× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

বিনোদন
Why is the news of Nuhash important? Razor explained
hear-news
player
google_news print-icon

নুহাশের খবরটি কেন গুরুত্বপূর্ণ? রেজার ব্যাখ্যা

নুহাশের-খবরটি-কেন-গুরুত্বপূর্ণ?-রেজার-ব্যাখ্যা
ওয়াহিদ ইবনে রেজা (বাঁয়ে) ও নুহাশ হুমায়ূন। ছবি: সংগৃহীত
‘নুহাশ হুমায়ূনকে যিনি রিপ্রেজেন্ট করছেন তিনি রিপ্রেজেন্ট করেন অরিজিনাল স্পাইডার-ম্যান ট্রিলজি, ডক্টর স্ট্রেঞ্জ মাল্টিভার্সের নির্দেশক স্যাম রাইমিকে। তার মানে এই মুহূর্তে স্যাম রাইমির যেই রিসোর্স, নুহাশের একই রিসোর্স।’

নির্মাতা নুহাশ হুমায়ূনের সঙ্গে চুক্তি হয়েছে আমেরিকান অ্যানোনিমাস কনটেন্ট এবং ক্রিয়েটিভ আর্টিস্ট এজেন্সির (সিএএ)। এ খবরটি কতটা বড় বা কতটা গুরুত্বপূর্ণ সেটাই ব্যাখ্যা করেছেন চলচ্চিত্রকার ওয়াহিদ ইবনে রেজা।

টুয়েন্টিথ সেঞ্চুরি ফক্স, ইউনিভার্সাল পিকচার্স, মার্ভেল স্টুডিওস, ডিসি এন্টারটেইনমেন্ট, সনি পিকচার্সের সিনেমায় কাজ করা ওয়াহিদ ইবনে রেজা তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে লিখেছেন সে ব্যাখ্যা।

খবরটির তাৎপর্য তুলে ধরে রেজা লেখেন, ‘পশ্চিমা দেশে আপনি যদি ক্রিয়েটিভ লাইনে উচ্চ পর্যায়ে কাজ পেতে চান তাহলে আপনার একজন এজেন্ট বা ম্যানেজার লাগবে। তাদের কাজই হচ্ছে আপনার জন্য কাজ খুঁজে আনা। কারণ আপনার ফি এর ১০-১৫% তারা পাবে। আপনি যত কাজ পাবেন তাদের লাভ তত। হলিউডে কোনো বড় কাজ এজেন্ট বা ম্যানেজার ছাড়া হয় না। কেউ কথাই বলবে না আপনার সঙ্গে।

‘তো এই এজেন্সিগুলোর মধ্যে সিএএ হচ্ছে সবচেয়ে বড় এজেন্সিগুলোর মধ্যে একটা। এরা এতই বড় যে সরাসরি আপনি এদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারবেন না। মানে, তারা তখনই আপনার কাছে আসবে যখন তাদের কোনো বর্তমান ক্লায়েন্ট আপনাকে তাদের কাছে রেফার করে। নুহাশ হুমায়ূনকে যিনি রিপ্রেজেন্ট করছেন, তিনি সরাসরি কাকে রিপ্রেজেন্ট করে জানেন? অরিজিনাল স্পাইডার-ম্যান ট্রিলজি, ডক্টর স্ট্রেঞ্জ মাল্টিভার্স-এর নির্দেশক স্যাম রাইমিকে! তার মানে এই মুহূর্তে স্যাম রাইমির যেই রিসোর্স, আমাদের নুহাশের একই রিসোর্স। ব্যাপারটা কি কল্পনা করতে পারছেন? ব্যাপারটা কেউ ভেরিফাই করতে চাইলে আইএমডিবি প্রো অ্যাকাউন্টে দেখে নিতে পারেন।

রেজা আরও লেখেন, ‘এই অভাবনীয় রিসোর্সের সদয় ব্যবহার যে এখনই শুরু হয়ে গেছে তার প্রমাণটা কি জানেন? অ্যানোনিমাস কনটেন্ট, যারা কিনা মি. রোবট, ট্রু ডিটেকটিভ-এর মতো সিরিয়ালের পেছনের প্রোডাকশন কোম্পানি, তারা নুহাশকে সাইন করেছে। এর মানে কী? তারা নুহাশের নেক্সট প্রজেক্ট প্রডিউস করতে চাচ্ছে। কেন করতে চাচ্ছে তারা? কারণ তারা দেখেছে, নুহাশ বাংলাদেশে বসে একটি হাই কনসেপ্টের সিনেমা বানিয়েছে, যা বাণিজ্যিকভাবে সফল হওয়ার ক্ষমতা রাখে, পাশাপাশি আর্টিস্টিক ভ্যালু ক্যারি করে। আজকে কোরিয়ান ফিল্মমেকাররা, মেক্সিকান ফিল্মমেকাররা যা করছে, তা আগামীতে নুহাশ করতে পারবে, সেটা ধারণা করেই এত বড় প্রতিষ্ঠান তার সঙ্গে যুক্ত হয়েছে। এটা যে কী বিশাল একটা ব্যাপার, আমি ভাষায় বোঝাতে পারছি না।’

