তেজস্ক্রিয় পানি সাগরে ফেলা নিয়ে বিরোধে জাপান

তেজস্ক্রিয় পানি সাগরে ফেলা নিয়ে বিরোধে জাপান

ফুকুশিমা পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের ১০ লাখ টন তেজস্ক্রিয় পানি সাগরে ফেলতে চায় জাপান। বিরোধিতা করছে প্রতিবেশী দেশগুলো।

সাগরে তেজস্ক্রিয় পানি নিষ্কাশনের সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রতিবেশী দেশগুলোর সঙ্গে বিরোধে জড়িয়ে পড়েছে জাপান। সুনামিতে বিধ্বস্ত ফুকুশিমা পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ১০ লাখ টনের বেশি দূষিত পানি সাগরে ছেড়ে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে জাপান।

এই পানির পরিমাণ এতো বিপুল যে তা দিয়ে অলিম্পিকের উপযোগী ৫ হাজার সুইমিং পুল ভরিয়ে ফেলা যাবে।

এতে আপত্তি জানিয়েছে দেশটির সবচেয়ে বড় প্রতিবেশী চীন। শুধু তাই না, জাপানের আঞ্চলিক বন্ধু ও মিত্র হিসেবে পরিচিত দক্ষিণ কোরিয়া ও তাইওয়ানও এর বিরোধিতা করছে।

জাপান বলছে, এই পানিতে থাকা তেজস্ক্রিয়তা শোধন করে এমনভাবে তা সাধারণ পানির সঙ্গে মিশিয়ে দেয়া হয়েছে, যে তাতে থাকা দূষণের মাত্রা সুপেয় পানির পর্যায়ে নামিয়ে আনা হয়েছে।

তবে স্থানীয় মৎস্য শিল্পের সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা এ উদ্যোগের ঘোর বিরোধিতা করছে।

কয়েক বছর ধরে তুমুল বিতর্কের পর অবশেষে এই পানি সাগরে ছেড়ে দেয়ার সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করেছে জাপান।

২০১১ সালে ভূমিকম্প এবং তার ধাক্কায় সৃষ্ট সুনামির আঘাতে জাপানের ফুকুশিমা পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের চুল্লিগুলো ক্ষতিগ্রস্ত হয়। সুমামির ধাক্কায় চুল্লিগুলির শীতলায়ন ব্যবস্থা বিধ্বস্ত হলে তিনটি চুল্লি অতিরিক্ত তাপে গলে যায়।

এইসব গলিত চুল্লি ঠাণ্ডা করতে ১০ লাখ টনের বেশি পানি ব্যবহার করা হয়। তেজস্ক্রিয় এই পানি কোথায় রাখা হবে, এ নিয়ে বিপাকে পড়ে জাপান।

বর্তমানে এই পানি একটি জটিল প্রক্রিয়ায় পরিশোধন করে এর তেজস্ক্রিয় উপকরণ সরিয়ে ফেলা হচ্ছে। তবু পানিতে কিছু পরিমাণে তেজস্ক্রিয় উপকরণ, বিশেষ করে ট্রিশিয়াম কণা থেকে যায়, যা বেশি পরিমাণে শরীরে গেলে অত্যন্ত ক্ষতিকর বলে মনে করা হয়।

পরিশোধনের পর এই পানি রাখা হয় বিশাল বিশাল ট্যাংকে। ফুকুশিমা বিদ্যুত কেন্দ্র পরিচালনাকারী প্রতিষ্ঠান টোকিও ইলেকট্রিক পাওয়ার কোম্পানি (টেপকো) বলছে, এসব পানি রাখার জায়গা ফুরিয়ে আসছে। ২০২২ সাল নাগাদ তাদের পক্ষে এ পানি রাখার মতো আর জায়গা থাকবে না।

এ পানি সাগরে ছেড়ে দেয়ার প্রস্তাবের বিরোধিতা করে আসছে গ্রিনপিসসহ বিভিন্ন পরিবেশবাদি গ্রুপ দীর্ঘ দিন ধরে।

