× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ পৌর নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য

আন্তর্জাতিক
সু চির বিরুদ্ধে আরও ৪ ফৌজদারি মামলা
hear-news
player
print-icon

সু চির নামে আরও ৪ ফৌজদারি মামলা

সু-চির-নামে-আরও-৪-ফৌজদারি-মামলা নেপিডোর আদালতে মিয়ানমারের ক্ষমতাচ্যুত রাষ্ট্রীয় উপদেষ্টা অং সান সু চি ও প্রেসিডেন্ট উইন মিন্ত। ফাইল ছবি
মামলাগুলোতে ৭৬ বছর বয়সী সু চির বিরুদ্ধে আইনি প্রক্রিয়া চলতে পারে তিনটি শহরে। অবৈধ আমদানি, ওয়াকিটকি রেডিও কেনা ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা আইনে করোনাভাইরাসবিষয়ক বিধিনিষেধ লঙ্ঘনের অভিযোগে রাজধানী নেপিডোতে বিচারাধীন তিনি। সরকারি গোপন তথ্য আইন লঙ্ঘনের অভিযোগে ইয়াঙ্গুনের আদালতেও মামলা রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

মিয়ানমারের ক্ষমতাচ্যুত রাষ্ট্রীয় উপদেষ্টা অং সান সু চির বিরুদ্ধে আরও চারটি ফৌজদারি মামলা করেছে সেনাবাহিনী।

দেশটির দ্বিতীয় বৃহৎ শহর মান্দেলের একটি আদালতে মামলা চারটি করা হয়েছে বলে সোমবার জানিয়েছেন সু চির আইনজীবী মিন মিন সোয়ে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে জানানো হয়, সু চির বিরুদ্ধে মামলার অন্যতম বিষয়বস্তু দুর্নীতি। মামলায় আরও অভিযুক্ত তার সরকারের সাবেক মন্ত্রী মিন থু। এ দুটি তথ্য ছাড়া অভিযোগের বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানা যায়নি।

মিন মিন সোয়ে বলেন, ‘দুর্নীতির অভিযোগ বলে জানতে পেরেছি। কিন্তু মামলায় অভিযোগের সুনির্দিষ্ট কারণ বা ঘটনা জানা যায়নি। আশা করছি, শিগগিরই তাও জানতে পারব।’

চলতি বছরের ১ ফেব্রুয়ারি সেনা অভ্যুত্থানে আটক ও ক্ষমতাচ্যুত হন শান্তিতে নোবেলজয়ী সু চি।

নতুন মামলাগুলোতে ৭৬ বছর বয়সী সু চির বিরুদ্ধে আইনি প্রক্রিয়া চলতে পারে তিনটি শহরে।

অবৈধ আমদানি, ওয়াকিটকি রেডিও কেনা ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা আইনে করোনাভাইরাসবিষয়ক বিধিনিষেধ লঙ্ঘনের অভিযোগে রাজধানী নেপিডোতে বিচারাধীন তিনি।

সরকারি গোপন তথ্য আইন লঙ্ঘনের অভিযোগে ইয়াঙ্গুনের আদালতেও মামলা রয়েছে তার বিরুদ্ধে। এ মামলায় দোষী সাব্যস্ত হলে সর্বোচ্চ ১৪ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড হতে পারে তার।

সু চির বিরুদ্ধে আনা এসব অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছেন তার আইনজীবীরা।

পরোয়ানা ছাড়াই সু চির বাড়িতে তল্লাশি চালানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রধান আইনজীবী খিন মাউং জ।

মিয়ানমার সেনাবাহিনীর মুখপাত্র জ মিন তুন সোমবার একটি সংবাদ সম্মেলনে অংশ নিলেও সু চির বিরুদ্ধে নতুন মামলার বিষয়ে কোনো কথা বলেননি তিনি।

সু চির বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে মিন তুন বলেন, শাসনব্যবস্থায় প্রেসিডেন্ট ও ভাইস প্রেসিডেন্টের মাঝামাঝিতে রাষ্ট্রীয় উপদেষ্টার পদ তৈরির মাধ্যমে সংবিধান লঙ্ঘন করেছেন সু চি।

