লাশ ছয় টুকরা করে সেপটিক ট্যাংকে

লাশ ছয় টুকরা করে সেপটিক ট্যাংকে

নিহত আজহার

১৯ মে রাত থেকে নিখোঁজ আজহার। মসজিদের সেপটিক ট্যাংক থেকে দুর্গন্ধ ছড়ালে মঙ্গলবার তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। হত্যায় জড়িত অভিযোগে মসজিদের ইমাম আব্দুর রহমানকে আটক করেছে র‌্যাব।

তার মনে হয়েছিল, স্ত্রীর দিকে কুনজর আছে মসজিদের ইমামের। এ নিয়ে ভিকটিম আজহার মসজিদে গিয়েছিলেন ইমামকে হুমকি-ধমকি দিতে। দুজনের বাগ্‌বিতণ্ডার একপর্যায়ে কোরবানির গরু জবাইয়ের ছুরি দিয়ে আজহারের গলায় আঘাত করেন ইমাম মাওলানা আব্দুর রহমান।

মৃত্যু নিশ্চিত হওয়ার পর আজহারের মরদেহ ছয় টুকরা করা হয়। আর ইমাম পুরো কাজটি করেন দক্ষিণখানের সরদারবাড়ি জামে মসজিদে তার শয়নকক্ষে। এরপর মসজিদের সেপটিক ট্যাংকে মরদেহের টুকরাগুলো লুকিয়ে রাখেন ইমাম।

ট্যাংক থেকে দুর্গন্ধ ছড়ালে মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে আজহারের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। হত্যায় জড়িত থাকার অভিযোগে ইমাম আব্দুর রহমানকে আটক করে র‌্যাব।

আব্দুর রহমানকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের বরাতে এসব তথ্য জানিয়েছেন র‌্যাব-১-এর অধিনায়ক লে. কর্নেল আব্দুল মোত্তাকিম। মঙ্গলাবার বিকেলে কারওয়ান বাজারে র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, হত্যাকাণ্ডটি ঘটেছে গত ১৯ মে রাতে।

কী নিয়ে বাগ্‌বিতণ্ডা হয়েছিল- জানতে চাইলে আব্দুল মোত্তাকিম জানান, ইমাম আব্দুর রহমান বলেছেন, আজহার অভিযোগ করছিলেন, তার স্ত্রীর দিকে ইমামের কুনজর রয়েছে। কিন্তু আজহারের স্ত্রীর সঙ্গে কোনো সম্পর্ক থাকার কথা অস্বীকার করেছেন ইমাম।

র‌্যাব জানিয়েছে, হত্যাকাণ্ডে নিহতের স্ত্রী জড়িত কি না, তা জানতে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। ঘটনার এক দিন আগে আজহারের স্ত্রী তার গ্রামের বাড়ি টাঙ্গাইলে চলে যান। তিনি ঘটনার আগের দিন থেকে টাঙ্গাইলেই ছিলেন কি না এবং হত্যায় তার সম্পৃক্ততা ছিল কি না, এ ব্যাপারে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব-১-এর অধিনায়ক আব্দুল মোত্তাকিম জানান, মাওলানা মো. আব্দুর রহমান সরদারবাড়ি জামে মসজিদে ৩৩ বছর ধরে ইমামতি করে আসছেন। ভিকটিম আজহারের চার বছরের ছেলে মসজিদের মক্তবে পড়াশোনা করত। ভিকটিম নিজেও তার কাছে কোরআন শিক্ষা গ্রহণ করেছেন। এই সুবাদে ভিকটিমের বাসায় ইমামের প্রায়ই যাওয়া-আসা ছিল। মাওলানা আব্দুর রহমানের সঙ্গে ভিকটিমের পারিবারিক সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

ভিকটিম আজহার ১৯ মে থেকে নিখোঁজ। গত ২৪ মে র‌্যাব-১ গোপন সূত্রে জানতে পারে, মসজিদে সিঁড়িতে রক্তের দাগ। সেপটিক ট্যাংক থেকে দুর্গন্ধ বের হচ্ছে। দুর্গন্ধের উৎস খুঁজতে গিয়ে মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে সেপটিক ট্যাংক থেকে আজহারের ছয় খণ্ড মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

এর আগে মসজিদসংলগ্ন মাদ্রাসাতুর রহমান আল আরাবিয়া থেকে মসজিদের ইমাম আব্দুর রহমানকে আটক করে র‌্যাব। তার কাছ থেকে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহার করা তিনটি চাকু ও একটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়। ইমামের বিরুদ্ধে মামলা প্রক্রিয়াধীন।

শেয়ার করুন

মন্তব্য