গ্রিনপিস বলেছে, জাপানের এ পরিকল্পনা প্রমাণ করছে, দেশটির সরকার ‘ফুকুশিমার মানুষকে আবারও হতাশ করল।’

জাপানের মৎস্য শিল্পের সঙ্গে জড়িতরাও এ উদ্যোগের বিরুদ্ধে। তারা বলছে, তেজস্ক্রিয়তার আশঙ্কায় তাদের কাছ থেকে ভোক্তারা পণ্য কিনতে রাজি হবে না।

এ সিদ্ধান্তের কথা জানার পর দক্ষিণ কোরিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ‘গভীর উদ্বেগ’ প্রকাশ করেছেন। চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ঝাও লিজান ‘দায়িত্বশীল’ আচরণ করতে আহ্বান জানিয়েছেন জাপান সরকারের প্রতি।

তবে যুক্তরাষ্ট্র এ ক্ষেত্রে জাপানের পক্ষে অবস্থান নিয়ে বলেছে, তাদের মনে হচ্ছে পারমাণবিক নিরাপত্তার বৈশ্বিকভাবে স্বীকৃত মান অনুসরণ করেই এ উদ্যোগ নেয়া হয়েছে বলে তাদের মনে হচ্ছে।

শেয়ার করুন

মন্তব্য

করোনায় ভারতে ঘণ্টায় মৃত্যু ১৫০

করোনায় ভারতে ঘণ্টায় মৃত্যু ১৫০

গত টানা ১০ দিন তিন হাজারের বেশি করোনাজনিত মৃত্যু দেখেছে দক্ষিণ এশিয়ার বৃহত্তম দেশটি। এই সময়ে মোট মৃতের সংখ্যা দাড়িয়েছে ৩৬ হাজার ১১০ জন, যার অর্থ প্রতি ঘণ্টায় সংখ্যা ১৫০ জনের বেশি।

করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ে খেই হারা ভারত। কোনোভাবেই পরিস্থিতি সামাল দেয়া যাচ্ছে না। প্রায় প্রতিদিনই হচ্ছে শনাক্ত-মৃত্যুর রেকর্ড। দেশটিতে করোনা আক্রান্তদের মধ্যে গত ১০ দিন ধরে প্রতি ঘণ্টায় গড়ে ১৫০ জনের মৃত্যু হয়েছে।

টাইমস অফ ইন্ডিয়ার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে। এতে বলা হয়, ২৪ ঘণ্টার হিসাবে বৃহস্পতিবার ভারত করোনা শনাক্তে নতুন রেকর্ড হয়েছে। এই সময়ে ৪ লাখ ১৪ হাজারের বেশি মানুষের শরীরে সংক্রমণ ধরা পড়েছে। মৃত্যু হয়েছে আরও ৩ হাজার ৯২৭ জনের।

টানা ১০ দিন তিন হাজারের বেশি করোনাজনিত মৃত্যু দেখেছে দক্ষিণ এশিয়ার বৃহত্তম দেশটি। এই সময়ে মোট মৃতের সংখ্যা দাড়িয়েছে ৩৬ হাজার ১১০ জন, যার অর্থ প্রতি ঘণ্টায় সংখ্যা ১৫০ জনের বেশি।

করোনায় ১০ দিনের হিসাবে এতবেশি মৃত্যু দেখেনি আর কোনো দেশ। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হিসাব বলছে ১০ দিনের ব্যবধানে সবচেয়ে বেশি মৃত্যুতে ভারতের ঠিক পরেই রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র, ৩৪ হাজার ৭৯৮ জন। এরপর ব্রাজিল, ৩২ হাজার ৬৯২ জন। এই তালিকায় থাকা পরের দুই দেশ মেক্সিকো, ১৩ হাজার ৮৯৭ জন এবং যুক্তরাজ্য ১৩ হাজার ২৬৬ জন।

করোনা সম্পরর্কীত সরকারি হিসাব তুলে ধরে টাইমস অফ ইন্ডিয়া জানিয়েছে, ভারত চার লাখের বেশি শনাক্ত দেখেছে টানা দুই দিন। বৃহস্পতিবার সংক্রমণ ৪ লাখ ১৪ হাজার ৫৫৪ জনের শরীরে; বুধবার সংক্রমণ ধরা পড়ে ৪ লাখ ১২ হাজার ৭৮৪ জনের শরীরে।