নতুন মামলায় এ অভিযোগও রয়েছে কি না, তা জানা যায়নি।

প্রয়াত স্বামী ও সন্তানদের বিদেশি নাগরিকত্ব থাকায় মিয়ানমারের প্রেসিডেন্ট হতে পারবেন না সু চি। তাই ২০১৫ সালের নির্বাচনে জয়ের পর রাষ্ট্রীয় উপদেষ্টা হিসেবে ক্ষমতা নেন তিনি।

মিয়ানমারের সংবিধানে প্রেসিডেন্ট সর্বোচ্চ ক্ষমতার অধিকারী হলেও ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার আগ পর্যন্ত কার্যত রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ নেতা ছিলেন সু চি।

আরও পড়ুন:
সু চি ভ্যাকসিনেটেড
মিয়ানমার সংকট: আসিয়ানের প্রস্তাবে সমর্থন রাশিয়ার
মিয়ানমার জেলে আমাকে নির্যাতন করা হয়: যুক্তরাষ্ট্রের সাংবাদিক
মিয়ানমার নিয়ে জাতিসংঘের বিবৃতিতে সই করেনি ভারত, চীন, রাশিয়া
মিয়ানমারের বিরুদ্ধে অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা জাতিসংঘের

মন্তব্য

আরও পড়ুন

আন্তর্জাতিক
3 arrested for snatching bank money

ব্যাংকের টাকা ছিনতাই করতে গিয়ে আটক ৩

ব্যাংকের টাকা ছিনতাই করতে গিয়ে আটক ৩ ব্যাংকের টাকা ছিনতাই চেষ্টার দায়ে আটক তিনজন।
জয়পুরহাট থানার ওসি একেএম আলমগীর জাহান জানান, আটক তিনজনকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। আর ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার হওয়া ১৩ লাখ টাকা আদালতের মাধ্যমে এজেন্ট ব্যাংক নিয়ে যেতে পারবে।

জয়পুরহাটে ইসলামী ব্যাংকের এজেন্ট শাখা ব্যবস্থাপকের কাছ থেকে ১৩ লাখ টাকা ছিনতাইয়ের সময় ধারালো অস্ত্রসহ ৩ ছিনতাইকারীকে আটক করেছে পুলিশ। জয়পুরহাট সদর উপজেলার চান্দা ব্রিজ এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়।

সোমবার এক প্রেস ব্রিফিংয়ে জয়পুরহাট থানার ওসি একেএম আলমগীর জাহান এ তথ্য জানিয়েছেন।

আটক ছিনতাইকারীদের মধ্যে ৪০ বছরের জামিউল ইসলাম জেলা শহরের আমতলী এলাকার মৃত মজিবর রহমানের ছেলে, ৩১ বছর বয়সী শামসুজ্জোহা ধানমন্ডি এলাকার রফিকুল ইসলামের ছেলে এবং ৩৪ বছরের সুমন হাজী মাদ্রাসা রোড এলাকার মৃত আফজাল হোসেনের ছেলে।

ওসি আলমগীর জাহান জানান, গত রোববার ইসলামী ব্যাংকের জেলা শাখা থেকে কয়েক লাখ টাকা তুলে জামালগঞ্জের মাহা ট্রেডিং কর্পোরেশনের এজেন্ট ব্যাংকে নেয়া হবে এ কথা এজেন্টের গাড়িচালক সুমন জানতেন। ওই টাকা লুট করতে ছিনতাইকারীদের সঙ্গে পরিকল্পনা করেন তিনি।

রোববার এজেন্ট শাখার ম্যানেজার আবুল হোসেন তার সহকারীকে নিয়ে ব্যাংক থেকে ১৩ লাখ টাকা তুলে মোটরসাইকেলে চড়ে চান্দা ব্রিজ এলাকায় পৌঁছালে পেছন থেকে দুটি মোটরসাইকেলে আসা ৬ জন ধারালো ছুরি দেখিয়ে তাদের পথরোধ করে। এক পর্যায়ে চোখে মরিচের গুড়া ছিটিয়ে টাকাগুলো ছিনতাইয়ের চেষ্টা করে তারা।

