× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ পৌর নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য

ক্রিকেট
Australia vs Bangladesh or Australia vs do not?
hear-news
player
print-icon

অস্ট্রেলিয়ার প্রতিপক্ষ বাংলাদেশ না করোনা?

অস্ট্রেলিয়ার-প্রতিপক্ষ-বাংলাদেশ-না-করোনা? শের-ই-বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুশীলনে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল। ছবি: ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া
রকিবুল হাসানের মতে করোনার ভেতর অস্ট্রেলিয়ার কয়েকটি চাওয়া যৌক্তিক। কেননা সবার আগে সুরক্ষাই সবার কাছে প্রাধান্য পায়। কিন্তু বাকিগুলোর ব্যাপারে তিনি নিশ্চিত নন।

করোনাভাইরাস মহামারির মধ্যেই বাংলাদেশ ঘরের মাঠে বেশ কিছু টুর্নামেন্ট ও সিরিজ আয়োজন করেছে। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল), জাতীয় ক্রিকেট লিগসহ (এনসিএল) বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) সফলভাবে আয়োজন করেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে আন্তর্জাতিক সিরিজ।

শ্রীলঙ্কা যখন বাংলাদেশে আসে সে সময় সিরিজ আয়োজন করতে এতটা বেগ পেতে হয়নি বিসিবিকে। ছিল না বাড়তি কোনো শর্তের চাপ।

অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট বোর্ড (সিএ) বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজ খেলার আগে জুড়ে দিয়েছে একগাদা শর্ত। বাংলাদেশ - অস্ট্রেলিয়ার ৫ ম্যাচ সিরিজে মোট সময় কোয়ারেন্টিনসহ ১৩ দিন।

এই ১৩ দিনে দুই দলের খাবার ও হোটেল থাকা বাবদ খরচ ৬.৫ কোটি টাকা বলে জানিয়েছে বিসিবি। দুই দলের স্টাফ ও খেলোয়াড়দের করোনা পরীক্ষায় খরচ হবে ৪০ লাখ টাকা।

আনুষাঙ্গিক সবকিছু মিলিয়ে ১০ কোটি টাকার মত খরচ হবে অস্ট্রেলিয়া সিরিজ আয়োজনে। এরপর আরও কিছু বিষয় কঠোর ভাবে পালন করেছে সিএ।

১। বিমানবন্দরে ইমিগ্রেশন চ্যানেল অতিক্রম না করে বিমান থেকে নেমে সরাসরি হোটেলে চলে গেছে অজিরা।

২। হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে ১২০ রুম খেলোয়াড়রা ছাড়া বাইরের কোনো ব্য়াক্তি থাকতে পারবে না।

৩। দুই দল থাকার একই হোটেলে থাকার পরও হোটেলের জিম ব্যবহার করবে শুধু অস্ট্রেলিয়া।

৪। মাঠে খেলোয়াড় বাদে বাকিরা থাকবে ৫ মিটার দূরে। মাঠকর্মীরা খেলার পরে মাঠে ঢুকতে পারবেন।

৫। ব্রডকাস্টাররা মাঠে ঢুকতে পারবে না। গ্যালারি থেকে ছবি নিতে হবে।

এছাড়াও ঢাকা ও চট্টগ্রামে সিরিজ আয়োজনের কথা থাকলেও সিএর অনুরোধে শুধু একটা ভেন্যুতেই খেলার সূচি করেছে বিসিবি। করোনার সময়ে দিয়ে অন্যান্য বোর্ডও নিয়মিত সিরিজ আয়োজন করে আসছে। কোনো বোর্ডকেই এতো সব শর্ত মেনে সিরিজ আয়োজন করতে হচ্ছে না।

তাহলে কেন বিসিবি এক প্রকারে সিএকে অনুরোধ করে সিরিজটি আয়োজন করতে যাচ্ছে? আরো বড় প্রশ্ন বিসিবির এমন নমনীয়তার সুযোগ কি ভবিষ্যতে অন্যান্য বোর্ড নেবে না?

