এখনও পৃথিবীর ৩০ ভাগ এনগোলো কান্তের

ফাইনাল শেষে চ্যাম্পিয়নস লিগ ট্রফি হাতে এনগোলো কান্তে। ছবি: এএফপি

এখনও পৃথিবীর ৩০ ভাগ এনগোলো কান্তের

২০১৬ সালে লেস্টার সিটির অবিশ্বাস্য প্রিমিয়ার লিগ জয়ের পর, ক্লাবের ভক্তরা এনগোলো কান্তেকে নিয়ে ইন্টারনেটে একটি জোক চালু করে। সেটি হচ্ছে ‘পৃথিবীর ৭০ ভাগ ঢাকা পানিতে আর বাকি ৩০ ভাগ এনগোলো কান্তের’। প্রতি ম্যাচে মাঠের প্রতিটি ইঞ্চি দৌড়ে খেলা কান্তের ওয়ার্ক রেটের জন্যই এমন কৌতুক।

তার পেশাদার ক্যারিয়ার শুরু মাত্র আট বছর আগে। এই আট বছরে এনগোলো কান্তে একে একে জিতেছেন ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ, বিশ্বকাপ ও ইউয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগ। তিনবারই দলের অপরিহার্য সদস্য এই ফ্রেঞ্চম্যান। খুব বেশি লাইমলাইটে থাকেন না। কিন্তু নিজের কাজটা ঠিকই সবার চেয়ে ভালো করেন এই হোল্ডিং মিডফিল্ডার।

২০১৬ সালে লেস্টার সিটির অবিশ্বাস্য প্রিমিয়ার লিগ জয়ের পর, ক্লাবের ভক্তরা এনগোলো কান্তেকে নিয়ে ইন্টারনেটে একটি জোক চালু করে। সেটি হচ্ছে ‘পৃথিবীর ৭০ ভাগ ঢাকা পানিতে আর বাকি ৩০ ভাগ এনগোলো কান্তের’। প্রতি ম্যাচে মাঠের প্রতিটি ইঞ্চি দৌড়ে খেলা কান্তের ওয়ার্ক রেটের জন্যই এমন কৌতুক।

ইউয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনালে ম্যানচেস্টার সিটির বিপক্ষেও দেখা গেছে সেই একই কান্তেকে। ৩০ বছর বয়সী এই মিডফিল্ডার কী করেননি! ডিফেন্সে নেমে ট্যাকল করে বল জিতেছেন, ডিপ মিডফিল্ডে প্রতিপক্ষের কাছ থেকে বল কেড়ে আক্রমণে সহায়তা করেছেন। এমনকি ফাইনালে সিটির বক্সে চেলসির প্রথম সুযোগ পান কান্তেই।

কাই হাভের্টসের গোলে চেলসি শিরোপা জিতলেও আনুষ্ঠানিক ম্যান অফ দ্য ম্যাচ হয়েছেন মালিয়ান বংশোদ্ভূত এই ফুটবলার।

ফাইনালে কান্তের পরিসংখ্যান:

পাসিং ৮৫% নির্ভুল
বলে টাচ ৫৩
ডুয়েল জিতেছেন ১১টি
বল রিকভারি ১০টি
হাওয়ায় বল জিতেছেন ৪টি
ট্যাকল ৩টি
প্রতিপক্ষ বক্সে টাচ ২টি
ক্লিয়ারেন্স ২টি
প্রতিপক্ষের আক্রমণে বাধা ২টি
ফাউল জিতেছেন ২টি

অসাধারণ এই পারফরমন্সের পর ম্যাচসেরা হবেন সেটাই স্বাভাবিক। চ্যাম্পিয়নস লিগ জিতে ছোট্ট একটি ক্লাবের সদস্য হয়েছে কান্তে। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ, চ্যাম্পিয়নস লিগ ও বিশ্বকাপ জেতা ষষ্ঠ খেলোয়াড় এই ফরাসি তারকা।

এখনও পৃথিবীর ৩০ ভাগ এনগোলো কান্তের
ফাইনালের সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার হাতে কান্তে। ছবি: টুইটার

তার আগে আর্সেনাল, বার্সেলোনা ও ফ্রান্সের থিয়েরি অঁরি, ব্রাজিল, চেলসি ও বার্সেলোনার জুলিয়ানো বালেত্তি, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, বার্সেলোনা ও স্পেনের জেরার্দ পিকে এবং চেলসি, বার্সেলোনা ও স্পেনের পেদ্রো এই রেকর্ডের মালিক।

২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপের দ্বিতীয় রাউন্ডে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে ম্যাচে লিওনেল মেসিকে একাই বোতলবন্দি করে রাখেন কান্তে। ওই ম্যাচ জিতেই বিশ্বকাপ জয়ের ছন্দ খুঁজে পায় ফ্রান্স। বিশ্বকাপ শিরোপা জেতার পর ৫ফিট ৬ ইঞ্চি উচ্চতার কান্তেকে নিয়ে গান বাঁধেন তার সতীর্থ পল পগবা, কিলিয়ান এমবাপে, উসমান ডেম্বেলেরা। যেটি ফ্রান্সের জাতীয় দলের ম্যাচের অবিচ্ছেদ্য অংশ এখন। গানের কথা বাংলায় অনেকটা এমন,