এ সময় ভুক্তভোগীরা চিৎকার শুরু করলে পথচারী ও আশপাশের মানুষ দৌড়ে এসে দুজনকে আটকের পর মারধর করে পুলিশে খবর দেয়।

পুলিশ ওই দুজনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদের পর আরও একজনকে আটক করতে সক্ষম হয়। ওই তিনজনকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। আর ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার হওয়া ১৩ লাখ টাকা আদালতের মাধ্যমে এজেন্ট ব্যাংক নিয়ে যেতে পারবে বলেও জানান ওসি।

আরও পড়ুন:
রাজশাহীতে দিনে-দুপুরে ছিনতাই
ইজিবাইক ছিনতাই করতে হত্যা করা হয় চালককে: পুলিশ
ইজিবাইক ‘ছিনিয়ে নিতে’ চালককে হত্যা
‘পাইলট-ঈগল’ মিলে ছিনতাই, টার্গেট রিকশাযাত্রী
ছুরি-চাকুসহ কক্সবাজারে ৪ ‘ছিনতাইকারী’ আটক

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Journalist injured in BCL Chhatra Dal chase in Sylhet

সিলেটে ছাত্রলীগ-ছাত্রদল পাল্টাপাল্টি ধাওয়া, সাংবাদিক আহত

সিলেটে ছাত্রলীগ-ছাত্রদল পাল্টাপাল্টি ধাওয়া, সাংবাদিক আহত সিলেট নগরীর চৌহাট্টায় সোমবার বিকেলে ছাত্রলীগ ও ছাত্রদলের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। ছবি: নিউজবাংলা
কোতোয়ালি থানার ওসি জানান, বিকেলে চৌহাট্টা পয়েন্ট থেকে ছাত্রলীগ ও ছাত্রদল আলাদা বিক্ষোভ মিছিল বের করে। এ সময় দুই পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছে।

সিলেট নগরীর চৌহাট্টায় ছাত্রলীগ ও ছাত্রদলের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এ সময় আহত হয়েছেন মঈন উদ্দিন মঞ্জু নামের এক সাংবাদিক।

সোমবার বিকেলে চৌহাট্টার সরকারি আলিয়া মাদ্রাসায় এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ আলী মাহমুদ জানান, বিকেলে চৌহাট্টা পয়েন্ট থেকে ছাত্রলীগ ও ছাত্রদল আলাদা বিক্ষোভ মিছিল বের করে। এ সময় দুই পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছে।

তিনি বলেন, সংঘর্ষের সময় আলিয়া মাদ্রাসার ভেতরে যান সাংবাদিক মঈন উদ্দিন মঞ্জু। এ সময় কে বা কারা তার ওপরে হামলা চালানো হয়। তিনি গুরুতর আহত করেছেন। তাকে ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ওসি জানান, ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

আহত মঈন ইলেক্ট্রনিক মিডিয়া জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন (ইমজা), সিলেটের সভাপতি।

ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগের সমন্বয়ক ডা. কায়সার খোকন জানান, সাংবিদক মঈন হাত ও পিঠে আঘাত পেয়েছেন।

আরও পড়ুন:
ছাত্রদলের বক্তব্যের প্রতিবাদ ছাত্রলীগের, মারধরের অভিযোগ
চবি ছাত্রলীগ কমিটিতে ‘পদ ভাগাভাগি’ নিয়ে হাতাহাতি-মারধর
ছাত্রলীগের সম্মেলন নিয়ে ‘টালবাহানা’ জয়-লেখকের
ছাত্রলীগকর্মীদের বিরুদ্ধে জোর করে জামা নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ
পরীক্ষার হলে লাইভ করা সেই ছাত্রলীগ নেতা আবারও সরব

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Contact with India to bring back PK IGP