করোনাজনিত কারণে বৃহস্পতিবার ১০০ এর বেশি মৃত্যু দেখেছে ১৩টি রাজ্য। এর মধ্যে ছয়টি রাজ্যে হয়েছে মৃত্যুর রেকর্ড। জনসংখ্যার হিসাবে ১৩ রাজ্যের মধ্যে সবচেয়ে ছোট রাজ্য উত্তরাখন্ড।

করোনার মধ্যেই এই রাজ্যে হয়েছে কুম্ব মেলা। বৃহস্পতিবার রাজ্যটিতে ১৫১ জনের মৃত্যু হয়েছে, সর্বোচ্চ মৃত্যুর তালিকায় দশম।

করোনায় মৃত্যুতে রেকর্ড গড়েই যাচ্ছে মহারাষ্ট্র। ২৪ ঘণ্টার হিসাবে বৃহস্পতিবার রাজ্যটিতে মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়ায় ৮৫৩ জনে। এ ছাড়া, ৩০০ এর বেশি মৃত্যুর খবর দেয় উক্তর প্রদেশ, দিল্লি ও কর্ণাটক। আর ২০০ এর বেশি মৃত্যু হয়েছে চত্তিশগরে।

এ ছাড়া একশোর বেশি মৃত্যু হওয়া রাজ্যগুলো হলো- তামিলনাড়ু, হরিয়ানা, রাজস্থান, পাঞ্জাব, উত্তরাখন্ড, ঝাড়খন্ড, গুজরাট ও পশ্চিমবঙ্গ। একদিনের হিসাবে রেকর্ড মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে তামিলনাডু (১৯৫), রাজস্থান (১৬১), পশ্চিমবঙ্গ (১১৭), কেরালা (৬৩) ও জম্মু-কাশ্মীরে (৫২)।

শেয়ার করুন

ভালুক নিয়ে ভোটের প্রচারে

ভালুক নিয়ে ভোটের প্রচারে

গর্ভনর প্রার্থী হতে প্রচারের সময় ভালুক নিয়ে হাজির জন কক্স। ছবি: এএফপি

কক্সের প্রচারের পুরোটা সময় খুব শান্ত অবস্থায় বসে থেকে ‘বক্তব্য শুনেছে’ ট্যাগ নামের ভালুকটি। সেখানে জনসম্মুখেই তাকে নাস্তা করায় তার প্রশিক্ষক।

দলের পতাকায় প্রতীক হিসেবে স্থান পেয়েছে ভালুক। তবে প্রচারের মাঠে জ্যান্ত ভালুক নিয়ে হাজির হবেন কেউ এটা কল্পনা করাও একটু কঠিনই। তবে এমনই হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ায়।

ক্যালিফোর্নিয়ার গভর্নর হিসেবে ভোটের লড়াই শুরু হতে যাচ্ছে। তার আগে চলছে প্রার্থী নির্বাচনের কাজ। আর প্রার্থী হতে অনেকেই চালাচ্ছেন নানা ধরনের প্রচার।

সেই নির্বাচনে রিপাবলিকান প্রার্থী হতে জন কক্স নামের এক রাজনীতিবিদ প্রচারের সময় ৫০০ কেজি ওজনের এক ভালুক নিয়ে র‍্যালিতে অংশ নেন।

‘বিউটি অ্যান্ড দ্য বিস্ট’ স্লোগানে জন কক্স প্রচার শুরু করেছেন। ক্যালিফোর্নিয়া হলিউডের রাজ্য হিসেবেও পরিচিত। তবে জন কক্স লোকজনের কাছে খুব বেশি পরিচিত মুখ নন।

রাজ্যেটির বর্তমান গভর্নর ডেমোক্র্যাট দলের ডেভিড নিউজম। তিনি সমাধিক পরিচিতও বটে।

কক্স রাজ্যটির বাসিন্দাদের বিভিন্ন আশ্বাস ও প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন তাকে নির্বাচিত করতে সমর্থন আদায়ের চেষ্টায়।