‘এনগোলো কান্তে, এনগোলো কান্তে, দেখতে ছোট খেলে দারুণ। আটকে রেখেছে মেসিকে। কিন্তু আমরা জানি ও ধোঁকাবাজ, এনগোলো কান্তে’

২০২১ চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনালেও দেখা গেছে সেই কান্তেকে। ট্রফি জেতার পর স্বাভাবিকভাবেই কান্তে ও দলের ডিফেন্ডারদের নিয়ে টমাস টুখেলের উচ্ছ্বাসের কমতি ছিল না। কান্তের পরিশ্রম নজর এড়ায়নি চেলসি বসের।

‘সবারই অসাধারণ প্রচেষ্টা ছিল। কঠিন ও বিপজ্জনক মুহুর্তে খুব ভালোভাবে আমরা ডিফেন্ড করেছি। থিয়াগো উঠে যাওয়ার পর আমাদের জন্য সহজ ছিল না। কিন্তু চাপের মধ্যেও আমরা সাহস দেখিয়েছি। একটা ধারাবাহিক পারফরম্যান্স ছিল। টনি (আন্টোনিও রুডিগার) ও এনজি (এনগোলো কান্তে) দুর্দান্ত খেলেছে। সলিড পারফরম্যান্স ছিল।’

তিন বছর আগে ইংল্যান্ডে মসজিদে নামাজ শেষে ভক্তের সঙ্গে চলে গিয়েছিলেন তার বাসায়। বিশ্বকাপজয়ী কান্তে ভক্তের বাসায় ভিডিও গেম খেলেন ও ডিনার করেন একেবারে অন্য দশজন মানুষের মতোই।

সেই ঘটনায় পুরো বিশ্ব জানতে পারে কতটা মাটির মানুষ কান্তে। এত সাফল্যের পরও ধরে রেখেছেন স্বভাবজাত বিনয়। চ্যাম্পিয়নস লিগ জেতার পর দলের সঙ্গে উদযাপন করেছেন নিজের ভঙ্গিতেই।

পুরোটা সময় তার মুখে ছিল চিরপরিচিত হাসি। যার কারণে ভক্ত ও প্রতিপক্ষ তাকে ডাকে ‘স্মাইলিং অ্যাসাসিন’। ছোটখাটো গড়নের এই ফ্রেঞ্চ তারকা নিজেকে কোথায় নিয়ে যান সেটা দেখার অপেক্ষায় চেলসি ভক্তরা।

আরও পড়ুন:
অজুহাত দিচ্ছেন না গার্দিওলা, আরও শিরোপা চান টুখেল
দ্বিতীয়বারের মতো ইউরোপ সেরা চেলসি

শেয়ার করুন

মন্তব্য

এরিকসেনের পাশে রোনালডো-লুকাকুরা

এরিকসেনের পাশে রোনালডো-লুকাকুরা

মাঠে এরিকসেনের শূশ্রূষা করছেন তার জাতীয় দলের সতীর্থরা। ছবি: এএফপি

রাশিয়ার বিপক্ষে গোলের পর এরিকসেনকে গোল উৎসর্গ করেন বেলজিয়াম তারকা ও এরিকসনের ক্লাব সতীর্থ রোমেলু লুকাকু। গোল করার পর ক্যামেরার সামনে গিয়ে বন্ধুর দ্রুত আরোগ্য লাভের জন্য বলেন, ‘ক্রিস, ক্রিস ভালোবাসি তোমায়’।

ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপে ফিনল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচে হার্ট অ্যাটাক করেন ডেনমার্কের তারকা মিডফিল্ডার ক্রিস্টিয়ান এরিকসেন। প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাকে মাঠের বাইরে নিয়ে যাওয়া হয়।

প্রায় দেড় ঘণ্টা পর আবারও শুরু হয় ম্যাচ। ডেনমার্ক ফিনল্যান্ডের কাছে একমাত্র গোলে হেরে গেলেও হার-জিতের চেয়ে দুই দলের কাছেই বড় ছিল এরিকসেনের সুস্থতা।

ম্যাচে গোল করার পর ফিনল্যান্ডের ফরোয়ার্ড জোয়েল পোহানপেলো গোল করার পর এরিকসেনের সম্মানে উদযাপন করা থেকে বিরত থাকেন।

রাতের আরেক ম্যাচে রাশিয়ার বিপক্ষে গোলের পর এরিকসেনকে গোল উৎসর্গ করেন বেলজিয়াম তারকা ও এরিকসনের ক্লাব সতীর্থ রোমেলু লুকাকু। গোল করার পর ক্যামেরার সামনে গিয়ে বন্ধুর দ্রুত আরোগ্য লাভের জন্য বলেন, ‘ক্রিস, ক্রিস ভালোবাসি তোমায়’।