পিকে কে ফেরাতে ভারতের সঙ্গে যোগাযোগ: আইজিপি

পিকে কে ফেরাতে ভারতের সঙ্গে যোগাযোগ: আইজিপি পশ্চিমবঙ্গের উত্তর চব্বিশ পরগনা থেকে গ্রেপ্তার করা হয় পি কে হালদারকে। ছবি: সংগৃহীত
‘মূলত এটি তার (পি কে হালদার) বিরুদ্ধে দুদকের মামলা। আমরা দুদককে সহযোগিতা করছি। ইতোমধ্যে এনসিবির মাধ্যমে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা চলছে। তিনি দেশ থেকে পালিয়ে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে এনসিবির মাধ্যমে গ্রেপ্তারের চেষ্টা করেছিলাম। এখন ভারতের এনসিবির সঙ্গে যোগাযোগ রাখছি আমরা।’

হাজার হাজার কোটি টাকা আত্মসাৎ ও পাচারের অভিযোগে ভারতে গ্রেপ্তার প্রশান্ত কুমার (পি কে) হালদারকে ফিরিয়ে আনতে দেশটির আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সঙ্গে বাংলাদেশ পুলিশ যোগাযোগ রাখছে। ইন্টারপোলের শাখা হিসেবে পরিচিত পুলিশ সদর দপ্তরের ন্যাশনাল সেন্ট্রাল ব্যুরোর (এনসিবি) মাধ্যমে বাংলাদেশ পুলিশ সেই চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন বাহিনীর প্রধান ড. বেনজীর আহমেদ।

রাজধানীর মোহাম্মদপুরে আল মানার হাসপাতালে সোমবার বিকেলে এ তথ্য জানান পুলিশপ্রধান।

এর আগে আল মানার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন পুলিশ কনস্টেবল মো. জনি খানের চিকিৎসার খোঁজ নেন তিনি।

পি কে হালদারকে দেশে ফেরানোর বিষয়ে পুলিশ কোনো উদ্যোগ নিয়েছে কি না সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নে আইজিপি বলেন, ‘মূলত এটি তার (পি কে হালদার) বিরুদ্ধে দুদকের মামলা। আমরা দুদককে সহযোগিতা করছি। ইতোমধ্যে এনসিবির মাধ্যমে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা চলছে। তিনি দেশ থেকে পালিয়ে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে এনসিবির মাধ্যমে গ্রেপ্তারের চেষ্টা করেছিলাম। এখন ভারতের এনসিবির সঙ্গে যোগাযোগ রাখছি আমরা।’

গত ১৪ মে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের উত্তর চব্বিশ পরগনা থেকে গ্রেপ্তার করা হয় তাকে।

পিকে কে ফেরাতে ভারতের সঙ্গে যোগাযোগ: আইজিপি
হাসপাতালে চিকিৎসাধীন কনস্টেবল জনি খানকে দেখতে যান আইজিপি। ছবি: সংগৃহীত

কনস্টেবল মো. জনি খানের চিকিৎসার খোঁজ নেয়া শেষে আইজপি বলেন, ‘পুলিশ দেশ ও জনগণকে নিরাপদ রাখতে সর্বোচ্চ ঝুঁকি নিয়ে দায়িত্ব পালন করে। দায়িত্ব পালনকালে সতর্কতা অবলম্বন করা সত্ত্বেও অনেক সময় দুর্ঘটনা ঘটে যায়। প্রতি বছর দায়িত্ব পালনকালে এ ধরনের দুর্ঘটনায় আমরা অনেক সহকর্মীকে হারাই।’

জনি খানের কবজি বিচ্ছিন্ন হওয়ার পর প্রায় নয় ঘণ্টা অপারেশন করে চিকিৎসকরা তা সফলভাবে প্রতিস্থাপন করতে সক্ষম হন। তিনি এ ধরনের জটিল অপারেশন পরিচালনাকারী চিকিৎসক, নার্স, কর্মকর্তা-কর্মচারী, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানান।

গত ১৫ মে সকালে চট্টগ্রাম জেলার লোহাগড়া থানার পদুয়া লালারখিল গ্রামে এজাহারভুক্ত আসামি গ্রেপ্তার করতে গেলে আসামির দায়ের কোপে কনস্টেবল জনি খানের হাতের কবজি বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