উত্তরটা দিলেন বাংলাদেশের সাবেক অধিনায়ক রকিবুল হাসান। এই ক্রিকেট কিংবদন্তি বলেন করোনার ভেতর অস্ট্রেলিয়ার কয়েকটি চাওয়া যৌক্তিক। কেননা সবার আগে সুরক্ষাই সবার কাছে প্রাধান্য পায়। কিন্তু বাকিগুলোর ব্যাপারে তিনি নিশ্চিত নন।

নিউজবাংলাকে রকিবুল বলেন, ‘আমরাও (বাইরে গেলে) চাইব সুরক্ষা বলয়ের মধ্যে থাকতে। অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেটের দিক দিয়ে আমাদের চেয়ে অনেক বড় দেশ। অস্ট্রেলিয়ার মতো একটা দলকে আমাদের দেশে আনা এই করোনার সময় একটা বড় ব্যপার।’

তিনি যোগ বলেন, ‘অস্ট্রেলিয়া বিভিন্নভাবে আমাদের দেশে এখন কোভিডের যে ঊর্ধ্বমুখী অবস্থা, সেই সঙ্গে নানা সত্য মিথ্যা মিলিয়ে খবর জেনেছে। এমনিতেও পশ্চিমা দেশগুলোর আমাদের নিয়ে একটা নাক সিটকানো ভাব থাকেই। সেটাকে তারা সামনে বেশি করে নিয়ে এসেছে।’

বাংলাদেশের পরিবর্তে অন্য কোনো দেশ হলে সেখানে দৃশ্যপট ভিন্ন হত বলেও মন্তব্য করেন সাবেক এই ক্রিকেটার।

রকিবুল বলেন, ‘তাদের চাওয়াকে আমাদের সম্মান করতে হচ্ছে। আমাদের জায়গায় ভারত হলে বলতো গো টু হেল। আমি যেটা দিব সেটা তোমাকে নিতে হবে। তুমি মেহমান, তোমার থাকা খাওয়া সুরক্ষা সব আমার দায়িত্ব। এটা বলার ক্ষমতা ভারতের মতো দেশের আছে। আমাদের নেই। ক্রিকেটের দিক থেকেও আমরা তৃতীয় বিশ্ব। অন্যান্য দিক থেকেও আমরা তৃতীয় বিশ্ব।’

কয়েকটি শর্ত যৌক্তিক হলেও অজিদের কয়েকটি শর্ত নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন রকিবুল।

বলেন, ‘অনেক কিছু তারা চেয়েছে। শ্রীলঙ্কা হলে তারা হয়তো এতো কিছু চাইতো না। অস্ট্রেলিয়া বলেছে মাঠে কোনো গ্রাউন্ডসম্যান তাদের কাছে আসতে পারবে না। তারা সুইমিং পুলও স্যাক্রিফাইস করে দিয়েছে যে বাংলাদেশের খেলোয়াড়রা সুইমিং করবে। তারা করবে না। এগুলো বোকার মতো চিন্তাভাবনা আমি মনে করি।’

শর্ত ও বিধিনিষেধ মেনে সিরিজ শুরু হচ্ছে আজ সন্ধ্যায়। এতো কিছুর পর অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে কেমন পারফরম্যান্স করেন সাকিব-মাহমুদউল্লাহরা সেটার অপেক্ষায় রয়েছেন টাইগার ক্রিকেটের ভক্তরা।

আরও পড়ুন:
ওয়েডের নেতৃত্বে অস্ট্রেলিয়ার ১৭ সদস্যের দল
টি-টোয়েন্টি খেলতে ঢাকায় অস্ট্রেলিয়া দল

মন্তব্য

আরও পড়ুন

ক্রিকেট
Sabbir Soumya was called to the Bangladesh Tigers camp

বাংলাদেশ টাইগার্স ক্যাম্পে সাব্বির-সৌম্য

বাংলাদেশ টাইগার্স ক্যাম্পে সাব্বির-সৌম্য টাইগার্স ক্যাম্পে ডাক পেয়েছেন সাব্বির রহমান ও সৌম্য সরকার। ছবি: সংগৃহীত
ঢাকায় ক্যাম্প শুরুর দিন থেকে ৫ জুন পর্যন্ত হবে ক্রিকেটারদের ফিটনেস টেস্ট। এরপর এক সপ্তাহের বিরতি দিয়ে ১২ জুন থেকে শুরু হবে স্কিল টেস্ট।