এরিকসেনের ঘটনা লুকাকু ও পোহানপেলোর মতো একসঙ্গে করেছে পুরো ফুটবল বিশ্বকেই।

ইউরোর সবচেয়ে বড় তারকা ও পর্তুগালের অধিনায়ক ক্রিস্টিয়ানো রোনালডোও বিশেষ বার্তা দিয়েছে এরিকসেনের উদ্দেশে। নিজের অফিসিয়াল ইনস্টাগ্র্যাম অ্যাকাউন্টে সিআর সেভেন লেখেন, ‘আমরা সবাই ক্রিস্টিয়ান এরিকসেন ও তার পরিবারের পাশে আছি ও প্রার্থনা করছি। সুখবরের প্রত্যাশায় ফুটবলবিশ্ব একসঙ্গে অপেক্ষা করছে। ক্রিস আমি আশা করছি আপনি খুব দ্রত মাঠে ফিরবেন।’

ইংল্যান্ডের তারকা স্ট্রাইকার ও এরিকসেনের টটেনহ্যাম হটস্পার সতীর্থ হ্যারি কেইন এই টুইটে লিখেছেন, ‘ক্রিস তোমার ও তোমার পরিবারের প্রতি আমার ভালোবাসা। লড়ে যাও বন্ধু।’

এরিকসেনের মতোই মাঠে হার্ট অ্যাটাক করা ইংলিশ মিডফিল্ডার ফ্যাব্রিস মুয়াম্বাও টুইট করেছেন। সাবেক বোল্টন ওয়ান্ডারার্সের তারকা লেখেন, ‘ঈশ্বর দয়া করুণ।’

এছাড়া এফসি বার্সেলোনা, ইন্টারনাৎসিওনাল, আয়াক্স আমস্টার্ডামের মতো ক্লাবগুলো টুইট করে এরিকসেনের সুস্থতা কামনা করেছে। তুরস্ক, যুক্তরাষ্ট্র, চেক রিপাবলিক ও ইংল্যান্ডের জাতীয় দলের পক্ষ থেকেও এরিকসেনের জন্য শুভকামনা করা হয়।

ফিনল্যান্ডের বিপক্ষে ৪০ মিনিটের সময় থ্রো পায় ডেনমার্ক। লাইনের কাছাকাছি ছিলেন এরিকসেন। হঠাৎ অজ্ঞান হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন তিনি।

পরে সতীর্থরা তাকে ঘিরে ধরেন। তাৎক্ষণিকভাবে চিকিৎসকরা এসে প্রাথমিক চিকিৎসা দেন।

প্রায় ১৩ মিনিট পর চোখ খুলতে দেখা যায় টটেনহ্যামের এই ফুটবলারকে। হার্ট অ্যাটাক হওয়ায় তাকে সিপিআর দেয়া হয় মাঠের মধ্যেই।

এরপর দ্রুত তাকে নিকটবর্তী হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

ডেনিশ ফুটবল জানিয়েছে, পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়েছে এরিকসেনের। অন্যান্য টেস্টের জন্য প্রস্তুত করা হচ্ছে তাকে।

বিবিসি স্পোর্ট জানিয়েছে, এরিকসন এখন সুস্থ আছেন। ভিডিও কলে সতীর্থদের সঙ্গে কথাও বলেছেন তিনি।

ইউয়েফার জরুরী বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, প্রায় ঘণ্টাখানেক পর বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ১২টায় আবারও শুরু হয় ম্যাচ। ৪১ মিনিট থেকে ম্যাচ শুরু হয়। বাকি সময়ে একমাত্র গোলে ম্যাচ জিতে নেয় ফিনল্যান্ড।

আরও পড়ুন:
অজুহাত দিচ্ছেন না গার্দিওলা, আরও শিরোপা চান টুখেল
দ্বিতীয়বারের মতো ইউরোপ সেরা চেলসি

শেয়ার করুন

রাশিয়াকে ৩-০ গোলে হারিয়ে ইউরো শুরু বেলজিয়ামের

রাশিয়াকে ৩-০ গোলে হারিয়ে ইউরো শুরু বেলজিয়ামের

রাশিয়ার বিপক্ষে প্রথম গোলের পর বেলজিয়ামের স্ট্রাইকার রোমেলু লুকাকুর উদযাপন। ছবি: টুইটার

ইন্টার মিলানের সুপারস্টার রোমেলু লুকাকুর জোড়া গোলে ৩-০ ব্যবধানে রাশিয়াকে হারিয়ে ইউরো মিশনে শুভ সূচনা করেছে বেলজিয়াম।

ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপে ১৯৮০ সালে সবশেষ ফাইনালে খেলে বেলজিয়াম। তারপর থেকে একরকম শূন্যই তাদের আন্তর্জাতিক অর্জন।

গত বিশ্বকাপে বেলজিয়াম সেমিফাইনাল খেলায় প্রত্যাশা বাড়ে দলকে ঘিরে। দুর্দান্ত ফুটবল নৈপুণ্য দেখান লুকাকু-ডি ব্রুইনারা। সোনালী প্রজন্মের সেরা সময় কাটাচ্ছে বেলজিয়ান ফুটবল।

ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষে থেকে প্রথম বড় কোনো টুর্নামেন্টে শিরোপার প্রত্যাশা নিয়ে ইউরোতে বেলজিয়ানদের শুরুটা হয়েছে দুর্দান্তভাবে।

