেফতারের পরদিন শনিবার দুপুরে মিজানকে ঢাকার মুখ্য বিচারিক হাকিম আদালতে পাঠায় পুলিশ। রিমান্ড বাতিলের আবেদন করেন আইনজীবী আনোয়ারুল ইসলাম শুভ। বিকালে শুনানি শেষে আদেশ দেন বিচারক রাজীব হাসান।

সরকারি কৌঁশলি আনোয়ারুল কবির বাবুল জানান, মিজান নিজেই নীলাকে কুপিয়ে হত্যা করেছে বলে আদালতকে জানান। বলেন, হত্যায় তার কোন সহযোগী বা বন্ধু অংশ নেননি। 

দুদিনের রিমান্ড শেষে মিজানের সহযোগী সেলিম পালোয়ানকে কারাগারে পাঠিয়েছেন বিচারক। 

ঢাকা জেলা পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন সরদার জানান, হত্যা মামলায় প্রধান আসামিসহ কয়েকজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ ঘটনায় আর কারও সম্পৃক্ততা আছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। 

শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে সাভারের তেঁতুলঝোড়া ইউনিয়নের রাজফুলবাড়িয়া এলাকা থেকে মিজান, তার দুই সহযোগী সাকিব ও জয়কে গ্রেফতার করে পুলিশ। সাকিব ও জয়কে গ্রেফতারের বিষয়টি সাভার  মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সাইফুল ইসলাম নিশ্চিত করেন। তবে এ বিষয়ে কথা বলেননি পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন। 

বৃহস্পতিবার মানিকগঞ্জ থেকে গ্রেফতার মিজানের বাবা আব্দুর রহমান ও মা নাজমুন নাহারকে দুদিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ।

প্রেমের সম্পর্ক ছেদ করায় গত রোববার নীলাকে মিজান ছুরিকাঘাত করেন বলে অভিযোগ আছে। পরে হাসপাতালে মারা যান এই কিশোরী। এ ঘটনায় মিজানকে প্রধান আসামি করে মামলা করেন নীলার বাবা নারায়ণ রায়।

নীলা হত্যার প্রতিবাদ ও জড়িতদের শাস্তির দাবিতে সকালে সাভারের গেন্ডা এলাকায় মানববন্ধন হয়েছে। এতে স্থানীয় সংসদ সদস্য এনামুর রহমানসহ নানা শ্রেণি-পেশার মানুষ অংশ নেন। এসময় নীলার পরিবারের নিরাপত্তা নিশ্চিতে প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানান এনাম।

শেয়ার করুন