নেপালের জন্য কোয়ারেন্টিন সময় কমাচ্ছে বাংলাদেশ

নেপালের জন্য কোয়ারেন্টিন সময় কমাচ্ছে বাংলাদেশ

১৪ দিনের জায়গায় সাত দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে নেপালকে। আসার আগে ও পরে করোনা পরীক্ষা করিয়ে কোয়ারেন্টিনে চলে যাবে নেপাল।

ক্রিকেট সিরিজ নিয়ে শ্রীলঙ্কা যেভাবে কঠোর স্বাস্থ্যবিধি দিয়েছিল, নভেম্বরে ফুটবল খেলতে আসা নেপালের ক্ষেত্রে তেমনটা করবে না বাংলাদেশ। করোনা স্বাস্থ্যবিধি মেনে কোয়ারেন্টিন সময় কমিয়ে দেয়া হবে নেপালের। নিউজবাংলাকে এমনটাই জানিয়েছেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল।

সোমবার ‘শেখ হাসিনা ইয়ুথ ভলান্টিয়ার অ্যাওয়ার্ড ২০২০’ এর লোগো উন্মোচন অনুষ্ঠান শেষে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ (এনএসসি) মিলনায়তনে গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘কোভিড-১৯ একটা বড় সমস্যা। তারপরও যেহেতু অনেকদিন পর একটা আন্তর্জাতিক ম্যাচ হবে, শ্রীলঙ্কা যত কঠোর হয়েছিল আমরা ততটা কঠোর হব না।’

নভেম্বরের ১৩ ও ১৭ তারিখ ঢাকায় দুটি আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচ খেলবে নেপাল। পাঁচ নভেম্বরে ঢাকায় আসার কথা দলটির। তাদের কোয়ারেন্টিনের ক্ষেত্রে কিছুটা ছাড় দিচ্ছে বাংলাদেশ। ১৪ দিনের জায়গায় সাত দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে নেপালকে। আসার আগে ও পরে করোনা পরীক্ষা করিয়ে কোয়ারেন্টিনে চলে যাবে নেপাল।

শ্রীলঙ্কা সফর করতে বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনের নিয়ম দিয়েছিল দেশটি। বিসিবি চেয়েছিল, সেই সময়ে সুযোগ দেওয়া হোক অনুশীলনের। কিন্তু কোয়ারেন্টিনের সময় হোটেল কক্ষ থেকে বের না হওয়ার নিয়ম রয়েছে শ্রীলংকার কোভিড ১৯ বিধিমালায়।

বাংলাদেশ_ফুটবল_অনুশীলন

নেপাল ম্যাচের জন্য ২৩ অক্টোবর ক্যাম্প শুরু করবে বাফুফে। হেড কোচ জেমি ডে দলের সঙ্গে যুক্ত হবেন ২৮ অক্টোবর। কোভিড ইস্যুতে বাংলাদেশকেও ক্যাম্প শুরু করতে হচ্ছে আগেভাগে। ক্যাম্পের আগে করোনা পরীক্ষা হবে ফুটবলারদের।

দুটি ম্যাচই অনুষ্ঠিত হবে বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে। তার আগে প্রশাসনের নির্দেশনা মেনেই হবে আয়োজন। সবশেষ ২০১৮ সালে নেপালের মুখোমুখি হয় বাংলাদেশ। ঢাকায় সাফের সেই ম্যাচে ২-০ গোলে হেরে যায় স্বাগতিক দল।

শেয়ার করুন

মন্তব্য