20201002104319.jpg
20201003015625.jpg
এক কবুতরের দাম ১৬ কোটি টাকা

এক কবুতরের দাম ১৬ কোটি টাকা

এতো দাম দিয়ে কবুতরটি এমনি এমনি কেনেননি ওই চীনা ব্যক্তি। কারণ এটি সাধারণ কোনো কবুতর নয়। এটি বিশেষ প্রজাতির ‘রেসিং পিজন’ হিসেবে পরিচিত।

বেলজিয়ামের একটি কবুতর নিলামে রেকর্ড দামে বিক্রি হয়েছে। রোববার নিলামে উঠালে কবুতরটি চীনের এক ধনী ব্যক্তি প্রায় ১৬ কোটি ১১ লাখ টাকায় কিনে নেন।

দুই বছর বয়সী কবুতরটির নাম নিউ কিম। এটি স্ত্রী কবুতর।

এতো দাম দিয়ে কবুতরটি এমনি এমনি কেনেননি ওই চীনা ব্যক্তি। কারণ এটি সাধারণ কোনো কবুতর নয়। এটি বিশেষ প্রজাতির ‘রেসিং পিজন’ হিসেবে পরিচিত।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রেসিং পিজন ক্যাটেগরিতে নিউ কিমই সবচেয়ে বেশি দামে বিক্রি হওয়ার রেকর্ড গড়েছে। এর আগে অবশ্য একটি পুরুষ রেসিং পিজন ১২ কোটি ৫৮ লাখ ডলারে বিক্রি হয়েছে। চার বছর আগে সেটিই ছিল সবচেয়ে বেশি দামে বিক্রি হওয়া কবুতর।

এই বিশেষ প্রজাতির কবুতরের কাজ হল ওড়ার প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়া। এদের বাড়ি থেকে একটা নির্দিষ্ট দূরত্বে নিয়ে গিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়। এরপর তারা খুব দ্রুতগতিতে উড়ে বাড়িতে পৌঁছে যায়।

বিশ্বব্যাপী কবুতরের এই ওড়ার প্রতিযোগিতা খুব জনপ্রিয়। অনেক দেশের কবুতর নিয়ে ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিয়নশিপও অনুষ্ঠিত হয়। আর এতে মালিক বিপুল পরিমাণ অর্থ জিতে নেন।

কবুতরদের এই প্রতিযোগিতায় সর্বশেষ বিজয়ী আর্মান্ডো, যাকে পরে ফর্মুলা ওয়ান রেস চ্যাম্পিয়ন লুইস হ্যামিলটনের নামে তার নামকরণ করা হয়।

নিউ কিম ২০১৮ সাল থেকে বেশ কয়েকটি প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে জিতেছে। পরে অবশ্য অবসরে পাঠানো হয়েছে তাকে। এরপর কয়েকটি ছানার জন্মও দিয়েছে নিউ কিম।

চীনের যে ব্যক্তি কবুতরটি কিনেছেন তার শখ এমন রেসিং পিজন সংগ্রহে রাখা। এতো দামে বিক্রি করতে পেরে রীতিমত অবাক হয়ে গেছেন কবুতরটির মালিক।

নিলামকারী প্রতিষ্ঠান পিপার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) রয়টার্সকে বলেন, সম্প্রতি চীনে পিজন রেসিং খুব জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। নিউ কিমের দাম বেশি হওয়ার অন্যতম কারণ হচ্ছে, তাকে এখন প্রজনন কাজে ব্যবহার করা হতে পারে।

শেয়ার করুন

মন্তব্য