ইন্টার মিলানের সুপারস্টার রোমেলু লুকাকুর জোড়া গোলে ৩-০ ব্যবধানে রাশিয়াকে হারিয়ে ইউরো মিশনে শুভ সূচনা করেছে বেলজিয়াম।

রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবুর্গ স্টেডিয়ামে ম্যাচের ১০ মিনিটের মাথায় ডি-বক্সের ভেতর থেকে মাটি কাঁপানো শটে বল জালে জড়িয়ে বেলজিয়ামকে লিড এনে দেন এই স্ট্রাইকার।

গোলের উদযাপনে হাসপাতালের শয্যায় বন্ধু ও ক্লাব সতীর্থ ক্রিস্টিয়ান এরিকসেনকে স্মরণ করতে ভুললেন না তিনি।

ক্যামেরার সামনে গিয়ে বন্ধুর দ্রুত আরোগ্য লাভের জন্য ‘ক্রিস, ক্রিস ভালোবাসি তোমায়’ বলে জানালেন ফুটবল খেলার থেকেও বেশি কিছু।

এমন দিনে কি তাকে থামিয়ে রাখা সম্ভব?

ম্যাচের শেষ দিকে আরেকটি গোলে নিজেকে রাঙানোর পাশাপাশি দলকেও বড় জয় উপহার দিলেন লুকাকু। এ নিয়ে জাতীয় দলের জার্সিতে সবশেষ ১৫ ম্যাচে ১৯ বার লক্ষ্যভেদ করেছেন ইন্টার মিলানের এই স্ট্রাইকার।

তার আগে প্রথমার্ধে বেলজিয়ামের বুরুশিয়া ডর্টমুন্ডের রাইটব্যাক থমাস মুনিয়ের একটি গোল করে দলকে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে দেন।

পুরো ম্যাচে স্বাগতিক রাশিয়া প্রতিরোধ ও পাল্টা আক্রমণে বেলজিয়ামের কোনো ক্ষতি করতে না পারায় পূর্ণ তিন পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়ে লুকাকুরা।

এ জয়ে ফিনল্যান্ডকে হটিয়ে পয়েন্ট টেবিলে শীর্ষে উঠে যায় বেলজিয়াম। ১৭ জুন ডেনমার্কের বিপক্ষে গ্রুপ বি-এর দ্বিতীয় ম্যাচটি খেলবে রবার্তো মার্তিনেজের শিষ্যরা।

আরও পড়ুন:
অজুহাত দিচ্ছেন না গার্দিওলা, আরও শিরোপা চান টুখেল
দ্বিতীয়বারের মতো ইউরোপ সেরা চেলসি

শেয়ার করুন

মাঠে হার্ট অ্যাটাকের পর স্থিতিশীল এরিকসেন

মাঠে হার্ট অ্যাটাকের পর স্থিতিশীল এরিকসেন

এরিকসেনকে স্ট্রেচারে করে মাঠের বাইরে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। ছবি: টুইটার

৪০ মিনিটের মাথায় থ্রো পায় ডেনমার্ক। লাইনের কাছাকাছি ছিলেন এরিকসেন। হঠাৎ অজ্ঞান হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন তিনি। পরে সতীর্থরা ঘিরে ধরেন। তাৎক্ষণিকভাবে চিকিৎসকরা এসে প্রাথমিক চিকিৎসা দেন।

ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপের ‘বি’ গ্রুপের ডেনমার্ক-ফিনল্যান্ডের ম্যাচে ডেনমার্ক ও টটেনহ্যাম হটস্পারের তারকা মিডফিল্ডার ক্রিস্টিয়ান এরিকসেন ম্যাচ চলাকালীন হঠাৎ মুখ থুবড়ে মাটিতে পড়ে যান।

পরে ধরা পড়ে তার হার্ট অ্যাটাক হয়েছে। তাকে মাাঠের বাইরে নেয়ার পর ম্যাচ স্থগিত করা হয়।

আর এরিকসেনকে দ্রুত নিকটবর্তী হাসপাতালে নেয়া হয়। আপাতত স্থিতিশীল আছেন এই ডেনিশ ফুটবলার।

ইউরোপ সেরার টুর্নামেন্টে কোপেনহেগেনে নিজেদের প্রথম ম্যাচে খেলতে নামে ডেনমার্ক ও ফিনল্যান্ড। ইতিহাসে প্রথমবার কোনো বড় টুর্নামেন্টে খেলছিল ফিনল্যান্ড।

ম্যাচ গোলশূন্য নিয়ে চলছে প্রথমার্ধে। ৪০ মিনিটের মাথায় থ্রো পায় ডেনমার্ক। লাইনের কাছাকাছি ছিলেন এরিকসেন। হঠাৎ অজ্ঞান হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন তিনি।

পরে সতীর্থরা তাকে ঘিরে ধরেন। তাৎক্ষণিকভাবে চিকিৎসকরা এসে প্রাথমিক চিকিৎসা দেন।

প্রায় ১৩ মিনিট পর চোখ খুলতে দেখা যায় টটেনহ্যামের এই ফুটবলারকে। হার্ট অ্যাটাক হওয়ায় তাকে সিপিআর দেয়া হয় মাঠের মধ্যেই।