গত ফ্রেব্রুয়ারিতে বগুড়ার শহীদ চান্দু স্টেডিয়ামে জাতীয় দলের বাইরে থাকা ক্রিকেটারদের নিয়ে অনুষ্ঠিত হয় ‘বাংলাদেশ টাইগার্সের’ প্রথম ক্যাম্প। সেই সফল ক্যাম্পের পর আবার টাইগার্স ক্যাম্পের জন্য ২৯ সদস্যের দল ঘোষণা করেছে বিসিবি।

বুধবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিসিবি জানায়, মিরপুরের শের-ই বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ২৭ মে থেকে শুরু হবে বিশেষ এই ক্যাম্প।

এবারের ক্যাম্পে ডাক পেয়েছেন দীর্ঘদিন জাতীয় দলের বাইরে থাকা সাব্বির রহমান। একই সঙ্গে রাখা হয়েছে ওপেনার সৌম্য সরকার, সাদমান ইসলাম ও পেইসার আবু জায়েদ রাহীকে।

ঢাকায় ক্যাম্প শুরুর দিন থেকে ৫ জুন পর্যন্ত হবে ক্রিকেটারদের ফিটনেস টেস্ট। এরপর এক সপ্তাহের বিরতি দিয়ে ১২ জুন থেকে শুরু হবে স্কিল টেস্ট।

ঘরোয়া ক্রিকেট থেকে বাদ পড়া বা নতুন ক্রিকেটারদের জন্যই মূলত এই বিশেষ ক্যাম্পের আয়োজন করেছে বিসিবি। প্রতিভাবান ক্রিকেটার ও উঠতি ক্রিকেটারদের সম্ভাবনার জায়গা তৈরি করতেই বিশেষ এই ক্যাম্পের আয়োজন।

ক্যাম্পে যারা আছেন ডাক পেয়েছেন:

সৌম্য সরকার, সাব্বির রহমান, সাদমান ইসলাম, সাইফ হাসান, জাকির হাসান, ফজলে রাব্বি, মোহাম্মদ মিঠুন, আশিক উল আলম, নাহিদুল হক, সানজামুল ইসলাম, মোহাম্মদ নাঈম শেখ, আলামিন হোসেন, আবু হায়দার রনি, মেহেদী হাসান রানা, আবু জায়েদ চৌধুরী রাহী, কামরুল ইসলাম রাব্বি, নাঈম ইসলাম, রনি তালুকদার, পিনাক ঘোষ, জাকির আলী অনিক, সাজ্জাদুল রিপন, শাহীন আলম, জাকিরুল আহমেদ, আবদুল হালিম, মাইশুকুর রিয়াল, হাসান মাহমুদ, রাকিব আহমেদ, সৈকত আলী, নাজমুল ইসলাম অপু।

আরও পড়ুন:
সাকিব শেন ওয়ার্নের মতো: ডনাল্ড
শেষ দুই দিন উইকেট থেকে স্পিনের আশায় শ্রীলঙ্কা
তৃতীয় দিনশেষে ৮৩ রানে এগিয়ে বাংলাদেশ

মন্তব্য

ক্রিকেট
Like Shakib Shane Warne Donald

সাকিব শেন ওয়ার্নের মতো: ডনাল্ড

সাকিব শেন ওয়ার্নের মতো: ডনাল্ড সাকিবের উইকেট উদযাপন। ছবি: এএফপি
সাকিবের পাফরম্যান্স মুগ্ধ করেছে জাতীয় দলের পেইস বোলিং কোচ অ্যালান ডনাল্ডকে। এতোটাই যে সাকিবকে তিনি বসিয়ে দিয়েছেন স্পিন কিংবদন্তী শেন ওয়ার্নের পাশে।

সাকিব আল হাসান এমন একজন ক্রিকেটার দলে যার উপস্থিতি টনিকের মতো কাজ করে বাকিদের জন্য। তিনি দলে থাকা মানে একজন অতিরিক্ত বোলার ও ব্যাটারের সার্ভিস পাওয়া। নিজের পারফরম্যান্স ও রেকর্ড দিয়ে বিশ্বসেরা তো বটেই সর্বকালের সেরাদের সঙ্গেও টেক্কা দিচ্ছেন টাইগার অলরাউন্ডার।

চলতি শ্রীলঙ্কা টেস্টে ব্যাট হাতে জ্বলে উঠতে না পারলেও বল হাতে ঘাটতি পূরণ করে দিচ্ছেন সাকিব। সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে এখন পর্যন্ত লঙ্কানদের ৫ উইকেটের ৩টিই গেছে সাকিবের ঝুলিতে।