আরও পড়ুন:
বাংলাদেশের পি কে হালদার, ভারতের নীরব মোদি
পি কেকে ফেরাতে পশ্চিমবঙ্গে যাবে কমিটি
পি কে হালদারকে ফেরত চেয়ে ইন্টারপোলে আবার চিঠি দুদকের
পি কে হালদারের নামে আরেক মামলা দুদকের
পি কে হালদারকে ফেরাতে দুদকের কমিটি

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Rape case in boyfriends name after suicide threat

আত্মহত্যার হুমকির পর প্রেমিকের নামে ধর্ষণের মামলা

আত্মহত্যার হুমকির পর প্রেমিকের নামে ধর্ষণের মামলা
মামলার বরাত দিয়ে পরিদর্শক জহিরুল জানান, দেলোয়ারের সঙ্গে বাদীর প্রেমের সম্পর্ক চলছে ১৩ বছর ধরে। বিয়ের আশ্বাস দেয়ায় তার সঙ্গে বাদীর একাধিকবার শারীরিক সম্পর্ক হয়। হঠাৎ বাদী জানতে পারেন আগামী বৃহস্পতিবার পারিবারের পছন্দে দেলোয়ার অন্য কাউকে বিয়ে করছেন।

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে বিয়ের দাবিতে এক যুবকের বাড়িতে অবস্থান নেয়া তরুণী ওই যুবকের নামে ধর্ষণের মামলা করেছেন।

ঈশ্বরগঞ্জ থানায় সোমবার দুপুরে তিনি ওই মামলা করেন বলে জানান থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জহিরুল ইসলাম মুন্না।

এর আগে শনিবার রাত ৮টা থেকে উপজেলার উচাখিলা ইউনিয়নের চরআলগী গ্রামে দেলোয়ার হোসেন নামে ওই যুবকের বাড়ির সামনে অবস্থান নেন ওই তরুণী। দেলোয়ার তাকে বিয়ে না করলে আত্মহত্যা করবেন বলেও হুমকি দেন। তবে বাড়িতে নেই দেলোয়ার।

মামলার বরাত দিয়ে পরিদর্শক জহিরুল জানান, দেলোয়ারের সঙ্গে বাদীর প্রেমের সম্পর্ক চলছে ১৩ বছর ধরে। বিয়ের আশ্বাস দেয়ায় তার সঙ্গে বাদীর একাধিকবার শারীরিক সম্পর্ক হয়। হঠাৎ বাদী জানতে পারেন আগামী বৃহস্পতিবার পারিবারের পছন্দে দেলোয়ার অন্য কাউকে বিয়ে করছেন।

এ কারণে তিনি বিয়ের দাবিতে দেলোয়ারের বাড়িতে অবস্থান নেন।

সোমবার সন্ধ্যায় মেয়ের বড় ভাই নিউজবাংলাকে বলেন, ‘আমার পরামর্শে বোন অনশন ভেঙেছে। তাকে বিয়ে না করলে আত্মহত্যা করবে বলে জানিয়েছে। এখন সে ধর্ষণ মামলা করে আইনের আশ্রয় নিয়েছে।’

থানার ওসি পীরজাদা শেখ মোহাম্মদ মোস্তাছিনুর রহমান বলেন, ‘মামলার পর তরুণীর ফরেনসিক পরীক্ষার জন্য ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আসামির বাড়িতে পুলিশ পাঠিয়ে তাকে পাওয়া যায়নি। তথ্য-প্রযুক্তির সহায়তায় তাকে গ্রেপ্তার করতে চেষ্টা চলছে।’

আরও পড়ুন:
‘নিষিদ্ধ প্রেম’ এক দশক পর শেষ হলো মৃত্যুতে
জোর করে বিয়ে গড়াল তরুণ-তরুণীর বিষ পানে
স্ত্রী-সন্তান রেখে ছাত্রীকে নিয়ে পালালেন শিক্ষক
বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান নেয়া তরুণী কারাগারে
বিয়ের দাবিতে অবস্থান, তরুণীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে আদালতের নির্দেশ

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
The fire at Thamal Square Pharma lasted for 6 hours