এরপর দ্রুত তাকে নিকটবর্তী হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

ডেনিশ ফুটবল জানিয়েছে, পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়েছে এরিকসেনের। অন্যান্য টেস্টের জন্য প্রস্তুত করা হচ্ছে তাকে।

এরিকসেনের ঘটনায় সোশ্যাল মিডিয়ায় তার সুস্থতা চেয়ে পোস্ট করছেন ক্লাবের সতীর্থ, সাবেক ও বর্তমান ফুটবলাররা।

বিবিসি স্পোর্ট জানিয়েছে, এরিকসন এখন সুস্থ আছেন। ভিডিও কলে সতীর্থদের সঙ্গে কথাও বলেছেন তিনি।

ইউয়েফার জরুরী বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, প্রায় ঘণ্টাখানেক পর বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ১২টায় আবারও শুরু হয় ম্যাচ।

৪১ মিনিট থেকে ম্যাচ শুরু হয়। বাকি সময়ে একমাত্র গোলে ম্যাচ জিতে নেয় ফিনল্যান্ড।

৫৯ মিনিটে জোয়েল পোহানপেলোর স্ট্রাইকে জয় নিশ্চিত হয় ফিনল্যান্ডের।

তবে, ম্যাচে হার-জিত ছাপিয়ে মূল বিষয় ছিল এরিকসনের সুস্থতা।

পোহানপেলো গোলের পরও এরিকসেনের সম্মানে গোল উদযাপন করা থেকে বিরত থাকেন।

রাতের আরেক ম্যাচে রাশিয়ার বিপক্ষে গোলের পর এরিকসেনকে গোল উৎসর্গ করেন বেলজিয়াম তারকা ও এরিকসনের ক্লাব সতীর্থ রোমেলু লুকাকু।

আরও পড়ুন:
অজুহাত দিচ্ছেন না গার্দিওলা, আরও শিরোপা চান টুখেল
দ্বিতীয়বারের মতো ইউরোপ সেরা চেলসি

শেয়ার করুন

রকস্টার লিওনেল মেসি

রকস্টার লিওনেল মেসি

হার্ড রক ক্যাফের বিজ্ঞাপণে লিওনেল মেসি। ছবি: টুইটার

বিশ্বখ্যাত রেস্তোরাঁ ও ক্যাফে চেইন হার্ড রক ক্যাফে মেসিকে নিজেদের শুভেচ্ছাদূত করেছে শনিবার। তাই রেস্তোরাঁর থিমের সঙ্গে নিজেকে মেলাতে মেসির এমন লুক।

সর্বকালের সেরা ফুটবলার হিসেবেই তাকে চেনেন সবাই। ছয়টি ব্যলন ডরের পাশাপাশি অসংখ্য ট্রফি জিতেছেন বার্সেলোনার হয়ে। চিরপরিচিত ফুটবলার বেশে নয় আর্জেন্টাইন সুপারস্টার লিওনেল মেসিকে এবারে দেখা গেল একেবারে অন্য অবতারে।

রকস্টারদের মতো লুকে গিটার নিয়ে ব্ল্যাক লেদার জ্যাকেট ও ডেনিমে হাজির হলেন আর্জেন্টিনা জাতীয় দল ও বার্সেলোনা অধিনায়ক। মাঠ ছেড়ে এবারে কি কনসার্ট মাতাতে যাচ্ছেন এই ক্ষুদে যাদুকর?

না, তেমন কিছুই না। বিশ্বখ্যাত রেস্তোরাঁ ও ক্যাফে চেইন হার্ড রক ক্যাফে মেসিকে নিজেদের শুভেচ্ছাদূত করেছে শনিবার। তাই রেস্তোরাঁর থিমের সঙ্গে নিজেকে মেলাতে মেসির এমন লুক।

হার্ড রক ক্যাফের বিজ্ঞাপণে দেখা যায়, গিটারের কেইসে বল নিয়ে ক্যাফেতে প্রবেশ করছেন মেসি। তার সাজ রকস্টারদের মতো। গায়ে কালো জ্যাকেট ও জিন্স।

বিখ্যাত রেস্তোরাঁটি তাদের সূবর্ণজয়ন্তী পালন করছে এই বছর। বিশেষ এই সময়ে বিখ্যাত রকস্টারদের পাশে ফুটবল মাঠের ‘রকস্টার’ মেসিকে রেখেছে তারা।

‘এমন একটা ব্র্যান্ডের সঙ্গে যুক্ত হতে পারাটা সম্মানের ব্যাপার। বিশেষ করে এতোজন রকস্টারদের সঙ্গে তাদের ৫০ বছর পূর্তীর অংশ হতে পারাটা আসলেই স্পেশাল,’ সাংবাদিকদের বলেন মেসি।

