পাকিস্তানিদের বিপজ্জনক ভাবছে আমিরাত

ফাইল ছবি

পাকিস্তানিদের বিপজ্জনক ভাবছে আমিরাত

বুধবারের প্রতিবেদন অনুযায়ী, যে দেশগুলোর জন্য ভিসা বন্ধ করা হয়েছে এদের বেশিরভাগই মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশ। ইরান, সিরিয়া, আফগানিস্তান ও পাকিস্তান এর মধ্যে অন্যতম।

নিরাপত্তার ঝুঁকির অজুহাতে পাকিস্তানসহ ১৩টি দেশের নাগরিকদের সাময়িকভাবে নতুন ভিসা দেয়া বন্ধ করেছে উপসাগরীয় দেশ সংযুক্ত আরব-আমিরাত।

বার্তাসংস্থা রয়টার্সের বুধবারের প্রতিবেদন অনুযায়ী, যে দেশগুলোর জন্য ভিসা বন্ধ করা হয়েছে এদের বেশিরভাগই মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশ। ইরান, সিরিয়া, আফগানিস্তান ও পাকিস্তান এর মধ্যে অন্যতম।

সরকারের একটি সূত্র রয়টার্সকে জানিয়েছে, নিরাপত্তা ঝুঁকি বিবেচনা করে পাকিস্তান, আফগানিস্তানসহ আরও কিছু দেশের নাগরিকদের সাময়িকভাবে ভিসা দেয়া বন্ধ করা হয়েছে। তবে কী ধরনের নিরাপত্তা ঝুঁকির আশঙ্কা করা হচ্ছে, সূত্রটি সে ব্যাপারে কিছু জানায়নি।

নতুন করে ইউএই ভিসা না পাওয়ার তালিকায় থাকা অন্য দেশগুলির মধ্যে রয়েছে সোমালিয়া, লিবিয়া, ইয়েমেন, আলজেরিয়া, কেনিয়া, ইরাক, লেবাবন, তিউনিশিয়া ও তুরস্ক।

রয়টার্সের প্রতিবেদনে রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন বিজনেস পার্ক ভিসা বন্ধের খবর জানিয়েছে বলা হলেও দেশটির নাগরিকত্ব বিষয়ক কেন্দ্রীয় কর্তৃপক্ষ এ ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করেনি।

সৌদি আরবে ইউরোপের কূটনীতিকদের লক্ষ্য করে বোমা হামলার এক সপ্তাহ পরেই ইউএইর এই ঘোষণা এল। জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট (আইএস) ওই হামলার দায় স্বীকার করেছিল।

ভিসা বন্ধের দুই মাস আগে সেপ্টেম্বরে ইসরায়লের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের চুক্তি স্বাক্ষর করেছে ইউএই।

গত সপ্তাহে পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ইউএই নতুন ভিসার অনুমোদন বন্ধ রাখলেও যারা ইতোমধ্যে ভিসা পেয়েছেন তাদের দেশটিতে প্রবেশে বাধা নেই।

আরও পড়ুন:
স্বাধীন ফিলিস্তিন হলে ইসরায়েলকে স্বীকৃতি: পাকিস্তান
ইমরানের ‘পুতুল’ সরকারকে হটাতে চায় বিরোধীরা
করোনা: আমিরাতে ভ্রমণ ভিসা পাচ্ছে না পাকিস্তানসহ ১২ দেশ
ফরাসি পণ্য বর্জন করতে যাচ্ছে পাকিস্তান?

শেয়ার করুন

মন্তব্য