৭ ঘণ্টা পুড়িয়ে থামল স্কয়ার ফার্মার আগুন

৭ ঘণ্টা পুড়িয়ে থামল স্কয়ার ফার্মার আগুন
ফায়ার সার্ভিসের উপপরিচালক (ঢাকা বিভাগ) দিনমনি শর্মা জানান, সোমবার সাড়ে ৭টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। তবে এখন পর্যন্ত হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি।

ফায়ার সার্ভিসের ১৯টি ইউনিটের সাত ঘণ্টার চেষ্টায় গাজীপুরের স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যাল কারখানার আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে।

ফায়ার সার্ভিসের উপপরিচালক (ঢাকা বিভাগ) দিনমনি শর্মা নিউজবাংলাকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, সোমবার সাড়ে ৭টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। তবে এখন পর্যন্ত হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি।

এর আগে দুপুর ১২টার দিকে কারখানার লার্জ ভলিউম প্যারেন্টাল ইউনিটে আগুন লাগে।

কালিয়াকৈর ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন মাস্টার সাইফুল ইসলাম নিউজবাংলাকে জানান, প্রথমে কালিয়াকৈর ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ও মির্জাপুরের একটি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ শুরু করে।

আগুন বাড়তে থাকলে কালিয়াকৈর থেকে আরও একটি, মির্জাপুর থেকে একটি, টাঙ্গাইলের সখিপুর থেকে দুটি, সাভার ইপিজেড থেকে দুটি, জয়দেবপুরের দুটি ও ফায়ার সার্ভিসের হেডকোয়ার্টার থেকে দুটি ইউনিট এসে যোগ দেয়।

স্টেশন মাস্টার বলেন, ‘কারখানার নিচতলা, দ্বিতীয় তলা, তৃতীয় তলাসহ প্রতিটি ফ্লোরে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। যে ভবনটিতে আগুন লাগে সেখানে ওষুধ তৈরির নানা কেমিক্যাল ও দাহ্য পদার্থ রয়েছে। যে কারণে আগুন নিয়ন্ত্রণে বেগ পেতে হয়।’

এ ঘটনার তথ্য ও ছবি সংগ্রহে কারখানা এলাকায় সংবাদকর্মীদের বাধা দেয়ার অভিযোগ উঠেছে।

চ্যানেল-২৪-এর গাজীপুর প্রতিনিধি রফিক খান নিউজবাংলাকে বলেন, ‘আগুন লাগার পরপরই ঘটনাস্থলে ছুটে আসি। তবে কারখানার গেট দিয়ে ভেতরে ঢুকতে দেয়া হয়নি। পাশের সিমেন্ট কারখানা থেকে অনেক কষ্টে ফুটজ ও ছবি সংগ্রহ করছি।

তবে এই অভিযোগের বিষয়ে কারখানার নিরাপত্তাসংশ্লিষ্ট কেউ কথা বলতে চাননি।

আরও পড়ুন:
৭ ঘণ্টা ধরে পুড়ছে স্কয়ার ফার্মা
কালিয়াকৈরে আগুনে পুড়ছে স্কয়ার ফার্মা
১ ঘণ্টা পুড়িয়ে থামল পোলট্রি ফিডের দোকানের আগুন
পোল্ট্রি ফিডের দোকানে আগুন
গ্যাসের লিকেজের আগুনে দগ্ধ আনোয়ারের মৃত্যু

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Square Pharma has been burning for 8 hours

৭ ঘণ্টা ধরে পুড়ছে স্কয়ার ফার্মা

৭ ঘণ্টা ধরে পুড়ছে স্কয়ার ফার্মা
স্টেশন মাস্টার বলেন, ‘কারখানার নিচতলা, দ্বিতীয় তলা, তৃতীয় তলাসহ প্রতিটি ফ্লোরেই আগুন ছড়িয়েছে। যে ভবনটিতে আগুন লেগেছে সেখানে ওষুধ তৈরির নানা কেমিক্যাল ও দাহ্য পদার্থ রয়েছে। যে কারণে আগুন নিয়ন্ত্রণে বেগ পেতে হচ্ছে। তবে এখনও হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি।’