ঢাকা টেস্টের তৃতীয় দিন সাকিব দুর্দান্ত এক আর্ম বলে করুনারত্নকে বোল্ড করেন। সেই ডেলিভারিটির সঙ্গে অনেক মিল রয়েছে শেন ওয়ার্নের করা একটি বলের। ২০০৫ সালের অ্যাশেজে ইংলিশ তারকা ব্যাটার অ্যান্ড্রু স্ট্রাউসকে ঠিক এমনই এক ডেলিভারিতে মাঠছাড়া করেছিলেন ওয়ার্ন।

সাকিবের পাফরম্যান্স মুগ্ধ করেছে জাতীয় দলের পেইস বোলিং কোচ অ্যালান ডনাল্ডকে। এতোটাই যে সাকিবকে তিনি বসিয়ে দিয়েছেন স্পিন কিংবদন্তী শেন ওয়ার্নের পাশে।

সাকিব শেন ওয়ার্নের মতো: ডনাল্ড

সাকিবের প্রশংসা করে সংবাদসম্মেলনে ডনাল্ড বলেন, ‘সাকিবের মতো ছেলেকে কী শেখাব? শেন ওয়ার্নের মতো তার অনেক অভিজ্ঞতা। পুরো বিশ্বে ঘুরে বেড়ায়। আমি জানি ওর আর হেরাথের খুবই গাঢ় সম্পর্ক। যখনই তাদের দরকার হয় কথা বলে।’

চতুর্থ দিন শেরে বাংলার উইকেট থেকে স্পিনারদের কিছুটা বেশি সুবিধা পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আর সেটি কাজে লাগিয়ে ৫ উইকেট নিজের ঝুলিতে পুরতে সক্ষম হবেন বাঁহাতি এই অলরাউন্ডার, এমনটাই আশা করছেন প্রোটিয়া এই কোচ।

ডনাল্ড বলেন, ‘এবি ডি ভিলিয়ার্স আমাকে বলেছিল যে সাকিবের বিপক্ষে খেল কঠিন। সে একজন স্মার্ট বোলার। সে খুবই সূক্ষ্মভাবে তার গতি বদলায়। কাল যদি সে ৫ উইকেট নিতে পারে তাহলে অসাধারণ হবে। তাকে দলে পাওয়া দুর্দান্ত বিষয়। তার অভিজ্ঞতা বা নেতৃত্ব দলের জন্য অমূল্য।’

আরও পড়ুন:
প্রথম ইনিংসে যতটা সম্ভব বড় লিডের চেষ্টা থাকবে: লিটন
নিজের ব্যাটিং পজিশন নিয়ে সন্তুষ্ট লিটন
দ্বিতীয় দিনশেষে সমানে সমান বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা
নিষ্প্রাণ মিরপুরে বাংলাদেশকে ব্রেক থ্রু দিলেন এবাদত
৬ ডাক ও ২ সেঞ্চুরির অনন্য রেকর্ড মুশফিকদের

মন্তব্য

ক্রিকেট
Sri Lanka is dreaming of victory with two days in hand

শেষ দুই দিন উইকেট থেকে স্পিনের আশায় শ্রীলঙ্কা

শেষ দুই দিন উইকেট থেকে স্পিনের আশায় শ্রীলঙ্কা লঙ্কার ইনিংসের দুই অপরাজিত ব্যাটার ম্যাথিউস ও চান্ডিমাল। ছবি: এএফপি
বাংলাদেশের ইনিংসের শুরু থেকে যদি উইকেট স্পিন বান্ধব আচরণ করে তবে ফল নিজেদের দিকে আসবে বলে মনে করছেন শ্রীলঙ্কার সহকারী কোচ নাভিদ নেওয়াজ।

বৃষ্টিবিঘ্নিত ঢাকা টেস্টের তৃতীয় দিন প্রথম ইনিংসে ৮৩ রানে পিছিয়ে থেকে শেষ করেছে শ্রীলঙ্কা। তৃতীয় দিন শেষে ২৮২ রানের পুঁজি পেয়েছে সফরকারী দল। হাতে রয়েছে ৫ উইকেট।