এরপরই তিনি নতুন এক জনসভায় হাজির হয়েছেন কোডিয়াক ভালুক নিয়ে। এটি আরসিন প্রজাতির ভালুক, যা খুব বড় হয়।

ভালুকটির নাম ট্যাগ। তাকে অবশ্য বিশেষভাবে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে সিনেমা, টিভি সিরিজ ও বিভিন্ন অনুষ্ঠানে অভিনয়ের জন্য।

কক্সের প্রচারের পুরোটা সময় খুব শান্ত অবস্থায় বসে থেকে ‘বক্তব্য শুনেছে’ ট্যাগ। সেখানে জনসম্মুখেই তাকে নাস্তা করায় তার প্রশিক্ষক।

অবশ্য এমন কর্মকাণ্ডের জন্য এরই মধ্যে সমালোচিত হতে শুরু করেছেন জন কক্স। বিভিন্ন প্রাণী অধিকার সুরক্ষা সংস্থাগুলো কক্সের বিরুদ্ধে আইন অমান্যের অভিযোগ এনেছেন।

প্রাণীদের অধিকার সুরক্ষার সংগঠন পিপলস ফল দ্য এথিক্যাল ট্রিটমেন্টস অফ অ্যানিমেলস (পিআইটিএ) বলছে, ‘এভাবে একজন রাজনীতিকের কোডিয়াক ভালুক ব্যবহার করা খুবই দুর্ভাগ্যজনক ও লজ্জাজনক।’

বন্যপ্রাণীকে এসব প্রচারকাজ থেকে দূরে রাখার আহ্বান জানিয়ে সংগঠনটি এক টুইটে রাজনীতিবিদদের আহ্বান জানান।

মূলত ক্যালিফোর্নিয়ার গভর্নর করোনা মহামারি মোকাবিলায় ব্যর্থতার পরিচয় দেয়ায় চাপে পড়ে চলতি বছরের শেষ দিকে নির্বাচন দিতে বাধ্য হয়েছেন।

শেয়ার করুন

সৌদি আরবে উড়াল দিচ্ছেন ইমরান খান

সৌদি আরবে উড়াল দিচ্ছেন ইমরান খান

সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান ও পাকিস্তান প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান- ফাইল ছবি

ইমরান খানের নেতৃত্বে পাকিস্তান প্রতিনিধি দলের এই সফরকে খুব গুরুত্বের সঙ্গে দেখা হচ্ছে। এই সফরে দুই দেশের মধ্যে অর্থনীতি, ব্যবসা-বাণিজ্য, বিনিয়োগ, জ্বালানি, সৌদি আরবে পাকিস্তানিদের কর্মক্ষেত্রসহ বিভিন্ন বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ কিছু চুক্তি ও সমঝোতা স্বাক্ষরের কথা রয়েছে। আলোচনা হবে আঞ্চলিক ও বৈশ্বিক ইস্যু নিয়েও।

যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের আমন্ত্রণে তিন দিনের জন্য সৌদি আরব সফরে যাচ্ছেন পাকিস্তান প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। এই সফরে সঙ্গে থাকছেন পররাষ্ট্র মন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশিও।

উচ্চ পর্যায়ের এই সফরে রয়েছেন পাকিস্তানের সেনাপ্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়াও। স্থানীয় সময় শুক্রবার ভোরের দিকে সৌদি আরবে পৌঁছে গিয়েছেন তিনি।

ইমরান খানের নেতৃত্বে পাকিস্তান প্রতিনিধি দলের এই সফরকে খুব গুরুত্বের সঙ্গে দেখা হচ্ছে। এই সফরে দুই দেশের মধ্যে অর্থনীতি, ব্যবসা-বাণিজ্য, বিনিয়োগ, জ্বালানি, সৌদি আরবে পাকিস্তানিদের কর্মক্ষেত্রসহ বিভিন্ন বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ কিছু চুক্তি ও সমঝোতা স্বাক্ষরের কথা রয়েছে।