সাত ঘণ্টা ধরে জ্বলছে গাজীপুরের স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড কারখানার আগুন। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ফায়ার সার্ভিসের ১৪টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে।

কারখানার লার্জ ভলিউম প্যারেন্টাল ইউনিটে সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে আগুন লাগে।

কালিয়াকৈর ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন মাস্টার সাইফুল ইসলাম নিউজবাংলাকে জানান, প্রথমে কালিয়াকৈর ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ও মির্জাপুরের একটি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ শুরু করে।

আগুন বাড়তে থাকলে কালিয়াকৈর থেকে আরও একটি, মির্জাপুর থেকে একটি, টাঙ্গাইলের সখিপুর থেকে দুটি, সাভার ইপিজেড থেকে দুটি, জয়দেবপুরের দুটি ও ফায়ার সার্ভিসের হেডকোয়ার্টার থেকে দুটি ইউনিট এসে যোগ দেয়।

স্টেশন মাস্টার বলেন, ‘কারখানার নিচতলা, দ্বিতীয় তলা, তৃতীয় তলাসহ প্রতিটি ফ্লোরেই আগুন ছড়িয়েছে। যে ভবনটিতে আগুন লেগেছে সেখানে ওষুধ তৈরির নানা কেমিক্যাল ও দাহ্য পদার্থ রয়েছে। যে কারণে আগুন নিয়ন্ত্রণে বেগ পেতে হচ্ছে। তবে এখনও হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি।’


৭ ঘণ্টা ধরে পুড়ছে স্কয়ার ফার্মা


এ ঘটনার তথ্য ও ছবি সংগ্রহে কারখানা এলাকায় সংবাদকর্মীদের বাধা দেয়ার অভিযোগ উঠেছে।

চ্যানেল-২৪-এর গাজীপুর প্রতিনিধি রফিক খান নিউজবাংলাকে বলেন, ‘আগুন লাগার পরপরই ঘটনাস্থলে ছুটে আসি। তবে কারখানার গেট দিয়ে ভেতরে ঢুকতে দেয়া হয়নি। পাশের সিমেন্ট কারখানা থেকে অনেক কষ্টে ফুটজ ও ছবি সংগ্রহ করছি।’

তবে এই অভিযোগের বিষয়ে কারখানার নিরাপত্তাসংশ্লিষ্ট কেউ কথা বলতে চাননি।

আরও পড়ুন:
২ ঘণ্টায় নিয়ন্ত্রণে পোশাক কারখানার গুদামের আগুন
আগুনে পুড়ছে চট্টগ্রাম ইপিজেডের পাশের এলাকা
পোশাক কারখানার গুদামে আগুন
আগুনে পুড়ল ‘শতাধিক’ দোকান
আগুনে পুড়ল কাশিয়ানী নির্বাচন অফিস

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Mask fraud Former Delta administrator jailed

মাস্ক কেনায় জালিয়াতি: ডেল্টার সাবেক প্রশাসক কারাগারে

মাস্ক কেনায় জালিয়াতি: ডেল্টার সাবেক প্রশাসক কারাগারে
ডেলটা লাইফ ইনস্যুরেন্স কোম্পানির নিউ পারচেজ অ্যান্ড প্রকিউরমেন্ট অ্যান্ড গেমেন্ট-এর বিধি অনুযায়ী ৮ লাখ টাকার ওপরে কোনো কিছু কিনতে হলে পরিচালনা পর্ষদের অনুমোদন প্রয়োজন হয়। জাতীয় পত্রিকায় দরপত্র বিজ্ঞপ্তিও প্রকাশ করতে হয়। কিন্তু সাবেক প্রশাসক সুলতান-উল-আবেদীন মোল্লা এর কোনোটিই না করে নিকটাত্মীয়কে কাজটা পাইয়ে দেন। এতে কোম্পানির পলিসিহোল্ডার ও শেয়ারহোল্ডারদের ক্ষতি হলেও তারা নিজেরা লাভবান হন বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়।