নুহাশ পরিচালিত মশারী সিনেমাটি সাউথ বাই সাউথ ওয়েস্ট চলচ্চিত্র উৎসব এবং আটলান্টা চলচ্চিত্র উৎসবে পুরস্কৃত হওয়া নিয়ে রেজা লেখেন, ‘পৃথিবীতে ৭০০০ ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল আছে, যারা রেজিস্টার্ড ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল। এর মধ্যে মাত্র ৬৩টি ফেস্টিভ্যাল, মানে মাত্র ০.৯ শতাংশ হচ্ছে অস্কার কোয়ালিফায়িং। অস্কার কোয়ালিফায়িং ফেস্টিভ্যাল মানে কী? মানে, এই ফেস্টিভ্যালে যদি কোনো ফিল্ম কম্পিটিশনে যেতে, শুধু অংশগ্রহণ কিন্তু নয়, শুধুমাত্র যদি বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্রের পুরস্কার পায়, তবে সেই ফিল্মটি অটোমেটিক্যালি অস্কারের দৌড়ে চলে আসবে। তার মানে ধরে নেয়া হবে যে এই বছর সারা পৃথিবীতে যতগুলো শর্ট ফিল্ম হয়েছে, তাদের মধ্যে এই ফিল্মগুলো শ্রেষ্ঠ। এরপর এখন থেকে আস্তে আস্তে শর্টলিস্ট হতে হতে অস্কারের নমিনেশন আসে।

‘এখন এ রকম ফেস্টিভ্যালে শ্রেষ্ঠ হয় কী করে একটা ফিল্ম? সাধারণত এ রকম বড় ফেস্টিভ্যালে গড়ে ৩০০০ করে শর্টফিল্ম জমা পড়ে। সেখান থেকে বিভিন্ন ক্যাটাগরি মিলিয়ে হয়তো ১০টা ফিল্মকে শ্রেষ্ঠ পুরস্কার দেয়া হয়। তার মানে মাত্র ০.৩৩ শতাংশ ফিল্ম এই সম্মান পায়। এখন একই সঙ্গে অস্কার কোয়ালিফাইং ফেস্টিভ্যালে অংশ নিয়ে, সিলেক্ট হয়ে পুরস্কার জেতার চান্স তাহলে গাণিতিকভাবে দাঁড়ায় ০.৯% x ০.৩৩% = .০০২৯৭%। এই জন্য এই অস্বাভাবিক বাজি যারা জিতে নেয়, তাদেরকে বলা হয় বেস্ট অফ দ্য বেস্ট।’

সব শেষে নুহাশকে ধন্যবাদ দিয়েছে ওয়াহিদ ইবনে রেজা। অনেক আগ্রহ নিয়ে তিনি নুহাশের পরবর্তী জাদু দেখার জন্য অপেক্ষা করছেন বলে জানিয়েছেন। পাশাপাশি জানিয়েছেন শুভকামনা।

আরও পড়ুন:
নুহাশ প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে সানড্যান্সে
ফেস্টিভ্যালে নুহাশের ‘মশারী’
নুহাশের পরিচালনায় চারুকলার তিন শিক্ষার্থী
ছবিটা ফেসবুকে দিতে পার: নুহাশকে মা
কানের মার্শে দ্যু ফিল্মে নুহাশের প্রথম সিনেমা

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বিনোদন
Bangladesh has influenced Goa festival and market

গোয়া উৎসব ও বাজারে প্রভাব ফেলেছে বাংলাদেশ

গোয়া উৎসব ও বাজারে প্রভাব ফেলেছে বাংলাদেশ আইএফএফআই-তে অংশ নেয়া বাংলাদেশের শিল্পী, কলাকুশলীদের একাংশ। ছবি: সংগৃহীত
ফিল্ম বাজার থেকে এইড অক্স সিনেমাস দ্যু মুন্দ (ফ্রান্সের ন্যাশনাল ফিল্ম বোর্ড থেকে পরিচালিত) ফান্ড পাওয়া একা সিনেমায় প্রযোজক হিসেবে সম্পৃক্ত আছেন বাংলাদেশের বিজন ইমতিয়াজ।   

ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল অফ ইন্ডিয়া এবং দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম বড় মার্কেট হিসেবে পরিচিত ফিল্ম বাজারে বাংলাদেশের সিনেমা বেশ ভালো প্রভাব ফেলেছে।

রোববার এক প্রতিবেদনে এমনটাই জানিয়েছে আমেরিকান মিডিয়া কোম্পানি ভ্যারাইটি

দেশের পরিচালক বিপ্লব সরকারের ফিচার ফিল্ম আগন্তুক-এর প্রাসাদ ডিআই পুরস্কার পাওয়া, নন-কম্পিটিশন বিভাগে বাংলাদেশের সাঁতাও, পাপ পুণ্য,পাতালঘর সিনেমার প্রদর্শনী এবং আইসিএফটি-ইউনেস্কো গান্ধী মেডেল অ্যাওয়ার্ড বিভাগে নকশিকাঁথার জমিন সিনেমার প্রতিযোগিতা করাকে বিশেষভাবে দেখছে ভ্যারাইটি।

প্রতিবেদনটিতে বলা হয়েছে, উৎসবে অংশ নিয়েছিলেন দেশের প্রযোজক পরিচালক আবু শাহেদ ইমন, চরকির প্রধান পরিচালক কর্মকর্তা রেদোয়ান রনি, জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসানসহ বাংলাদেশের সিনেমাসংশ্লিষ্ট বড় একটি দল।

এ ছাড়া ফিল্ম বাজার থেকে এইড অক্স সিনেমাস দ্যু মুন্দ (ফ্রান্সের ন্যাশনাল ফিল্ম বোর্ড থেকে পরিচালিত) ফান্ড পাওয়া একা সিনেমায় প্রযোজক হিসেবে সম্পৃক্ত আছেন বাংলাদেশের বিজন ইমতিয়াজ।

গোয়া উৎসব এবং ফিল্ম বাজারে দেশের সিনেমা ও সিনেমাসংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের উপস্থিতি-সম্পৃক্ততা নিয়ে ভ্যারাইটিকে আবু শাহেদ ইমন বলেন, ‘এ বছর বাংলাদেশের চারটি ফিচার ফিল্ম এসেছে উৎসবে। এটা চমৎকার একটা ব্যাপার। এর অর্থ বাংলাদেশে ভালো মানের সিনেমা নির্মাণ হচ্ছে। ওটিটির অগ্রসরতা এবং সিনেমার উত্থানকে আমি অনুমান করে বলতে পারি বাংলাদেশ সিনেমার ইতিহাসের অন্যতম সেরা সময়।’

তিনি আরও বলেন, ‘কোভিডের পরে সবাই নতুন সুযোগ খুঁজছে এবং তারা ফিল্ম বাজারের মতো বিভিন্ন ফিল্ম ল্যাব, ওয়ার্কশপ এবং নেটওয়ার্কিং প্রোগ্রামে অংশগ্রহণ করছে। আমি মনে করি আসছে বছরগুলোতে এই অংশগ্রহণ আরও বাড়বে। কারণ দেশে আরও অনেক আকর্ষণীয় সিনেমা/প্রকল্প আসছে’।

আরও পড়ুন:
দৃশ্য কাটার শর্তে ‘জয়ল্যান্ড’-এর নিষেধাজ্ঞা তুলল পাকিস্তান
রাহেলা-সালেহা চরিত্র যুদ্ধে নারীদের ওপর নৃশংসতার প্রতিফলন
আইএফএফআই’র প্রতিযোগিতায় দেশের একটিসহ তিন সিনেমা
‘কুড়া পক্ষীর শূন্যে উড়া’ সিনেমাটির হল নিয়ে হতাশা কাটছে
যুক্তরাষ্ট্রের ১৫ শহরে মুক্তি পাচ্ছে ‘দামাল’

মন্তব্য

বিনোদন
Kajol in Ibrahims debut movie

ইব্রাহিমের ডেবিউ সিনেমায় কাজল

ইব্রাহিমের ডেবিউ সিনেমায় কাজল ইব্রাহিম আলি খান ও কাজল। ছবি: সংগৃহীত
ইমোশনাল থ্রিলার এ সিনেমার গল্প গড়ে উঠেছে কাশ্মীরের সন্ত্রাসবাদকে ঘিরে। সিনেমার গল্প আবর্তিত হবে ইব্রাহিম ও কাজলকে কেন্দ্র করে।