টেস্টে এখনও বাকি দুই দিন। দুই দিন আগেই জয়ের স্বপ্ন বোনা শুরু করেছে লঙ্কানরা। বাংলাদেশের ইনিংসের শুরু থেকে যদি উইকেট স্পিন বান্ধব আচরণ করে তবে ফল নিজেদের দিকে আসবে বলে মনে করছেন শ্রীলঙ্কার সহকারী কোচ নাভিদ নেওয়াজ।

ঢাকা টেস্টের তৃতীয় দিনের একটি সেশন ধুয়ে গেছে বৃষ্টিতে। যে কারণে লঙ্কানদের লিডের সম্ভাবনা জাগলেও সেটিও ধুয়ে দেয় বৃষ্টি। দেড় দিন ব্যাটিং করেও বাংলাদেশের করা ৩৬৫ রান টপকাতে পারেনি লঙ্কানরা।

চতুর্থ দিন অল আউট হওয়ার আগে লিড নিয়ে মাঠ ছাড়ার বিষয়ে আশাবাদী লঙ্কান এই কোচ। এরপর স্পিন বিষে নীল করে বাংলাদেশকে অল্পতে গুটিয়ে দিতে চায় তারা।

বুধবার তৃতীয় দিনের খেলা শেষে সংবাদসম্মেলনে নাভিদ বলেন, ‘দুর্ভাগ্যবশত আমরা একটি সেশন মিস করেছি বৃষ্টির জন্য। আগামীকাল খুব কঠিন একটি দিন হতে যাচ্ছে। যদি উইকেটে আরও কিছুটা স্পিন ধরে চতুর্থ দিনের শেষে ও পঞ্চম দিনে, তাহলে আমি আশাবাদী আমাদের জয়ের বিষয়ে।’

আরও পড়ুন:
নিজের ব্যাটিং পজিশন নিয়ে সন্তুষ্ট লিটন
দ্বিতীয় দিনশেষে সমানে সমান বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা
নিষ্প্রাণ মিরপুরে বাংলাদেশকে ব্রেক থ্রু দিলেন এবাদত
৬ ডাক ও ২ সেঞ্চুরির অনন্য রেকর্ড মুশফিকদের
৩৬৫ রানে গুটিয়ে গেল বাংলাদেশ

মন্তব্য

ক্রিকেট
At the end of the day Shakib put Bangladesh ahead

তৃতীয় দিনশেষে ৮৩ রানে এগিয়ে বাংলাদেশ

তৃতীয় দিনশেষে ৮৩ রানে এগিয়ে বাংলাদেশ তৃতীয় দিনের খেলা শেষে মাঠ ছাড়ছেন দুই দলের ক্রিকেটাররা। ছবি: এএফপি
এখনও প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের চেয়ে ৮৩ রানে পিছিয়ে রয়েছে শ্রীলঙ্কা। দিন শেষে ৫৮ রানে অপরাজিত আছেন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস। তাকে ১০ রানে সঙ্গ দিচ্ছেন দিনেশ চান্ডিমাল।

বৃষ্টিবিঘ্নিত ঢাকা টেস্টের তৃতীয় দিনটা নিজেদের হাতে রেখে শেষ করল বাংলাদেশ। এবাদতের উইকেটে দিন শুরুর পর শেষ করেছেন সাকিব আল হাসান। দিন শেষে পাঁচ উইকেটের খরচায় শ্রীলঙ্কার সংগ্রহ ২৮২ রান।

এখনও প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের চেয়ে ৮৩ রানে পিছিয়ে রয়েছে শ্রীলঙ্কা। দিন শেষে ৫৮ রানে অপরাজিত আছেন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস। তাকে ১০ রানে সঙ্গ দিচ্ছেন দিনেশ চান্ডিমাল।

বুধবার ২২২ রানে পিছিয়ে থেকে তৃতীয় দিন শুরু করা লঙ্কানরা দিনের শুরুতে হারায় কাসুন রাজিথাকে। দিনের প্রথম ওভারের দ্বিতীয় বলে তাকে বোল্ড করেন এবাদত হোসেন।

এরপর উইকেটের একপ্রান্ত আগলে সেঞ্চুরির দিকে ব্যাট চালাতে শুরু করা দিমুথ করুনারত্নেকে ফেরান সাকিব। দুর্দান্ত এক আর্ম বলে বিভ্রান্ত হয়ে স্টাম্প হারান লঙ্কান দলপতি।