এ বিষয়ে পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের এই সফরে আঞ্চলিক ও বৈশ্বিক রাজনীতিতে দুই দেশের স্বার্থ সম্পর্কীত বিষয়গুলো নিয়েও আলোচনা হবে।

সফরের অংশ হিসেবে ইসলামী সহযোগিতা সংস্থার (ওআইসি) মহাসচিব ড. ইউসেফ আল-ওথাইমিন, ওয়ার্ল্ড মুসলিম লিগের মহাসচিব মোহাম্মদ বিন আব্দুলকরিম আল-ইসা এবং পবিত্র মক্কা ও মদিনার দুই ইমামের সঙ্গে সাক্ষাতের কথা রয়েছে পাকিস্তান প্রধানমন্ত্রীর।

সৌদি আরবে ২০ লাখের বেশি পাকিস্তানির বসবাস। তাদের সঙ্গে জেদ্দায় এক অনুষ্ঠানে মিলিত হওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে ইমরান খানের সফর সূচিতে।

সৌদি আরব ও পাকিস্তানের কূটনীতিক সম্পর্ক অনেক পূরাতন হলেও সাম্প্রতিক বছরগুলোতে এই সম্পর্কে টানাপোড়েন তৈরি হয়েছিল। পাকিস্তানকে এড়িয়ে অনেকটা ভারতঘেঁষা হয়ে পড়ছিল মধ্যপ্রাচ্যের প্রভাবশালী দেশটি।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডনাল্ড ট্রাম্পকে হারিয়ে জো বাইডেন ক্ষমতায় আসার পর থেকে পাকিস্তান-সৌদি সম্পর্কও ফের উষ্ণতার দিকে মোড় নেয়। মান অভিমান ভেঙে গত মার্চে ইমরান খানকে ফোন করেন সৌদির ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান।

ওই সময় করোনায় আক্রান্ত ইমরানের দ্রুত আরোগ্য কামনা করেন বিন সালমান। পাকিস্তান প্রধানমন্ত্রীও সৌদি যুবরাজের সুস্বাস্থ্য কামনা করেন।

সৌদি আরব ও মধ্যপ্রাচ্যে সবুজায়নের লক্ষ্যে ‘সৌদি গ্রিন ইনিশিয়েটিভ’ ও ‘গ্রিন মিডল ইস্ট ইনিশিয়েটিভ’ উদ্যোগের উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করে বিন সালমানকে চিঠি লেখেন পাকিস্তান প্রধানমন্ত্রী। চিঠিতে বিন সালমানকে ‘ভাই’ সম্বোধন করেন ইমরান খান।

আঞ্চলিক সহযোগিতা ও বৈশ্বিক ইস্যুতে পাকিস্তান-সৌদির আরবের ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক মুসলিম বিশ্বের জন্যও গুরুত্ব বহন করে আসছে যুগ যুগ ধরে। এ ছাড়া, সৌদি আরব ওআইসির জম্মু ও কাশ্মীর গ্রুপের সদস্য।

শেয়ার করুন

লকডাউনে যাচ্ছে রাজস্থান

লকডাউনে যাচ্ছে রাজস্থান

এই সময়ে বন্ধ থাকবে গাড়ি চলাচল। জন সমাগম হয় এমন ধরনের কোনো আয়োজন করা যাবে না। আয়োজন করে বিয়েশাদী বন্ধ থাকবে ৩১ মে পর্যন্ত। তবে আদালতে বা ঘরোয়া পরিবেশে সর্বোচ্চ ১১ জনের উপস্থিতিতে বিয়ের আয়োজন করা যাবে।

করোনাভাইরাসের দ্রুত বিস্তার রোধে লকডাউনে যাচ্ছে ভারতের রাজস্থান। ১০ মে থেকে এই লকডাউন কার্যকর করতে যাচ্ছে রাজ্য সরকার। চলবে ২৪ মে পর্যন্ত।

নির্দেশনা অনুযায়ী, এই সময়ে বন্ধ থাকবে গাড়ি চলাচল। জন সমাগম হয় এমন ধরনের কোনো আয়োজন করা যাবে না। আয়োজন করে বিয়েশাদী বন্ধ থাকবে ৩১ মে পর্যন্ত। তবে আদালতে বা ঘরোয়া পরিবেশে সর্বোচ্চ ১১ জনের উপস্থিতিতে বিয়ের আয়োজন করা যাবে।