বলিউডের ছোট নবাব সাইফ আলি খান ও অমৃতা সিংয়ের ছোট ছেলে ইব্রাহিম আলী খানের বলিউড অভিষেকের কথা চলছে অনেক দিন ধরেই। এর আগে জানা গিয়েছিল, করণ জোহরের হাত ধরে হতে যাচ্ছে ইব্রাহিমের অভিষেক।

এবার জানা গেল সেই সিনেমায় ইব্রাহিমের সঙ্গে আরও থাকবেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী কাজল। ভারতের একাধিক সংবাদমাধ্যম বিষয়টি নিয়ে সংবাদ প্রকাশ করেছে সোমবার।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানাচ্ছে, নাম প্রকাশ না হওয়া এ সিনেমার মাধ্যমে ১২ বছর পরে করণের প্রযোজনায় কাজ করতে যাচ্ছেন কাজল। সিনেমাটি পরিচালনা করবেন বোমান ইরানির ছেলে কায়োজ ইরানি।

ইমোশনাল থ্রিলার এ সিনেমার গল্প গড়ে উঠেছে কাশ্মীরের সন্ত্রাসবাদকে ঘিরে। সিনেমার গল্প আবর্তিত হবে ইব্রাহিম ও কাজলকে কেন্দ্র করে।

বি-টাউনের নানা সূত্র বলছে, আগামী বছরের প্রথম দিকেই শুরু হবে সিনেমার দৃশ্যধারণ।

মাই নেম ইজ খান সিনেমার পর আর করণের ধর্মা প্রোডাকশনের কাজ করেননি কাজল। অন্যদিকে করণের পরিচালনায় রকি অউর রানি কী প্রেম কহানি সিনেমায় সহকারী পরিচালক হিসেবে কাজ করেছিলেন ইব্রাহিম।

আরও পড়ুন:
দুই রণবীর সিং এক ফ্রেমে
বলিউড অভিনেতা বিক্রম গোখলে মারা গেছেন
কাজলের নতুন সিনেমায় অতিথি আমির
মা হলেন বিপাশা বসু
সালমানকে মাদকাসক্ত বললেন রামদেব

মন্তব্য

বিনোদন
Star Cineplex is opening in Chittagong in December

ডিসেম্বরে চট্টগ্রামে চালু হচ্ছে স্টার সিনেপ্লেক্স

ডিসেম্বরে চট্টগ্রামে চালু হচ্ছে স্টার সিনেপ্লেক্স চট্টগ্রামে চালু হচ্ছে স্টার সিনেপ্লেক্স। ফাইল ছবি: সংগৃহীত
চট্টগ্রাম শহরের চকবাজার এলাকায় (নবাব সিরাজ উদ্দিন রোড) বালি আর্কেড শপিং কমপ্লেক্সে নির্মাণ করা হয়েছে নতুন এ প্রেক্ষাগৃহ। সেখানে থাকছে তিনটি প্রেক্ষাগৃহ। আসন সংখ্যা যথাক্রমে ৮৬ (হল-১), ১৯৬ (হল-২) এবং ১২৫ (হল-৩)।

বিজয়ের মাস ডিসেম্বরে চট্টগ্রামে চালু হচ্ছে আধুনিক প্রেক্ষাগৃহ চেইন স্টার সিনেপ্লেক্সের নতুন শাখা। ২ ডিসেম্বর এই শাখার উদ্বোধন করা হবে। ৩ ডিসেম্বর থেকে দর্শক সেখানে দেখতে পারবেন সিনেমা।

সোমবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে স্টার সিনেপ্লেক্স কর্তৃপক্ষ। চট্টগ্রামের বিশিষ্ট ব্যক্তিরা এবং বিনোদন জগতের তারকারা উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন বলে জানিয়েছেন স্টার সিনেপ্লেক্সের মিডিয়া অ্যান্ড মার্কেটিং বিভাগের সিনিয়র ম্যানেজার মেসবাহ উদ্দিন আহমেদ।

চট্টগ্রাম শহরের চকবাজার এলাকায় (নবাব সিরাজ উদ্দিন রোড) বালি আর্কেড শপিং কমপ্লেক্সে নির্মাণ করা হয়েছে নতুন এ প্রেক্ষাগৃহ।