মাঠ ছাড়ার আগে তার ব্যাট থেকে আসে ৮০ রান। এর মধ্য দিয়ে ১৬৪ রানে চতুর্থ উইকেটের পতন ঘটে শ্রীলঙ্কার।

বেলা ১২টায় মিরপুরের বৃষ্টির বাধায় বন্ধ হয়ে যায় খেলা। সেই সময় ঘোষণা করা হয় মধ্যাহ্ন বিরতিও। ৪০ মিনিট বিরতির জন্য নির্ধারিত থাকলেও বৃষ্টি না থামায় মাঠে নামা হয়নি ক্রিকেটারদের। বৃষ্টিতে ধুয়ে যায় পুরো দ্বিতীয় সেশনের খেলাও।

বৃষ্টি থামার পর ২টা ৩৮ মিনিট থেকে শুরু হয় মাঠের কভার সরিয়ে নেয়ার প্রক্রিয়া। মোট ৪ ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর বিকেল ৪টায় শুরু হয় তৃতীয় সেশন।

খেলা শুরুর পর দৃঢ় হাতে উইকেট আগলে রানের চাকা সচল রাখেন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস ও ধনঞ্জয়া ডি সিলভা। ১০০ রানের জুটি গড়ার পথে দুই জন তুলে নেন ব্যক্তিগত অর্ধশতক।

দলীয় ২৬৬ রানে সাকিবের বলে ডি সিলভা ধরা দেন উইকেটের পেছনে। উইকেটের পেছনে থাকা লিটন দাস ও মাহমুদুল জয়ের আপিলে আম্পায়ার সায় না দিলে রিভিউয়ের সিদ্ধান্ত নেন বাংলাদেশের অধিনায়ক মুমিনুল হক।

সেই রিভিউ থেকে ডি সিলভাকে হারায় শ্রীলঙ্কা। মাঠ ছাড়ার আগে তার ব্যাট থেকে আসে ৫৮ রান। দিনের বাকিটা সময় কাটিয়ে দেন ম্যাথিউস ও দিনেশ চান্ডিমাল মিলে।

আরও পড়ুন:
দ্বিতীয় দিনশেষে সমানে সমান বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা
নিষ্প্রাণ মিরপুরে বাংলাদেশকে ব্রেক থ্রু দিলেন এবাদত
৬ ডাক ও ২ সেঞ্চুরির অনন্য রেকর্ড মুশফিকদের
৩৬৫ রানে গুটিয়ে গেল বাংলাদেশ
চার উইকেট হারিয়ে মধ্যাহ্ন বিরতিতে বাংলাদেশ

মন্তব্য

ক্রিকেট
Tamim Mushfiq and Litons improvement in ranking

র‍্যাঙ্কিংয়ে উন্নতি তামিম, মুশফিক ও লিটনের

র‍্যাঙ্কিংয়ে উন্নতি তামিম, মুশফিক ও লিটনের ঢকা টেস্টে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে মুশফিক-লিটনের সেঞ্চুরি উদযাপন। ছবি: বিসিবি
৩৩ থেকে ২৭ তম অবস্থানে উঠে এসেছেন তামিম।  তিন ধাপ উঠে এসেছেন লিটন দাস। ৬৬২ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে র‍্যাঙ্কিংয়ের ১৭ নম্বরে অবস্থান করছেন ডানহাতি এই ব্যাটার। ৪ ধাপ এগিয়ে ২৫ নম্বরে অবস্থান করছেন মুশফিকুর রহিম।

আইসিসি টেস্ট র‍্যাঙ্কিংয়ে ব্যাটিং তালিকায় উন্নতি হয়েছে বাংলাদেশের তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিম ও লিটন দাসের। শ্রীলংকার বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্টে বাংলাদেশের প্রথম ইনিংসে সেঞ্চুরি করেন তামিম ইকবাল ও মুশফিকুর রহিম।

তামিম ১৩৩ ও মুশফিক ১০৫ রান করেন। বাংলাদেশের প্রথম ব্যাটার হিসেবে ৫ হাজার রানও পূর্ণ করেন মুশফিক। ঐ ইনিংসে ৮৮ রান করেন লিটন। ফলে আইসিসি তালিকায় উন্নতি হয়েছে এ তিন ব্যাটারের।