বিশেষ এই উপলক্ষে মেসি তার ব্যলন ডরের একটি রেপ্লিকাতে সই করে দিয়েছেন হার্ড রক ক্যাফেকে। আর ক্যাফের প্রেসিডেন্ট জিম অ্যালেন মেসিকে উপহার দিয়েছেন তার জন্য বানানো বিশেষ একটি ইলেক্ট্রিক গিটার।

হার্ডরক ক্যাফের অন্যতম জনপ্রিয় খাবারের তালিকায় রয়েছে তাদের সিগনেচার বার্গারগুলো। মেসির কাছে তার প্রিয় বার্গারে কী কী থাকবে জানতে চাওয়া হলে তিনি জানান, ‘গরুর মাংস, টোমাটো, চিজ, মেয়োনেজ ও ডিম।’

মেসি সদলবলে আছেন ব্রাজিলে। সেখানে আর্জেন্টিনা জাতীয় দলের সঙ্গে কোপা আমেরিকার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। মঙ্গলবার রাতে চিলির বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে শুরু হচ্ছে আর্জেন্টিনার কোপা আমেরিকা।

দক্ষিণ এশিয়ার সবচেয়ে বড় ফুটবল টুর্নামেন্টের আগে প্রস্তুতিটা সুখের হয়নি মেসিদের জন্য। বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের ম্যাচে প্রথম চিলি ও পরের ম্যাচে কলম্বিয়ার সঙ্গে ড্র করে দুইবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা।

গতবারের কোপা আমেরিকায় সেমিফাইনালে ব্রাজিলের কাছে ২-০ গোলে হেরে বিদায় নিতে হয়েছিল মেসির দলকে।

আরও পড়ুন:
অজুহাত দিচ্ছেন না গার্দিওলা, আরও শিরোপা চান টুখেল
দ্বিতীয়বারের মতো ইউরোপ সেরা চেলসি

শেয়ার করুন

‘সারা জীবন ফুটবলকেই ভালোবেসেছি’

‘সারা জীবন ফুটবলকেই ভালোবেসেছি’

নেইমার জুনিয়র। ফাইল ছবি

কোপা আমেরিকায় নেইমারকে অধিনায়ক নির্বাচন করেছেন কোচ লিওনার্দো তিতে। ব্রাজিলের জার্সিতে দায়িত্ব নেবার সময় এসেছে নেইমারের এমন ধারণা থেকেই তার হাতে আর্মব্যান্ড দিয়েছেন তিনি।

নেইমারও এত বড় দায়িত্ব পেয়ে শিহরিত। ২০১৪ বিশ্বকাপের উঠতি তারকা থেকে তার সময় এখন বিশ্বসেরায় পরিণত হওয়া। কোপা আমেরিকা হতে পারে সেটির জন্য উপযুক্ত মঞ্চ।

নিজ দেশে দক্ষিণ আমেরিকার সর্বোচ্চ টুর্নামেন্টের আগে খুদে ভক্তদের উদ্দেশে বিশেষ বার্তা দিয়েছেন এই সুপারস্টার। ক্রীড়াসামগ্রী নির্মাতা পুমা আয়োজিত এক ক্যাম্পেইনে স্কুলের শিশু-কিশোরদের নেইমার জানান তার ছেলেবেলার স্বপ্নের কথা।

‘শৈশবে আমার স্বপ্ন একটাই ছিল। আমি সব সময়ই চেয়েছি ফুটবল খেলোয়াড় হতে। অন্য কোনো কিছু হতে চাইনি কখনও। অন্য কিছু করতেও চাইনি। নিজেকে একটা কাজেই নিয়োজিত রেখেছি। সারা জীবন ফুটবলকে ভালোবেসেছি,’ বলেন নেইমার।

লিওনেল মেসিকে আইডল ভেবে বড় হওয়া নেইমার এখন বিশ্বজুড়ে লাখো-কোটি শিশু-কিশোরের আইডল। অগুনতি তরুণদের ভক্তের জন্য নেইমারের কাছ থেকে এসেছে বিশেষ বার্তা।

‘ভবিষ্যৎ তাদেরই উজ্জ্বল, যারা বড় কিছুতে বিশ্বাস করে। আমি শিশুদের সঙ্গে আমার নিজের অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে চাই। তাদের বয়সে আমার যে স্বপ্ন ছিল সেটার কথা জানাতে চাই। আর বলতে চাই প্রত্যেকে যেন নিজের স্বপ্নের পেছনে ছোটে,’ খুদে ভক্তদের বলেন ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত নেইমার।

শিশুদের কাছ থেকে নেইমার জানতে চান তাদের স্বপ্নের কথা। কেউ হতে চায় স্ট্রাইকার, কেউবা গোলকিপার। কারও স্বপ্ন রিয়াল মাদ্রিদে খেলা ,কেউবা খেলতে চায় কোরিন্থিয়ান্সে।

সবার উদ্দেশেই নেইমারের একই আহ্বান, ‘তোমাদের সবার মতোই আমিও ছোটবেলায় স্বপ্ন দেখতাম বড় কিছু হওয়ার। নিজের প্রতি বিশ্বাস রাখো। স্বপ্নকে তাড়া করো। তোমরাই ভবিষ্যৎ।’