সেখানে থাকছে তিনটি প্রেক্ষাগৃহ। আসন সংখ্যা যথাক্রমে ৮৬ (হল-১), ১৯৬ (হল-২) এবং ১২৫ (হল-৩)। নান্দনিক পরিবেশ, সর্বাধুনিক প্রযুক্তির সাউন্ড সিস্টেম, জায়ান্ট স্ক্রিনসহ বিশ্বমানের সিনেমা হলের যাবতীয় সুযোগ-সুবিধা থাকছে বলে জানিয়েছেন স্টার সিনেপ্লেক্সের চেয়ারম্যান মাহবুব রহমান রুহেল।

বিজ্ঞপ্তিতে তিনি বলেন, ‘দেশব্যাপী অনেক সিনেমা হল নির্মাণের পরিকল্পনার কথা আগেই জানিয়েছিলাম আমরা। ধারাবাহিকভাবে সেই পরিকল্পনা বাস্তবায়নের কাজ এগিয়ে চলছে। চট্টগ্রামে প্রচুর সিনেমাপ্রেমী দর্শক রয়েছেন, যারা স্টার সিনেপ্লেক্সের মতো একটি মাল্টিপ্লেক্স প্রত্যাশা করেন।

‘আমি নিজে চট্টগ্রামের মানুষ। অনেকেই আমাকে তাদের চাওয়ার কথা বলেছেন। বলা চলে, চট্টগ্রামবাসীর দীর্ঘদিনের দাবি ছিল এটি। এই দাবি পূরণের কাজটি আরও আগেই করতে চেয়েছিলাম। নানা কারণে হয়ে ওঠেনি। এবার কাজটি করতে পেরে আমি আনন্দিত।’

মাহবুব রহমান রুহেল আরও বলেন, ‘দেশের সিনেমা ইন্ডাস্ট্রির প্রসারে আমাদের এই উদ্যোগ অব্যাহত থাকবে। আমরা বিশ্বাস করি, বাংলা সিনেমার সুদিন আবার ফিরে আসবে। পরিবার-পরিজন নিয়ে হলে গিয়ে সিনেমা দেখার সংস্কৃতি আবার চালু হবে। এর জন্য যে পরিবেশ প্রয়োজন সেটা তৈরির চেষ্টা করছি আমরা।’

২০০৪ সালের ৮ অক্টোবর রাজধানীর বসুন্ধরা সিটি শপিং মলে যাত্রা শুরু করে দেশের প্রথম মাল্টিপ্লেক্স সিনেমা হল স্টার সিনেপ্লেক্স। বর্তমানে ঢাকায় ৫টি শাখা রয়েছে এর। ঢাকার বাইরে বগুড়া ও রাজশাহীতে নতুন শাখার নির্মাণকাজ চলছে বলে জানিয়েছেন কর্তৃপক্ষ।

আরও পড়ুন:
অগ্রিম বিক্রির প্রথম দিনেই প্রায় শেষ ৬ মের টিকিট
বঙ্গবন্ধু মিলিটারি মিউজিয়ামে সিনেপ্লেক্স
কিংসম্যান আসছে ঢাকায়!
স্টার সিনেপ্লেক্স এবার চট্টগ্রামে
ঢাকার প্রেক্ষাগৃহে জাপানের অ্যানিমেশন সিনেমা

মন্তব্য

বিনোদন
Two Ranbir Singhs in one frame

দুই রণবীর সিং এক ফ্রেমে

দুই রণবীর সিং এক ফ্রেমে সার্কাস সিনেমায় রণবীর সিংয়ের দুই চরিত্র। ছবি: টিজার থেকে নেয়া
টিজারে পাওয়া গেছে রণবীরের দুটি চরিত্র। পাশাপাশি দেখা গেছে পুরো সার্কাস টিমকে। টিজারে ব্যবহার করা সংলাপে উঠে এসেছে ৬০ বছর আগের জমানার গল্প।

আবারও পরিচালক ও অভিনেতা জুটি। সিম্বা সিনেমার পর বড় পর্দায় একসঙ্গে ফিরছেন পরিচালক রোহিত শেট্টি ও অভিনেতা রণবীর সিং।

তাদের নতুন সিনেমার নাম সার্কাস। সিনেমায় প্রথমবারের মতো দ্বৈত চরিত্রে দেখা যাবে রণবীরকে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, শেকসপিয়ারের নাটক ‘কমেডি অফ এররস’ এর অনুপ্রেরণায় লেখা হয়েছে চিত্রনাট্য। সোমবার প্রকাশ পেয়েছে সিনেমাটির টিজার।