ডেল্টা লাইফ ইনস্যুরেন্স কোম্পানিতে মাস্ক কেনা সংক্রান্ত জালিয়াতির মামলায় প্রশাসক সুলতান-উল-আবেদীন মোল্লাকে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত।

সোমবার আসামির করা জামিন আবেদন নাকচ করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন ঢাকার অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আবু বকর সিদ্দিক।

মামলার অন্য আসামি ডেলটা লাইফের ডিএমডি ও সিওও মনজুরে মাওলা, ইভিপি কামরুল হক, ইভিপি এম হাফিজুর রহমান খানের বিরুদ্ধে জারি হয়েছে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা। সমন জারি হলেও তারা আদালতে হাজির হননি।

মাস্ক কেনায় দুর্নীতি অভিযোগ এনে মহানগর মুখ্য হাকিমের আদালতে ডেল্টা লাইফ ইন্সুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের পরিচালক এবং অডিট কমিটির সদস্য জেয়াদ রহমান মামলাটি করেন। শুনানি শেষে আদালত তা তদন্ত করে প্রতিবেদন জমা দিতে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) কাছে পাঠায়।

বাদীপক্ষের আইনজীবী রমজান আলী সরদার বিষয়টি নিউজবাংলাকে নিশ্চিত করেছেন।

মামলার এজাহারে বলা হয়, ডিএমডি ও সিওও মনজুরে মাওলা, ইভিপি কামারুল হকের অনুমোদনে ২ লাখ ১৫ হাজার পিস মাস্ক ১ কোটি ৭ লক্ষ ৫০ হাজার টাকায় কেনার অনুমোদন দেয়া হয়। প্রতিটির মূল্য ধরা হয় ৫০ টাকা। যা ওই সময়ের বাজারমূল্য অপেক্ষা অনেক বেশি।

ফেসবুকভিত্তিক প্রতিষ্ঠান লাজিম মিডিয়াকে কার্যাদেশ দিয়ে ৫০ লাখ টাকা অগ্রিম পরিশোধ করা হয়। ক্রয় আদেশের ২ লাখ ১৫ হাজার পিস মাস্কের মধ্যে বিভিন্ন জোনাল অফিসে ১৯ হাজার মাস্ক বিতরণ করা হয়। বাকি ১ লাখ ৯৬ হাজার মাস্কের কোনো হদিস পাওয়া যায়নি।

ডেলটা লাইফ ইনস্যুরেন্স কোম্পানির নিউ পারচেজ অ্যান্ড প্রকিউরমেন্ট অ্যান্ড গেমেন্ট-এর বিধি অনুযায়ী ৮ লাখ টাকার ওপরে কোনো কিছু কিনতে হলে পরিচালনা পর্ষদের অনুমোদন প্রয়োজন হয়। জাতীয় পত্রিকায় দরপত্র বিজ্ঞপ্তিও প্রকাশ করতে হয়।

কিন্তু সাবেক প্রশাসক সুলতান-উল-আবেদীন মোল্লা এর কোনোটিই না করে নিকটাত্মীয়কে কাজটা পাইয়ে দেন। এতে কোম্পানির পলিসিহোল্ডার ও শেয়ারহোল্ডারদের ক্ষতি হলেও তারা নিজেরা লাভবান হন বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়।

পিবিআইয়ের তদন্তেও ঘটনার সত্যতা উঠে আসে। আদালত প্রতিবেদন আমলে নিয়ে গত ২৭ ফেব্রুয়ারি আসামিদের বিরুদ্ধে সমন জারি করে।

আরও পড়ুন:
ডেল্টা লাইফে জটিলতা: বিপুল আইনি খরচ
স্থগিত থাকছে ডেল্টা লাইফে প্রশাসক নিয়োগ অবৈধ ঘোষণার রায়
ডেল্টা লাইফের মুখ্য নির্বাহী আনোয়ারুল হক
৫ হাজার গ্রাহকের অর্থ ফেরত দিচ্ছেন ইলন মাস্ক
ঘন ঘন সন্তান নেয়ার পরামর্শ ইলন মাস্কের

মন্তব্য

p
উপরে