গ্রাম অঞ্চলেও করোনা ছড়িয়ে পড়ায় সামাজিক সুরক্ষার আওতায় থাকা প্রকল্পগুলোর সব ধরনের কার্যক্রম স্থগিত থাকবে। বন্ধ রাখা হবে ধর্মীয় উপাসনালয়গুলো। লকডাউনের সময়টায় বাড়িতে থেকে ধর্মীয় আচার পালনে অনুরোধ করা হয়েছে।

করোনায় আক্রান্ত রোগীদের সেবা দিতে স্বাস্থ্য বিভাগ আলাদা নির্দেশনা দেবে বলে রাজস্থান রাজ্য সরকার থেকে বলা হয়েছে।

করোনার বিস্তার রোধে একই ধরনের লকডাউন চলছে দিল্লিতে। ভারতের আরও অনেক রাজ্য একই ধরনের লকডাউনের পথে হাঁটতে পারে বলে ধারনা করা হচ্ছে।

ভারতে যেসব রাজ্যে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ দ্রুত ছড়াচ্ছে এর মধ্যে রাজস্থান অন্যতম। বৃহস্পতিবার রাজ্যটিতে ১৭ হাজার ৫৩২ জনের শরীরে সংক্রমণ ধরা পড়েছে। এই সময়ে মৃত্যু হয়েছে আরও ১৬১ জনের।

রাজ্যের স্বাস্থ্য বিভাগের হিসাব অনুযায়ী, রাজ্যস্থানে এখন পর্যন্ত করোনা শনাক্তের সংখ্যা ৭ লাখ ২ হাজার ৫৬৮ জন। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ৫ হাজার ১৮২ জনের।

করোনা রোগীদের চিকিৎসায় যাতে অক্সিজেন সংকট না হয় সেজন্য অতিরিক্ত আর্থিক প্যাকেজের ঘোষণা দিয়েছেন রাজস্থান মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলত।

ভারতে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ থামছে না। প্রায় প্রতিদিনই সংক্রমণের রেকর্ড হচ্ছে। শনাক্ত ছাড়িয়েছে ২ কোটি ১৪ লাখ। মৃত্যুর সংখ্যা ছাড়িয়েছে ২ লাখ ৩৪ হাজার।

শেয়ার করুন

ব্রাজিলে মাদকবিরোধী অভিযানে নিহত ২৫

ব্রাজিলে মাদকবিরোধী অভিযানে নিহত ২৫

ব্রাজিলে মাদকবিরোধী অভিযানে নিহত হয়েছে ২৫ জন। ছবি:এএফপি

রিও ডি জেনিরো শহরের একটি বস্তিতে বৃহস্পতিবার অভিযান চালায় পুলিশ। মাদক পাচারকারী একটি চক্র শিশুদেরকে দলে ভেড়াচ্ছে এমন খবর পেয়ে কমপক্ষে দুই শতাধিক পুলিশ সেখানে সাঁড়াশি অভিযান চালায়।

ব্রাজিলে মাদক পাচারকারীদের সঙ্গে গোলাগুলিতে এক পুলিশ কর্মকর্তাসহ অন্তত ২৫ জন নিহত হয়েছেন।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ানের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে রিও ডি জেনিরো শহরের একটি বস্তিতে বৃহস্পতিবার অভিযান চালায় পুলিশ। মাদক পাচারকারী একটি চক্র শিশুদেরকে দলে ভেড়াচ্ছে এমন খবর পেয়ে কমপক্ষে দুই শতাধিক পুলিশ সেখানে সাঁড়াশি অভিযান চালায়।

এসময় হেলিকপ্টর ও স্নাইপার ব্যবহার করা হয়। অভিযানে চক্রটির স্কোয়াড অফিসার অ্যান্ডিয়ো ফ্রায়েসের গুলিবিদ্ধ মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। নিহতদের অধিকাংশই মাদক চোরাচালানের সঙ্গে যুক্ত বলে জানিয়েছে পুলিশ। তবে এখনও তাদের পরিচয় নিশ্চিত করা যায়নি।