টিজারে পাওয়া গেছে রণবীরের দুটি চরিত্র। পাশাপাশি দেখা গেছে পুরো সার্কাস টিমকে। টিজারে ব্যবহার করা সংলাপে উঠে এসেছে ৬০ বছর আগের জমানার গল্প।

সার্কাস দলের সেই চরিত্রগুলোর কণ্ঠে শোনা যায় গুগল নয়, ছোটদের প্রশ্নের উত্তর দিত দাদা-দাদিরা। সোশ্যাল মিডিয়া না থাকায় লাইক পাওয়ার বিষয়ও ছিল না। মা-বাবা সন্তানের কাছে বেশি গুরুত্ব পেত।

সিনেমায় রণবীরের দুই নায়িকা জ্যাকলিন ও পূজা হেগড়ে। শুধু রণবীরই নন, সিনেমায় দ্বৈত চরিত্রে আরও দেখা যাবে বরুণ শর্মাকেও। সিনেমাটি মুক্তি পাবে ২৩ ডিসেম্বর।

আরও পড়ুন:
সারোগেসির তদন্তে বেরিয়ে এলো বিয়ের নতুন তথ্য
বিয়ের পর ক্যাটরিনার প্রথম ট্রেইলার
প্রভাসের ‘আদিপুরুষ’ নিষিদ্ধের দাবি রাম মন্দিরের পুরোহিতের
৫০টিরও বেশি স্ক্রিপ্ট ফিরিয়ে ‘তিউয়ারি’ সিরিজে ফিরছেন উর্মিলা
রাম-রাবনের গল্পে ‘আদিপুরুষ’, টিজারের ভিএফএক্সে অসোন্তষ

মন্তব্য

বিনোদন
Rubaiyats movie got World Cinema Fund

ওয়ার্ল্ড সিনেমা ফান্ড পেল রুবাইয়াতের সিনেমা

ওয়ার্ল্ড সিনেমা ফান্ড পেল রুবাইয়াতের সিনেমা নির্মাতা রুবাইয়াত হোসেন (বাঁয়ে) ও তার নতুন সিনেমার কনসেপ্ট পোস্টার। ছবি: সংগৃহীত
৫১টি দেশ থেকে জমা পড়া ১৭৬টি প্রকল্পের ৬টি বিভাগে অনেকগুলো প্রকল্পকে চূড়ান্ত করেছেন জুরিরা। সবগুলো প্রকল্প মিলে পাওয়া ফান্ডের পরিমাণ ৪ লাখ ৪০ হাজার ইউরো।

আন্ডারকনস্ট্রাকশন, শিমু খ্যাত পরিচালক রুবাইয়াত হোসেনের নতুন পূর্ণদৈর্ঘ্য সিনেমা দ্য ডিফিকাল্ট ব্রাইড পেয়েছে বার্লিনাল ওয়ার্ল্ড সিনেমা ফান্ড (ডব্লিউসিএফ)।

প্রোডাকশন ফান্ডিং ডব্লিউসিএফ হিসেবে সিনেমাটি পাচ্ছে ৫০ হাজার ইউরো। ইন্টারন্যাশনাল ফিল্মফেস্ট বার্লিনাল-এর ওয়েবসাইটে ২৫ নভেম্বর এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়।

রোববার দ্য ডিফিকাল্ট ব্রাইড সিনেমার প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান খনা টকিজ-এর ফেসবুক পেজ থেকেও তথ্যটি নিশ্চিত করা হয়েছে।

প্রোডাকশন ফান্ডিং পেয়েছে আরও চারটি প্রোজেক্ট। ৫১টি দেশ থেকে জমা পড়া ১৭৬টি প্রকল্প থেকে ৬টি বিভাগে অনেকগুলো প্রকল্পকে চূড়ান্ত করেছেন জুরিরা। সবগুলো প্রকল্প মিলে পাওয়া ফান্ডের পরিমাণ ৪ লাখ ৪০ হাজার ইউরো।

দ্য ডিফিকাল্ট ব্রাইড চলতি বছরের বার্লিনাল কো-প্রোডাকশন মার্কেটে অংশ নিয়েছিল। আর পরিচালক রুবাইয়াত অংশ নিয়েছিলেন ২০১৭ সালের বার্লিনাল ট্যালেন্টসে।