নেইমারের কাঁধে এখন গুরুদায়িত্ব নিজ মাটিতে কোপা আমেরিকা জয়। তার আগে দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলের বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের ম্যাচ জিতে দারুণ ছন্দে আছে ব্রাজিল।

ইকুয়েডর ও প্যারাগুয়েকে ২-০ গোলে হারিয়ে প্রস্তুতি সেরেছেন নেইমার-জেসুসরা। সোমবার ভোর ৩টায় ভেনেজুয়েলার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে ব্রাজিল শুরু করছে তাদের কোপা আমেরিকার চ্যালেঞ্জ।

টুর্নামেন্টের আয়োজক হিসেবে কলম্বিয়া ও আর্জেন্টিনা বাদ পড়ার পর আয়োজকের ভার পড়েছে ব্রাজিলের ওপর। টুর্নামেন্টের মাত্র ১৩ দিন বাকি থাকতে এবারের আসর আয়োজনের দায়িত্ব কাঁধে নেয় ব্রাজিল। কিন্তু দেশটির বেগতিক করোনা পরিস্থিতির মধ্যে কোপা আয়োজন করতে যাওয়ায় নানা মহল থেকে সমালোচনার ঝড় ওঠে। বিষয়টি গড়ায় আদালতে।

কোপা আয়োজনের পক্ষেই শেষ পর্যন্ত রায় দেয় ব্রাজিলের সুপ্রিম কোর্ট। সুপ্রিম কোর্ট বেঞ্চের ১১ জন বিচারকের বেশির ভাগই কোপা আমেরিকা ব্রাজিলে আয়োজনের পক্ষে রায় দেন। যদিও তারা ব্রাজিল সরকারকে কোপা আয়োজনে অতিরিক্ত সতর্কতা মেনে চলতে বলেছেন।

আরও পড়ুন:
অজুহাত দিচ্ছেন না গার্দিওলা, আরও শিরোপা চান টুখেল
দ্বিতীয়বারের মতো ইউরোপ সেরা চেলসি

শেয়ার করুন

বাফুফের সঙ্গে মেয়াদ বাড়ল সোহাগের

বাফুফের সঙ্গে মেয়াদ বাড়ল সোহাগের

ফুলেল শুভেচ্ছায় সোহাগকে অভ্যর্থনা দিচ্ছে বাফুফে। ছবি: বাফুফে

২০১১ সালের মে মাসে সাবেক সাধারণ সম্পাদক আল মুসাব্বির সাদী মারা যাওয়ার পর বাফুফের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব নেন সোহাগ। ২০১৩ সালের জানুয়ারিতে তাকে সাধারণ সম্পাদক পদে নিয়োগ দেয়া হয়।

সাধারণ সম্পাদক হিসেবে আবু নাঈম সোহাগের সঙ্গে চুক্তির মেয়াদ আরও দুই বছর বাড়াল বাংলাদেশের ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)।

শনিবার বাফুফের নির্বাহী কমিটির সভায় সোহাগের চুক্তির বিষয়টি অনুমোদন দেয়া হয়।

সভা শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে এ নিয়ে কথা বলেন ফেডারেশনের সিনিয়র সহসভাপতি আব্দুস সালাম মুর্শেদী।

তিনি বলেন, ‘আমাদের এজেন্ডায় যে বিষয়টি নিয়ে সবচেয়ে আলোচনা হচ্ছিল সেটা হচ্ছে সাধারণ সম্পাদকের। তার সঙ্গে আমাদের চুক্তির মেয়াদ প্রায় শেষের দিকে। যিনি চুক্তিতে থাকেন তার সবসময় চিন্তায় থাকেন। চুক্তি দীর্ঘ হবে কি না। আমাদের আলোচনাতে সিদ্ধান্ত নিয়েছি, সবাই একমত পোষণ করেছি সাধারণ সম্পাদককে আরও দুই বছরের জন্য মেয়াদ বর্ধিত করা হয়েছে।’

এর আগে ২০০৫ সালে বাফুফেতে ম্যানেজার কম্পিটিশনস (ক্লাব অ্যান্ড অ্যাডমিনিস্ট্রেশন) হিসেবে যোগ দেন সোহাগ। ২০১১ সালের মে মাসে মারা যান সাবেক সাধারণ সম্পাদক আল মুসাব্বির সাদী। ওই সময় বাফুফের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব নেন সোহাগ।

দেড় বছর ভারপ্রাপ্ত হিসেবে দায়িত্ব পালনের ২০১৩ সালের জানুয়ারিতে সাধারণ সম্পাদক পদে নিয়োগ দেয়া হয় তাকে।

আবু নাইম সোহাগ বাংলাদেশ ব্যাংক হাই স্কুল, নটরডেম কলেজ ও বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী ছিলেন।

আরও পড়ুন:
অজুহাত দিচ্ছেন না গার্দিওলা, আরও শিরোপা চান টুখেল
দ্বিতীয়বারের মতো ইউরোপ সেরা চেলসি