এই অপরাধী চক্রটির বিরুদ্ধে হত্যার এবং অপহরণের অভিযোগও রয়েছে।

ব্রাজ্রিলের সবচেয়ে সহিংসতাপূর্ণ শহরগুলোর মধ্যে পড়ে রিও ডি জেনেরো। এই বিশাল এলাকা মাদক পাচারকারীদের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

শেয়ার করুন

বিস্ফোরণে মালদ্বীপের সাবেক প্রেসিডেন্ট নাশিদ আহত

বিস্ফোরণে মালদ্বীপের সাবেক প্রেসিডেন্ট নাশিদ আহত

মালদ্বীপের রাজধানী মালেতে একটি বিস্ফোরণে দেশটির সাবেক প্রেসিডেন্ট ও পার্লামেন্টের বর্তমান স্পিকার মোহাম্মদ নাশিদ আহত হয়েছেন।

পুলিশ জানায়, স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার রাতে তার বাসভবনের বাইরে বিস্ফোরণ ঘটে। নাশিদ তখন তার গাড়িতে উঠছিলেন। এ সময় পার্কিংয়ে থাকা একটি মোটরসাইকেলে বেঁধে রাখা ইমপ্রোভাইজড এক্সপ্লোসিভ ডিভাইস বিস্ফোরিত হয়। তবে নাশিদ কতখানি আহত হয়েছেন তা বিস্তারিত প্রকাশ করা হয়নি। বিস্ফোরণে তার এক নিরাপত্তারক্ষীও আহত হয়েছেন।

মালদ্বীপের রাজধানী মালেতে এক বিস্ফোরণের ঘটনায় দেশটির সাবেক প্রেসিডেন্ট ও পার্লামেন্টের বর্তমান স্পিকার মোহাম্মদ নাশিদ আহত হয়েছেন।

পুলিশ জানায়, স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার রাতে তার বাসভবনের বাইরে বিস্ফোরণ ঘটে। নাশিদ তখন তার গাড়িতে উঠছিলেন। এ সময় পার্কিংয়ে থাকা একটি মোটরসাইকেলে বেঁধে রাখা ইমপ্রোভাইজড এক্সপ্লোসিভ ডিভাইস বিস্ফোরিত হয়। তবে নাশিদ কতখানি আহত হয়েছেন তা বিস্তারিত প্রকাশ করা হয়নি। বিস্ফোরণে তার এক নিরাপত্তারক্ষীও আহত হয়েছেন।

আলজাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আহত নাশিদকে রাজধানী মালের এ ডি কে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবদুল্লাহ শাহীদ এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন।

পুলিশ জানিয়েছে, এ ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। বিস্ফোরণে একজন পর্যটকও আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

মালদ্বীপের সাবেক এ প্রেসিডেন্ট ২০১৯ সালের এপ্রিল থেকে দেশটির পার্লামেন্টের স্পিকার হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন।

ঘটনাস্থলটি নিরাপত্তারক্ষা বাহিনীর সদস্যরা ঘিরে রেখেছে।ন সাধারণ মানুষকে এলাকাটি এড়িয়ে চলতে বলা হয়েছে।

শেয়ার করুন

ভাইরাসের রূপ পরিবর্তনই ভারতে বিপর্যয়ের কারণ

ভাইরাসের রূপ পরিবর্তনই ভারতে বিপর্যয়ের কারণ

করোনাভাইরাসের দাপটে বিপর্যস্ত ভারত। ছবি: সংগৃহীত

এ পর্যন্ত করোনাভাইরাসের প্রায় ১৩ হাজার নমুনার জিনোম সিকোয়েন্স করেছেন ভারতের বিজ্ঞানীরা। এর মধ্যে মহারাষ্ট্র, কর্নাটক, পশ্চিমবঙ্গ, গুজরাট ও ছত্তিশগড়সহ আটটি রাজ্যে মিলেছে সাড়ে তিন হাজারের বেশি বি.ওয়ান.সিক্সওয়ানসেভেন ভাইরাস।