বার্লিনাল কো-প্রোডাকশন মার্কেটে ফান্ড পাওয়ার পর ভ্যারাইটি জানিয়েছিল, সিনেমাটির বাজেট ৮ লাখ ৭৬ হাজার মার্কিন ডলার; যা বাংলাদেশি টাকায় সাড়ে ৭ কোটি টাকারও বেশি। বাজেটের এক-তৃতীয়াংশ বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠান থেকে তোলা হয়েছে বলে জানানো হয় সেই প্রতিবেদনে।

সেই সময় দ্য ডিফিকাল্ট ব্রাইড সম্পর্কে ভ্যারাইটি জানিয়েছিল, নভেরা বর্তমান ঢাকার একজন কনে, যিনি তার হবু বরের সঙ্গে প্রেম করছেন এবং রূপকথার মতো একটি বিয়ের আয়োজনের স্বপ্ন দেখছেন।

একই সঙ্গে নভেরা গোপনে তার শারীরিক সমস্যার সঙ্গে লড়াই করছেন। বিয়ের আচার-অনুষ্ঠানে সমস্যাটি আরও বেড়ে যায় নভেরারা।

নভেরা নিয়মিত বিউটি সেলুনে যায় এবং তার শরীরকে ‘নিরাময়’ করতে ঘরোয়া চিকিৎসা নেন।

মানসিক চাপ, উদ্বেগ এবং মানসিক যন্ত্রণা যখন তার মধ্যে শিকড় গজাতে থাকে তখন সে লম্বা চুলের এক রহস্যময় নারীকে তার কল্পনায় দেখতে শুরু করে।

আরও পড়ুন:
‘শিমু’র উদ্বোধনী প্রদর্শনী ও দর্শক প্রতিক্রিয়া
ডালিয়ার জীবনের গল্প থেকে ‘শিমু’ সিনেমা
‘শিমু’ একটা স্পিরিট, কখনোই নিরাশ হয় না: রুবাইয়াত
রুবাইয়াতের সিনেমা ‘দ্য ডিফিকাল্ট ব্রাইড’ বার্লিনালে
নাম পাল্টে গেছে ‘মেইড ইন বাংলাদেশ’ সিনেমার

মন্তব্য

বিনোদন
Avatar ready to open 150 175 million

১৫০-১৭৫ মিলিয়নের ওপেনিং করতে প্রস্তুত অ্যাভাটার!

১৫০-১৭৫ মিলিয়নের ওপেনিং করতে প্রস্তুত অ্যাভাটার! অ্যাভাটার: দ্য ওয়ে অফ ওয়াটার সিনেমার টিজারের দৃশ্য। ছবি: সংগৃহীত
যদি সিনেমাটি সিনেমা ইতিহাসের তৃতীয় বা চতুর্থ সর্বোচ্চ ইনকাম করা সিনেমার তালিকায় ওঠে, তাহলে বুঝতে হবে সিনেমাটি তার খরচ তুলে আনতে পেরেছে।’

জেমস ক্যামেরন পরিচালিত অ্যাভাটার: দ্য ওয়ে অফ ওয়াটার মুক্তি পেতে যাচ্ছে ডিসেম্বরের ১৬ তে। এরইমধ্যে সিনেমাটির ব্যবসা নিয়ে শুরু হয়ে গেছে নানা হিসাব-কিনাশ।

ভ্যারাইটি জানাচ্ছে, সিনেমাটি নিয়ে নানা রকম ট্র্যাকিংয়ে ধারণা করা হচ্ছে অ্যাভাটার: দ্য ওয়ে অফ ওয়াটার সিনেমাটি প্রথম সপ্তাহে শুধু নর্থ আমেরিকা থেকে তুলে নেবে কমপক্ষে ১৫০ মিলিয়ন ডলার। এমনকি এটা বেড়ে হতে পারে ১৭৫ মিলিয়ন ডলার।

অ্যাভাটারের প্রথম কিস্তি, যেটা মুক্তি পেয়েছিল ২০০৯ সালে, সেটি প্রথম সপ্তাহে ডমিস্টিক্যালি আয় করে ৭৭ মিলিয়ন। সিনেমাটি শেষ পর্যন্ত ২ দশমিক ৭ বিলিয়ন আয় করে বিশ্বব্যাপী।

ভ্যারাইটি বলছে, ২০০৯ সালের পরিসংখ্যানটি কোভিড-পরবর্তী বক্স অফিসের সঙ্গে মেলানো কঠিন হবে। এর কারণ শুধু ১৩ বছরের পার্থক্য নয়। এর আরও কারণের মধ্যে রয়েছে, কোভিডের পরে বক্স অফিস এখনও স্বাভাবিক হয়নি এবং রাশিয়ার মতো বড় বাজার হলিউডের জন্য বন্ধ হয়ে গেছে।