বুধবার প্রকাশিত আইসিসির টেস্ট র‍্যাঙ্কিংয়ে ৩৩ থেকে ২৭ তম অবস্থানে উঠে এসেছেন তামিম। তিন ধাপ উঠে এসেছেন লিটন দাস। ৬৬২ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে র‍্যাঙ্কিংয়ের ১৭ নম্বরে অবস্থান করছেন ডানহাতি এই ব্যাটার। ৪ ধাপ এগিয়ে ২৫ নম্বরে অবস্থান করছেন মুশফিকুর রহিম।

চট্টগ্রাম টেস্টে ছয় উইকেট নিয়েছিলেন নাঈম হাসান। একই সঙ্গে বল হাতে আলো ছড়ান সাকিবও।

দ্বিতীয় টেস্টে সেঞ্চুরির দেখা পেয়েছেন মুশফিক। শতক হাঁকিয়েছেন লিটন দাসও। দলকে খাদের কিনারা থেকে এই দুই ব্যাটার টেনে নিয়ে গেছেন নিরাপত্তার দিকে।

সিরিজ জুড়ে দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের কারণে র‍্যাঙ্কিংয়ে উন্নতি হয়েছে তামিম, লিটন, মুশফিক, সাকিব ও নাঈমের।

হালনাগাদ হওয়া বোলারদের নতুন র‍্যাঙ্কিংয়ে একধাপ এগিয়েছেন সাকিব আল হাসান। ৫৭০ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে তার অবস্থান ২৯ নম্বরে। আর র‍্যাঙ্কিংয়ে ৯ ধাপ উন্নতি করে ৫৩তে অবস্থান করছেন নাঈম।

আরও পড়ুন:
মিরপুরে ৪ ঘণ্টা পর আবারও শুরু খেলা
বৃষ্টিতে ধুয়ে গেল দ্বিতীয় সেশন
প্রথম ইনিংসে যতটা সম্ভব বড় লিডের চেষ্টা থাকবে: লিটন

মন্তব্য

ক্রিকেট
The game rolled on the field 4 hours after the rain stopped

মিরপুরে ৪ ঘণ্টা পর আবারও শুরু খেলা

মিরপুরে ৪ ঘণ্টা পর আবারও শুরু খেলা তৃতীয় দিন শেষ সেশনে ব্যাট করছেন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস। ছবি: এএফপি
বেলা ১২টায় বৃষ্টির কারণে বন্ধ হয়ে যায় খেলা। সেই সময় ঘোষণা করা হয় মধ্যাহ্ন বিরতিও। ৪০ মিনিট বিরতির জন্য নির্ধারিত থাকলেও বৃষ্টি না থামায় মাঠে নামা হয়নি ক্রিকেটারদের। একইসঙ্গে বৃষ্টিতে ধুয়ে যায় পুরো দ্বিতীয় সেশনের খেলা।

ঢাকা টেস্টের তৃতীয় দিন মধ্যাহ্ন বিরতির ঠিক আগ মুহূর্তে বৃষ্টি বাধায় বন্ধ হয়ে যায় খেলা। বৃষ্টিতে ৪ ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর অবশেষে মাঠে নেমেছে দুই দল। বন্ধ হওয়ার আগ পর্যন্ত প্রথম সেশনে শ্রীলঙ্কার সংগ্রহ ছিল ৪ উইকেটের খরচায় ২১০ রান।

দ্বিতীয় টেস্টের তৃতীয় দিনের প্রথম ওভারে কাসুন রাজিথাকে ফিরিয়ে শুভসূচনা করেন এবাদত হোসেন। ওভারের দ্বিতীয় বলে তাকে বোল্ড করে পতন ঘটান লঙ্কানদের তৃতীয় উইকেটের।

এরপর উইকেটের একপ্রান্ত আগলে সেঞ্চুরির দিকে ব্যাট চালাতে শুরু করা দিমুথ করুনারত্নেকে ফেরান সাকিব। দুর্দান্ত এক আর্ম বলে বিভ্রান্ত হয়ে স্টাম্প হারান লঙ্কান দলপতি।

মাঠ ছাড়ার আগে তার ব্যাট থেকে আসে ৮০ রান। এর মধ্য দিয়ে ১৬৪ রানে চতুর্থ উইকেটের পতন ঘটে শ্রীলঙ্কার।