ভারতে মার্চে আবিষ্কৃত ভিন্ন বৈশিষ্ট্যের করোনাভাইরাসই দেশটিতে চলমান বিপর্যয়ের কারণ। যেসব রাজ্য মহামারির দ্বিতীয় ধাক্কা সামলাতে হিমশিম খাচ্ছে, সবগুলোতেই শনাক্ত হয়েছে ‘ডবল মিউট্যান্ট’ বা বি.ওয়ান.সিক্সওয়ানসেভেন করোনাভাইরাসের বিপুল সংক্রমণ।

ভারতের জাতীয় রোগ নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্রের এক কর্মকর্তার সূত্র উল্লেখ করে এ খবর জানিয়েছে বিবিসি। প্রতিবেদনে বলা হয়, মার্চে আবিষ্কৃত ভিন্ন বৈশিষ্ট্যের এ করোনার সঙ্গে বিপুল প্রাণহানি ও সংক্রমণের যোগসূত্র পাওয়া গেছে।

তবে আরও গবেষণার মাধ্যমে বিষয়টির গভীরে যাওয়ার চেষ্টা করছেন গবেষকরা।

স্বাস্থ্যবিদদের মতে, ডবল মিউটেশন’-এর হলো একই ভাইরাসে এক সঙ্গে দুই ধরনের বিবর্তন সংঘটিত হওয়া। এর ফলে মানবদেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে আরও সহজে ফাঁকি দিতে পারে ভাইরাসটি।

ভাইরাসের বাইরের এই আমিষের আবরণকে বিজ্ঞানীরা বলছেন ‘স্পাইক প্রোটিন’, যার মাধ্যমে ভাইরাসটি মানবদেহের কোষে প্রবেশ করতে পারে।

এ পর্যন্ত করোনাভাইরাসের প্রায় ১৩ হাজার নমুনার জিনোম সিকোয়েন্স করেছেন ভারতের বিজ্ঞানীরা। এর মধ্যে মহারাষ্ট্র, কর্নাটক, পশ্চিমবঙ্গ, গুজরাট ও ছত্তিশগড়সহ আটটি রাজ্যে মিলেছে সাড়ে তিন হাজারের বেশি বি.ওয়ান.সিক্সওয়ানসেভেন ভাইরাস।

বুধবার ২৪ ঘণ্টায় ভারতে রেকর্ড চার লাখ ১২ হাজারের বেশি মানুষের দেহে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত এবং তিন হাজার ৯৮০ জনের মৃত্যুর তথ্য প্রকাশ করে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

এর আগে ভারতে মহামারির তৃতীয় ধাক্কা অবধারিত বলে হুঁশিয়ারি দেন সরকারের বিজ্ঞান বিষয়ক উপদেষ্টা ড. কে বিজয়রাঘবন। এর ফলে প্রাণহানি ও সংক্রমণ আরও বাড়বে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। যদিও থার্ড ওয়েভ কবে নাগাদ আঘাত হানতে পারে, তা এখনও অস্পষ্ট।

করোনায় প্রাণহানিতে যুক্তরাষ্ট্র, ব্রাজিল ও মেক্সিকোর পরের অবস্থান ভারতের। দেশটিতে করোনায় মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে দুই লাখ ৩৩ হাজার।

সংক্রমণ শনাক্তের দিক থেকে যুক্তরাষ্ট্রের পরে বিশ্বের দ্বিতীয় শীর্ষ দেশ ভারত। দেশটিতে এ নিয়ে ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে দুই কোটি ১৪ লাখ মানুষের দেহে।

ভাইরাসের সংক্রমণ দ্রুত বেড়ে যাওয়ায় ঘাটতি দেখা দিয়েছে করোনার টেস্ট কিট, ওষুধ, অক্সিজেনসহ বিভিন্ন চিকিৎসা সরঞ্জামের। রোগীর বিপরীতে স্বাস্থ্য খাতে দেখা দিয়েছে ব্যাপক লোকবল সংকট।

শেয়ার করুন