রাশিয়া বন্ধ হলেও চীনের বাজারে ঢোকার অনুমতি পেয়েছে অ্যাভাটার: দ্য ওয়ে অফ ওয়াটার। যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে রাজনৈতিক উত্তেজনা বেড়ে যাওয়ায় চীনের বাজার পাওয়া খুব কঠিন ছিল অ্যাভাটারের জন্য।

জিকিউ-কে দেয়া এক স্বাক্ষাৎকারে ক্যামেরন স্পষ্ট করে বলেছেন যে, ‘অ্যাভাটার: দ্য ওয়ে অফ ওয়াটার সিনেমা নির্মাণে অনেক খরচ হয়েছে। ভালো ব্যবসার জন্য সিনেমাটিকে সব মার্কেটে ঢোকা প্রয়োজন। না হলে এটি সিনেমা ইতিহাসে সবচেয়ে খারাপ ব্যবসার উদাহরণ হয়ে থাকতে পারে। যদি সিনেমাটি সিনেমা ইতিহাসের তৃতীয় বা চতুর্থ সর্বোচ্চ ইনকাম করা সিনেমার তালিকায় ওঠে, তাহলে বুঝতে হবে সিনেমাটি তার খরচ তুলে আনতে পেরেছে।’

আরও পড়ুন:
উত্তেজনা বাড়িয়ে দিল ‘অ্যাভাটার ২’ এর ট্রেইলার
১৩ বছর পর নতুন অ্যাভাটারের টিজার, মুক্তি বছর শেষে
অ্যাভাটারের নতুন পর্বের নাম প্রকাশ
অ্যাভাটার নির্মাণ স্টুডিও বেচলেন অস্কারজয়ী জ্যাকসন

মন্তব্য

বিনোদন
There is only Messi in the fairys eyes

পরীর দু চোখে শুধুই মেসি

পরীর দু চোখে শুধুই মেসি টেলিভিশন পর্দায় মেসির সামনে পরীমনির উল্লাস। ছবি: সংগৃহীত
জয়ের উল্লাসে শামিল হয়েছেন পরীমনি। তাই তো রোববার ভোরে তিনি তার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে লিখেছেন, ‘আল্লাহ রে আমার ঘুম আসতেছে না! মেসি গো মেসি! আমার দুই চোক্ষে শুধুই মেসিইইইইইইই…’

ঘুম আসছে না পরীমনির। অভিনেত্রী মনে করছেন, তার চোখে ফুটবল লেজেন্ড মেসি এসে বসে আছে। বোঝাই যাচ্ছে আর্জেন্টিনার এ সমর্থক কতটা আনন্দে আছেন।

শনিবার রাতে মেক্সিকোকে হারিয়ে ফিফা বিশ্বকাপে প্রথম জয় পেয়েছে আর্জেন্টিনা। আর এই উল্লাস শুরু হয় মেসির দেয়া গোলের মাধ্যমে।

জয়ের উল্লাসে শামিল হয়েছেন পরীমনি। তাই তো রোববার ভোরে তিনি তার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে লিখেছেন, ‘আল্লাহ রে আমার ঘুম আসতেছে না! মেসি গো মেসি! আমার দুই চোক্ষে শুধুই মেসিইইইইইইই…’

শুধু এটাই না, আর্জেন্টিনা-মেক্সিকো খেলা শেষেও ফেসবুকে পোস্ট করে উল্লাস করেছেন এই অভিনেত্রী। একটি ভিডিও পোস্ট করে তিনি লিখেছেন, ‘মেসি একটা ভালোবাসা।’

এক ভিডিওতে দেখা যায়, খেলা শেষে মেসি ক্যামেরার সামনে এসে অনুভূতি জানাচ্ছেন, আর পরী টিভিস্ক্রিনের সামনে গিয়ে মেসিকে দিচ্ছেন উরন্ত চুমু।

খেলার ৬৩ মিনিটের দিকে মেসি প্রথম গোল করলে ফেসবুকে পোস্ট করেন পরী। টিভির পর্দা থেকে তোলা একটি ছবি দিয়ে তিনি লেখেন, ‘ওহ মেসি, আই লাভ ইউ।’

আরও পড়ুন:
পরীর জন্য রাজের ‘জার্সি বদল’
আবারও রাজকে নিয়ে মিমকে খোঁচা পরীমনির
পরীর সমর্থন আর্জেন্টিনায়, রাজের ব্রাজিলে

মন্তব্য

p
উপরে