এরপর বেলা ১২টায় বৃষ্টির কারণে বন্ধ হয়ে যায় খেলা। সেই সময় ঘোষণা করা হয় মধ্যাহ্ন বিরতিও। ৪০ মিনিট বিরতির জন্য নির্ধারিত থাকলেও বৃষ্টি না থামায় মাঠে নামা হয়নি ক্রিকেটারদের। একইসঙ্গে বৃষ্টিতে ধুয়ে যায় পুরো দ্বিতীয় সেশনের খেলা।

বৃষ্টি থামার পর ২টা ৩৮ মিনিট থেকে শুরু হয় মাঠের কভার সরিয়ে নেয়ার প্রক্রিয়া। প্রায় ৪ ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর বিকেল ৩টা ৫৮ মিনিটে শুরু হয় তৃতীয় সেশনের খেলা।

আরও পড়ুন:
৬ ডাক ও ২ সেঞ্চুরির অনন্য রেকর্ড মুশফিকদের
৩৬৫ রানে গুটিয়ে গেল বাংলাদেশ
চার উইকেট হারিয়ে মধ্যাহ্ন বিরতিতে বাংলাদেশ
মুশফিকের দেড় শতে বড় সংগ্রহের পথে বাংলাদেশ
দিনের শুরুতেই রাজিথার জোড়া আঘাত

মন্তব্য

ক্রিকেট
Two teams at lunch break with rain on their heads

বৃষ্টিতে ধুয়ে গেল দ্বিতীয় সেশন

বৃষ্টিতে ধুয়ে গেল দ্বিতীয় সেশন বৃষ্টিতে মাঠ ছাড়ছেন বাংলাদেশ দলের খেলোয়াড়রা। ছবি: এএফপি
প্রথম সেশনে শ্রীলঙ্কার সংগ্রহ ৪ উইকেটের খরচায় ২১০ রান। এখনও বাংলাদেশের চেয়ে ১৫৫ রানে পিছিয়ে আছে লঙ্কানরা।

ঢাকা টেস্টের তৃতীয় দিন আঘাত হেনেছে বৃষ্টি। বেলা ১২টায় বৃষ্টি হানা দেয়ায় বন্ধ করে দেয়া হয় খেলা। আম্পায়াররা মধ্যাহ্ন বিরতির ঘোষণা করে দেন। এরপর বৃষ্টি না কমায় দ্বিতীয় সেশনেও আর খেলা হয়নি।

বুধবার প্রথম সেশনে শ্রীলঙ্কার সংগ্রহ ৪ উইকেটের খরচায় ২১০ রান। এখনও বাংলাদেশের চেয়ে ১৫৫ রানে পিছিয়ে আছে লঙ্কানরা।

দিনের প্রথম ওভারে কাসুন রাজিথাকে ফেরান এবাদত। ওভারের দ্বিতীয় বলে তাকে বোল্ড করে পতন ঘটান লঙ্কানদের তৃতীয় উইকেটের।

এরপর উইকেটের একপ্রান্ত আগলে সেঞ্চুরির দিকে ব্যাট চালাতে শুরু করা দিমুথ করুনারত্নেকে ফেরান সাকিব। দুর্দান্ত এক আর্ম বলে বিভ্রান্ত হয়ে স্টাম্প হারান লঙ্কান দলপতি।

মাঠ ছাড়ার আগে তার ব্যাট থেকে আসে ৮০ রান। এর মধ্য দিয়ে ১৬৪ রানে চতুর্থ উইকেটের পতন ঘটল শ্রীলঙ্কার।

এর আগে প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের করা ৩৬৫ রানের জবাবে দ্বিতীয় দিন শেষে ২ উইকেট হারিয়ে লঙ্কানদের সংগ্রহ ১৪৩ রান। বাংলাদেশ দিনের দ্বিতীয় সেশনে ৩৬৫ রানে অলআউট হয়ে যায়।

আরও পড়ুন:
প্রথম ইনিংসে যতটা সম্ভব বড় লিডের চেষ্টা থাকবে: লিটন
নিজের ব্যাটিং পজিশন নিয়ে সন্তুষ্ট লিটন
দ্বিতীয় দিনশেষে সমানে সমান বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা

মন্তব্য

p
উপরে