শেয়ার করুন

পিএসজি নিয়ে নিশ্চিত নন এমবাপে

পিএসজি নিয়ে নিশ্চিত নন এমবাপে

কিলিয়ান এমবাপে। ফাইল ছবি

বিশ্বসেরা তরুণ প্রতিভাকে দলে টানতে প্রস্তুত রিয়াল মাদ্রিদ। তাদের পেছনেই লিভারপুল। দুই ক্লাবই ফ্রেঞ্চ তারকার সইয়ের জন্য যেকোনো অঙ্ক খরচ করতে রাজি তারা। পিএসজি সাফ জানিয়ে দিয়েছে তারা এমবাপেকে বিক্রির কথা ভাবছেই না।

ছেলেবেলা থেকেই তিনি রিয়াল মাদ্রিদের ভক্ত। বহুবার বহু সাক্ষাৎকারে কিলিয়ান এমবাপে জানিয়েছেন মাদ্রিদের সাদা জার্সি তার স্বপ্ন। তার আইডল ক্রিস্টিয়ানো রোনালডো যেমন খেলেছেন মাদ্রিদের হয়ে, তিনিও একদিন চান সান্তিয়াগো বার্নাবুর মূল আকর্ষণে পরিণত হতে।

মোনাকো থেকে ১৮ কোটি ইউরোতে ২০১৮ সালে প্যারিস সেইন্ট জার্মেইয়ে (পিএসজি) যোগ দেয়া এমবাপে এখনও সতীর্থ নেইমারের পর বিশ্বের সবচেয়ে দামি ফুটবলার।

ক্লাবে তারকাখ্যাতিতেও নেইমারের পরেই তার অবস্থান। তবে গত এক বছর যাবৎই পিএসজিতে মন টিকছে না ২২ বছরের এই ফ্রেঞ্চ ফরোয়ার্ডের। নতুন কোনো চ্যালেঞ্জের জন্য মুখিয়ে আছে তার মন।

বিশ্বসেরা তরুণ প্রতিভাকে দলে টানতে প্রস্তুত রিয়াল মাদ্রিদ। তাদের পেছনেই লিভারপুল। দুই ক্লাবই ফ্রেঞ্চ তারকার সইয়ের জন্য যেকোনো অঙ্ক খরচ করতে প্রস্তুত। পিএসজি সাফ জানিয়ে দিয়েছে তারা এমবাপেকে বিক্রির কথা ভাবছেই না।

এমবাপে অবশ্য ফ্রান্স ফুটবলকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে শুক্রবার জানান পিএসজিতে মন টিকছে না তার। তবে এখনই নিশ্চিত করে উঠতে পারছেন না ক্লাব ছাড়ার বিষয়ে।

‘আমাকে খুব যে দ্রুত ছাড়তে হবে তাও না বিষয়টা। সঠিক সিদ্ধান্তটাই নিতে হবে। সেটা খুব কঠিন একটা কাজ। তবে নিজের মত বদলানোর সুযোজ নিজেকে দেয়া উচিত। আমি যেখানে আছি এটা ভালোই। এখানে আমি ভালো আছি। কিন্তু এটাই কি আমার জন্য সেরা ক্লাব? আমি সেটার উত্তর এখনও জানি না।’

পিএসজিতে পারিশ্রমিক, তারকাখ্যাতি, শিরোপা কোনো কিছুর কমতি নেই এমবাপের। ইউয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগ জেতা না হলেও ফ্রেঞ্চ ঘরোয়া ফুটবলের সবগুলোই জিতেছেন পাঁচ বছরের ছোট ক্যারিয়ারে।

এমবাপে নিজেও জানেন ২৯ বছরের নেইমার নন, তিনিই পিএসজির ভবিষ্যৎ। বলেন, ‘আমি জানি আমাকে নিয়ে বা আমাকে ছাড়া ক্লাবের পরিকল্পনা একরকম থাকবে না। আশা করি পিএসজি আমার অনুভূতি বুঝতে পারবে। কারণ তারাও জানে আমি কাউকে না জানিয়ে কিছু করব না।’

ক্লাব ছাড়তে হলে নিজের ও ক্লাবের সম্মান রেখেই ছাড়বেন জানালেন এমবাপে। সেরা খেলোয়াড়দের দায়িত্ব জানা আছে তার।

‘সেরা খেলোয়াড় হলে মাঠের বাইরেও আমাকে এর প্রমাণ রাখতে হবে। মাঠের বাইরে পরিষ্কারভাবে ও সম্মানের সঙ্গে সবকিছু করতে হবে,’ বলেন এমবাপে।

আপাতত দলবদল নিয়ে ভাবতে হচ্ছে না এমবাপেকে। তিনি ব্যস্ত ইউরোর লড়াইয়ে। বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্সের হয়ে আতোয়াঁ গ্রিজমান, উসমান ডেম্বেলের সঙ্গে মাঠে নামতে মুখিয়ে আছেন তিনি।

১৬ জুন জার্মানির বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে নিজেদের ইউরো অভিযান শুরু করছে ফ্রান্স।

আরও পড়ুন:
অজুহাত দিচ্ছেন না গার্দিওলা, আরও শিরোপা চান টুখেল
দ্বিতীয়বারের মতো ইউরোপ সেরা চেলসি

শেয়ার করুন