20201002104319.jpg
একই রাতে হারল রিয়াল ও বার্সেলোনা

একই রাতে হারল রিয়াল ও বার্সেলোনা

নিজ মাঠে নবাগত কাদিসের কাছে ১-০ গোলে হেরে যায় স্প্যানিশ চ্যাম্পিয়নরা। আরেক ম্যাচে হেতাফের মাঠে একই ব্যবধানে হেরে গেছে বার্সেলোনা।

স্প্যানিশ লা লিগায় একই রাতে হেরেছে দুই জায়ান্ট রিয়াল মাদ্রিদ ও বার্সেলোনা। নিজ মাঠে নবাগত কাদিসের কাছে ১-০ গোলে হেরে যায় স্প্যানিশ চ্যাম্পিয়নরা। আরেক ম্যাচে হেতাফের মাঠে একই ব্যবধানে হেরে গেছে বার্সেলোনা।

রোনাল্ড কুমানের অধীনে প্রথম তিন ম্যাচে হারের মুখ দেখেনি বার্সেলোনা। সে ধারা এসে ভাঙল চতুর্থ ম্যাচে। ম্যাচের একমাত্র গোলটি আসে দ্বিতীয়ার্ধে। পেনাল্টি থেকে ৫৬ মিনিটে জয়সূচক গোল করেন হাইমে মাতা।

বার্সেলোনা কোচ এদিন বেঞ্চে রেখেছিলেন আনসু ফাতি ও ফিলিপে কোতিনিয়োকে। শুরু থেকেই ঘরের মাঠে হেতাফে বার্সেলোনার সঙ্গে সমানে সমান টক্কর দিচ্ছিল। প্রথমার্ধে বার্সেলোনা বেশ কিছু সুযোগ নষ্ট করে।গ্রিজমান

প্রথমে লিওনেল মেসির ফ্রি-কিকে পা লাগাতে পারেননি ক্লেমঁ লংলে। এরপর দারুণ এক কাউন্টার অ্যাটাকে পেদ্রির পাসে লক্ষ্যভেদ করতে পারেননি আতোঁয়া গ্রিজমান। প্রথমার্ধ শেষ হয় গোলশূন্য ভাবেই।

দ্বিতীয়ার্ধের ৫৬তম মিনিটে ডিয়েনে ডাকোনামকে নিজেদের বক্সে ফাউল করেন বার্সেলোনার ডাচ মিডফিল্ডার ফ্র্যাঙ্কি ডি ইয়ং। রেফারি পেনাল্টির নির্দেশ দিলে, স্পট থেকে ভুল করেননি মাতা। হেতাফে এগিয়ে যায় ১-০ তে।

সেই গোল শোধ করতে বাকি সময়ে চেষ্টা করলেও গোলের দেখা পাননি মেসিরা। একেবারে শেষ মুহূর্তে তারা দুটি সুযোগ পেয়েছিলেন। একটি মেসি বাইরে মারেন। আরেকটি ফিরে আসে পোস্টে লেগে। হেতাফে সফল হয় তাদের লিড ধরে রাখতে।মেসি

এই হারে চার ম্যাচে বার্সেলোনার সংগ্রহ গিয়ে দাঁড়াল সাত পয়েন্ট। পয়েন্ট টেবিলে তাদের অবস্থান নয়ে।

বার্সেলোনার আগের ম্যাচে মাঠে নামে রিয়াল মাদ্রিদ। নিজ মাঠে কাদিসের কাছে অ্যান্থনি লোসানোর গোলে হারতে হয় চ্যাম্পিয়নদের।

শুরু থেকে আক্রমণাত্মক থাকা কাদিস গোলের দেখা পায় ১৬ মিনিটে। দ্রুত গতিতে বক্সে ঢুকে পড়া লোসানোকে আটকাতে পারেনি রিয়ালের ডিফেন্স। বাঁ পায়ের চিপে রিয়াল গোলকিপার থিবো কোঁতোয়াকে পরাস্ত করেন এই হন্ডুরান ফরোয়ার্ড।কাদিস

ম্যাচে বাকি সময়ে আর কোনো গোল হয়নি। রিয়ালের জন্য দুঃসংবাদ ছিল সার্হিও রামোসের ইনজুরি। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে রিয়াল অধিনায়কের পরিবর্তে মাঠে নামের এদার মিলিতাও। এই অর্ধে জিদান আরও তিনজন খেলোয়াড় পরিবর্তন করেন। কিন্তু স্কোরলাইনে পরিবর্তন আনতে পারেনি তার দল।

লিগে নিজেদের মাঠ সান্তিয়াগো বার্নাব্যুয়ে ১৭ মাস পর হেরেছে রিয়াল। ২০১৯ সালের মে মাসে সবশেষ রিয়াল বেতিসের কাছে ঘরের মাঠে হেরেছিল জিদানের দল।

এই হারের পরও বার্সেলোনার চেয়ে এক ম্যাচ বেশি খেলা রিয়াল এগিয়ে আছে তিন পয়েন্টে। সামনের সপ্তাহে এল ক্লাসিকোতে মুখোমুখি হচ্ছে এই দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী।

শেয়ার করুন

মন্তব্য